ঢাকা, বুধবার, ৩ বৈশাখ ১৪৩১, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৭ শাওয়াল ১৪৪৫

শিক্ষা

পঞ্চগড়ে ভুয়া পরীক্ষার্থী আটক, অভিযোগের তীর মাদরাসার অধ্যক্ষের দিকে!

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০০৮ ঘণ্টা, মার্চ ৫, ২০২৪
পঞ্চগড়ে ভুয়া পরীক্ষার্থী আটক, অভিযোগের তীর মাদরাসার অধ্যক্ষের দিকে!

পঞ্চগড়: পঞ্চগড়ের আটোয়ারী উপজেলায় দাখিল পরীক্ষায় প্রক্সি দিতে গিয়ে এক ভুয়া পরীক্ষার্থী আটক হয়েছে। এরপর ওই ছেলের পরিবার দাবি করেছে, তাদের ছেলেকে পরীক্ষার্থী সাজিয়ে কেন্দ্রে পাঠিয়েছেন মাদরাসার অধ্যক্ষ।

এ ঘটনায় ক্ষোভ বিরাজ করছে স্থানীয়দের মাঝে।

মঙ্গলবার (৫ মার্চ) দুপুরে উপজেলার পঞ্চগড়ের আটোয়ারী মির্জাপুর মাওলানা আজিম উদ্দীন আলিম মাদরাসার পরীক্ষা কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, আটক শিক্ষার্থী (১৭) একই উপজেলার লক্ষ্মীপুর ইসলামিয়া আলিম মাদরাসার আলিম শাখার শিক্ষার্থী। সে ধামোর ইউনিয়নের গাজবাড়ি সরকারপাড়ার বাসিন্দা।  

জানা গেছে, মির্জাপুর মাওলানা আজিম উদ্দীন আলিম মাদরাসার দাখিল পরীক্ষা কেন্দ্রে মঙ্গলবার (৫ মার্চ) অনুষ্ঠিত হয় ইংরেজি দ্বিতীয় পত্রের দাখিল পরীক্ষা। আর এ কেন্দ্রের পরীক্ষার্থী মির্জাপুর ইউনিয়নের লক্ষ্মীপুর গ্রামের এক কিশোর। কিন্তু ওই কিশোর পরীক্ষায় অংশ না নেওয়ায় তার পরিবর্তে পরীক্ষায় অংশ নেয় আলিম শাখার আরেক ছাত্র। বিষয়টি টের পেয়ে যান কেন্দ্র সচিব আব্দুল মান্নান। পরে বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে ভুয়া পরীক্ষার্থী শনাক্ত করে থানা পুলিশে খবর দেন তিনি। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে ভুয়া পরীক্ষার্থীকে আটক করে।  

এদিকে আটক শিক্ষার্থীর পরিবারের অভিযোগ, আলিম শাখার এ ছাত্রকে বুঝিয়ে পরীক্ষা কেন্দ্রে নিয়েছেন লক্ষ্মীপুর ইসলামিয়া আলিম মাদরাসার অধ্যক্ষ আব্দুল মতিন।

আটক শিক্ষার্থীর বাবা বাংলানিউজকে বলেন, আমার ছেলে মাদরাসায় তার আলিমের টেস্ট পরীক্ষা দিতে বাড়ি থেকে মাদরাসায় যায়। এর মধ্যে দুপুরে খবর আসে, তাকে দাখিল পরীক্ষার একটি কেন্দ্র থেকে পুলিশ আটক করেছে। আমার সন্তান এমন কাজের সঙ্গে যুক্ত নয়, তাকে ভুল বুঝিয়ে সেখানে নিয়ে গেছে। আমি এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার দাবি করছি।

আটক শিক্ষার্থীর এক সহপাঠী বাংলানিউজকে অভিযোগ করে বলেন, গত তিন-চারদিন ধরে আব্দুল মতিন হুজুর আমাদের এক পরীক্ষার্থীর পরিবর্তে পরীক্ষায় অংশ নিতে বলে আসছিলেন। কিন্তু আমরা রাজি হইনি। এর মাঝে আমরা আজ সকালে মাদরাসায় টেস্ট পরীক্ষা দিতে যাওয়ার পথে হুজুর তাকে (আটক ছাত্র) মোটরসাইকেলে তুলে পরীক্ষা কেন্দ্রে নিয়ে যান। পরীক্ষা দিলে কোনো সমস্যা হবে না বলে তাকে সাহস দেন হুজুর। এখন আমার বন্ধুকে ফাঁসিয়েছেন হুজুর। আমরা হুজুরের বিচার ও আমার বন্ধুর মুক্তি চাই।

এদিকে স্থানীয়রা বলেন, লক্ষ্মীপুর ইসলামিয়া আলিম মাদরাসার এ অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে নিয়োগ বাণিজ্যসহ বিভিন্ন অপকর্মের অভিযোগ রয়েছে।  

বার বার চেষ্টা করেও মোবাইল ফোনে অভিযুক্ত অধ্যক্ষ আব্দুল মতিনের সঙ্গে যোগাযোগ করা যায়নি।  

তবে পরীক্ষার কেন্দ্র সচিব আব্দুল মান্নান বলছেন, মূল পরীক্ষার্থী শাহজাহানকে এ ঘটনার পর বোর্ডে লিখিতভাবে জানিয়ে বহিষ্কার করা হয়েছে। আর আটক শিক্ষার্থীর নামে মামলা করা হচ্ছে।  

আটোয়ারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রাসেদুল হাসান বাংলানিউজকে বলেন, ঘটনাটি তদন্ত করে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

বাংলাদেশ সময়: ২০০৫ ঘণ্টা, মার্চ ০৫, ২০২৪
এসআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।