bangla news

কঠোর নিরাপত্তায় রাবিতে দ্বিতীয় দিনের ভর্তি পরীক্ষা শুরু

38 |
আপডেট: ২০১৪-০১-২৩ ১১:৩১:২৮ পিএম

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ২০১৩-২০১৪ শিক্ষাবর্ষে ১ম বর্ষ স্নাতক সম্মান/স্নাতক শ্রেণীতে ভর্তি পরীক্ষা ২য় দিনের মতো শুরু হয়েছে।

রাবি: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ২০১৩-২০১৪ শিক্ষাবর্ষে ১ম বর্ষ স্নাতক সম্মান/স্নাতক শ্রেণীতে ভর্তি পরীক্ষা ২য় দিনের মতো শুরু হয়েছে।

কঠোর নিরাপত্তায় শুক্রবার সকাল সাড়ে ৮টায় সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের অধীন E ইউনিটের পরীক্ষা শুরু হয়।

সকাল সাড়ে ৮টা থেকে E ইউনিটের বিজোড় রোল নম্বর, সকাল সোয়া ১০টা থেকে E ইউনিটের জোড় রোল নম্বর, দুপুর ১২টা থেকে D ইউনিটের বাণিজ্য: বিজোড় রোল নম্বর এবং বিকেল সাড়ে ৩টা থেকে D ইউনিটের বাণিজ্য: জোড় রোল নম্বর ও সব অ-বাণিজ্য রোল নম্বরের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

এদিকে, ভর্তি পরীক্ষার শুরুতেই ২৩ জানুয়ারি (বৃহস্পতিবার) ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনায় চারজন আহত হয়। এজন্য শুক্রবার ক্যাম্পাসজুড়ে নেওয়া হয়েছে অতিরিক্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে ইতোমধ্যে নগরীতে পৌঁছেছেন ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীরা। লক্ষাধিক ভর্তিচ্ছু ও তাদের অভিভাবকদের পদচারণায় মুখর হয়ে উঠেছে শিক্ষা নগরী রাজশাহী। আগামী সোমবার পর্যন্ত টানা পাঁচদিন অনুষ্ঠিত হবে এ পরীক্ষা।

এবার তিন হাজার ৬০১টি আসনের বিপরীতে ভর্তি পরীক্ষার জন্য নিবন্ধন করেছেন এক লাখ ৬৮ হাজার ২২৪ জন শিক্ষার্থী। এ হিসেবে প্রতি আসনের জন্য ৪৭ জন শিক্ষার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

এদিকে, ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের গুজবে শিক্ষার্থীদের বিভ্রান্ত না হওয়ার পরামর্শ দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক চৌধুরী সারওয়ার জাহান ভুয়া প্রশ্নপত্র ফাঁস চক্রের ব্যাপারে ভর্তীচ্ছু শিক্ষার্থীদের সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়ে বলেন, প্রতি বছরই কিছু অসাধু চক্র ভুয়া প্রশ্নপত্র দিয়ে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নেওয়ার চেষ্টা চালায়। এসব অসাধু চক্রকে ধরতে ক্যাম্পাসসহ নগরীজুড়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা সতর্ক রয়েছে। ভর্তি পরীক্ষার দিনগুলিতে ক্যাম্পাস ও আশপাশের এলাকায় পর্যাপ্ত সাদা পোশাকের পুলিশ দায়িত্ব পালন করবেন। ভর্তি পরীক্ষা সফলভাবে সম্পন্ন করতে বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার পুরোপুরি প্রস্তুত বলে জানান তিনি।

বহুল প্রতীক্ষিত এ ভর্তি পরীক্ষাকে সামনে রেখে ক্যাম্পাসে উৎসব মুখর পরিবেশ বিরাজ করছে। আবাসিক হলগুলোর সামনে গড়ে উঠেছে ভ্রাম্যমাণ খাবারের দোকান। রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে দীর্ঘদিন শিক্ষার্থীশূন্য রাবি ক্যাম্পাসের চিত্র পাল্টে গেছে হাজার হাজার ভর্তীচ্ছু শিক্ষার্থীর আগমনে। সর্বত্র চোখে পড়ছে শিক্ষার্থীদের আনাগোনা।

কুমিল্লা থেকে ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে আসা আবু নাঈম বলেন, বারবার পরীক্ষা পিছিয়ে যাওয়ায় অনিশ্চয়তায় ভুগছিলাম। অবশেষে পরীক্ষা হচ্ছে, এতে আম‍াদের দীর্ঘদিনের প্রতীক্ষার অবসান হবে।

ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদারসহ বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। ক্যাম্পাসের রাস্তায় বিভিন্ন ভবন ও স্থাপনায় যাওয়ার দিক নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। প্রক্টর অফিসের উদ্যোগে বিভিন্ন স্থানে পরীক্ষার্থীদের আসন বিন্যাস টাঙিয়ে দেওয়া হয়েছে।

২০১৩ সালের ১০ থেকে ১৪ নভেম্বর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। সেসময় ১৮ দলীয় জোট হরতাল দেওয়ায় তারিখ পরিবর্তন করে ৫ থেকে ৯ ডিসেম্বর নির্ধারণ করা হয়। তবে পুনঃনির্ধারিত তারিখেও ১৮ দলীয় জোটের অবরোধ কর্মসূচি থাকায় ভর্তি পরীক্ষার তারিখ পরিবর্তন করে ২৫ থেকে ২৮ ডিসেম্বর নির্ধারণ করা হয়।

তৃতীয় বার তারিখ পরিবর্তন করে ২৮ থেকে ৩১ ডিসেম্বর নির্ধারণ করা হয়। রাজনৈতিক পরিস্থিতি স্থিতিশীল না হওয়ায় চতুর্থবার ভর্তি পরীক্ষার সময়সূচি পরিবর্তন করে ১০ থেকে ১৪ জানুয়ারি করা হয়। এরপর গত ৮ জানুয়ারি ভর্তি পরীক্ষা অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত করা হয়। পরে ২৩ জানুয়ারি থেকে ভর্তি পরীক্ষার নতুন তারিখ নির্ধারণ করা হয়।
 
পরীক্ষা পরিদর্শনের পর উপাচার্য অন্যান্য দিনের ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী, শিক্ষার্থী, ভর্তীচ্ছু ছাত্র-ছাত্রী, অভিভাবক, স্থানীয় প্রশাসন ও এলাকাবাসীসহ সংশ্লিষ্ট সবার সহযোগিতা কামনা করেন।

বাংলাদেশ সময়: ১০২৭ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৪, ২০১৪

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2014-01-23 23:31:28