bangla news

সাধারণ শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে উত্তাল রাবি

118 |
আপডেট: ২০১৪-০১-৩০ ৭:১৩:৪৮ এএম
ছবি : বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি : বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বিভিন্ন বিভাগে চালুকৃত সান্ধ্যকালীন মাস্টার্স কোর্স বন্ধ ও বর্ধিত ফি প্রত্যাহারের দাবিতে সাধারণ শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে উত্তাল হয়ে উঠেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি)।

রাবি: বিভিন্ন বিভাগে চালুকৃত সান্ধ্যকালীন মাস্টার্স কোর্স বন্ধ ও বর্ধিত ফি প্রত্যাহারের দাবিতে সাধারণ শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে উত্তাল হয়ে উঠেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি)।

১৬ জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়া এ আন্দোলনের অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার ক্যাম্পাসে সর্বাত্মক ছাত্র ধর্মঘট পালিত হয়। ধর্মঘটে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো বিভাগে ক্লাস-পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়নি।

এদিকে, দাবি না মানলে শনিবার থেকে লাগাত‍ার ধর্মঘট চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৭টার দিক থেকে ধর্মঘট সফল করতে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের সব একাডেমিক ভবনের ফটকে তালা ঝুলিয়ে ছোট ছোট দলে ভাগ হয়ে ভবনের সামনে অবস্থান নেয়। তারা ধর্মঘটের সমর্থনে বিভিন্ন স্লোগান দেয়।

এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবন, রবীন্দ্র কলা ভবন, মমতাজ উদ্দিন কলা ভবনের সামনে প্রায় একই সময়ে পরপর তিনটি ককটেল বিস্ফোরিত হয়। এছাড়া উপ-উপাচার্যের বাসভবনের সামনে থেকে একটি ককটেল অবিস্ফোরিত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। তবে এতে কেউ হতাহত হয়নি।

পরে শিক্ষার্থীরা এ ঘটনার প্রতিবাদে রবীন্দ্র কলা ভবনের সামনে থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করেন। এছাড়া দিনভর দফায় দফায় বিক্ষোভ মিছিল ও স্লোগানে উত্তাল ছিল পুরো ক্যাম্পাস।

ধর্মঘট উপেক্ষা করে পরীক্ষা নেওয়ার জন্য শহীদুল্লাহ কলা ভবনের ভেতরে ঢুকতে চাইলে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের তোপের মুখে পড়েন বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক অধ্যাপক ইলিয়াছ হোসেন, কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের প্রশাসক ও বাংলা বিভাগের অধ্যাপক সফিকুন্নবী সামাদীসহ বেশ কয়েকজন শিক্ষক। একপর্যায়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন তারা।

অপরদিকে, শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে একত্মতা ঘোষণা করেছেন বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। দুপুর ১টার দিকে ছাত্রলীগের বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি মিজানুর রহমান রানার নেতৃত্বে দলীয় নেতাকর্মীরা শিক্ষার্থীদের যৌক্তিক দাবির প্রতি সমর্থন জানিয়ে তা মেনে নিতে উপাচার্যকে স্মারকলিপি দেন।

মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শামসুর নূর বাংলানিউজকে জানান, কয়েক দুর্বৃত্ত ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটিয়েছে। জড়িতদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনার চেষ্টা চলেছে।

এ বিষয়ে রাবি উপাচার্যের অধ্যাপক মুহম্মদ মিজানউদ্দিন বলেন, উদ্ভুত পরিস্থিতিতে উচ্চ পর্যায়ের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। তাদের রিপোর্ট পাওয়ার পর পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে। দ্রুত এ সমস্যার সমাধান হবে বলে তিনি জানান।

রাবিতে শিক্ষার্থীদের ধর্মঘট চলছে

বাংলাদেশ সময়: ১৮০৬ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৩০, ২০১৪

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2014-01-30 07:13:48