ঢাকা, শুক্রবার, ৩ আশ্বিন ১৪২৭, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২৯ মহররম ১৪৪২

শিক্ষা

জেএসসি-জেডিসিতে এগিয়ে মেয়েরা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০২৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৫, ২০১৮
জেএসসি-জেডিসিতে এগিয়ে মেয়েরা ফল প্রকাশের পর শিক্ষার্থীদের উল্লাস (ফাইল ফটো)

ঢাকা: অষ্টম শ্রেণির জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে। প্রকাশিত ফলাফলে এবারও ছেলেদের তুলনায় মেয়েরা এগিয়ে আছে।

সোমবার (২৪ ডিসেম্বর) সকাল ১০টার পর গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে এ ফলাফলের অনুলিপি তুলে দেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান।

মোট শিক্ষার্থী
এবার মোট ২৫ লাখ ৯৯ হাজার ১৬৯ জন শিক্ষার্থী জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে।

এরমধ্যে ১১ লাখ ৯২ হাজার ৮৫২ জন ছেলে এবং ১৪ লাখ ৬ হাজার ৩১৭ জন মেয়ে। অর্থাৎ এবছর ছেলেদের তুলনায় পরীক্ষায় দুই লাখ ১৩ হাজার ৪৬৫ জন মেয়ে বেশি অংশ নিয়েছে।

অন্যদিকে, গত বছর জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষায় ২৪ লাখ ১২ হাজার ৭১১ জন শিক্ষার্থী অংশ নিয়েছিলো। যার মধ্যে ১১ লাখ ২১ হাজার ২২ জন ছেলে ও ১২ লাখ ৯১ হাজার ৬৮৯ জন মেয়ে পরীক্ষায় ছিলো। গতবছরের তুলনায় পরীক্ষার্থীর সংখ্যাও বেড়েছে এবার।

মোট কৃতকার্য শিক্ষার্থী
পরীক্ষায় অংশ নেওয়া ছাত্রীর মোট সংখ্যার পাশাপাশি ছেলেদের তুলনায় বেড়েছে মেয়েদের পাসের সংখ্যা ও হার। এবছর সফলভাবে উত্তীর্ণ হয়েছে ১০ লাখ ১৫ হাজার ৩৮৭ জন ছাত্র। গতবছর এই সংখ্যা ছিলো ৯ লাখ ৩৬ হাজার ৭৩৩ জন। অর্থাৎ ছাত্র পাসের সংখ্যা বেড়েছে ৭৮ হাজার ৬৫৪ জন। আর চলতি বছর উত্তীর্ণ ছাত্রীর সংখ্যা ১২ লাখ ১৫ হাজার ৪৪২ জন। গত বছর এ সংখ্যা ছিলো ১০ লাখ ৮১ হাজার ৫৩৮ জন। অর্থাৎ উত্তীর্ণ ছাত্রীর সংখ্যা বেড়েছে এক লাখ ৩৩ হাজার ৯০৪ জন। তাই প্রকাশিত ফলাফলে ছাত্রের তুলনায় দুই লাখ ৫৫ জন ছাত্রী বেশি পাস করেছে। শতকরা হিসেবে এক দশমিক ৩১ শতাংশ ছাত্রী বেশি পাস করেছে।

পাসের হার
পাসের হার বিশ্লেষণ করলে দেখা যায়, চলতি বছর ছাত্রী পাসের হার ৮৬ দশমিক ৪৩ শতাংশ। অন্যদিকে ছাত্র পাসের হার ৮৫ দশমিক ১২ শতাংশ। গত বছরের তুলনায় পাসের হারে এগিয়ে মেয়েরা। গত বছরের তুলনায় এবার ছেলেদের পাসের হার বৃদ্ধি পেয়েছে এক দশমিক ৫৬ শতাংশ। মেয়েদের পাসের হার বৃদ্ধি পেয়েছে দুই দশমিক ৭০ শতাংশ।

জিপিএ-৫
এবারের জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষায় পাস করেছে ২২ লাখ ৩০ হাজার ৮২৯ জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৬৮ হাজার ৯৫ জন। যার মধ্যে মেয়ে ৩৯ হাজার ৯০৫ জন ও ছেলে ২৮ হাজার ১৯০ জন। এ বছর চতুর্থ বিষয়ের নম্বর যোগ না হওয়ায় জিপিএ-৫ পাওয়ার সংখ্যা কমেছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

বাংলাদেশ সময়: ১৭০০ ঘণ্টা ডিসেম্বর ২৪, ২০১৮
এসএইচএস/ওএইচ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa