ঢাকা, বুধবার, ৮ ফাল্গুন ১৪৩০, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১০ শাবান ১৪৪৫

অর্থনীতি-ব্যবসা

জুয়েলারি শিল্পে চুরি-ডাকাতি-হত্যার দ্রুত তদন্ত, শাস্তি দাবি

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২০১ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ৮, ২০২২
জুয়েলারি শিল্পে চুরি-ডাকাতি-হত্যার দ্রুত তদন্ত, শাস্তি দাবি ছবি: ডিএইচ বাদল 

ঢাকা: সারাদেশে জুয়েলারি শিল্পের চলমান সংকট ও সমস্যার সমাধানসহ এই শিল্পের নিরাপত্তার দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশন (বাজুস)। একই সঙ্গে দেশজুড়ে জুয়েলারি শিল্পে চুরি, ডাকাতি ও হত্যার ঘটনাগুলো দ্রুততার সঙ্গে তদন্ত করে দোষী ব্যক্তিদের শাস্তির আওতায় আনা এবং চুরিকৃত স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকা উদ্ধারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ জানিয়েছে সংগঠনটি।

বৃহস্পতিবার (০৮ সেপ্টেম্বর) সকালে পান্থপথস্থ বসুন্ধরা সিটি শপিং কমপ্লেক্সে বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বাজুস) কার্যালয়ে জুয়েলারি শিল্পের নিরাপত্তার দাবিতে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে একথা জানানো হয়। এ সময় সংগঠনটির সাবেক প্রেসিডেন্ট দিলীপ রায় ও বাজুস স্ট্যান্ডিং কমিটি অন এন্টি স্মাগলিং অ্যান্ড ল এনফোর্সমেন্টের সদস্য সচিব ইকবাল উদ্দিনসহ বাজুসের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।  

সংবাদ সম্মেলনে বাজুসের এন্টি স্মাগলিং অ্যান্ড ল এনফোর্সমেন্টের চেয়ারম্যান এনামুল হক খান দোলন জানান, সারাদেশের প্রায় ৪০ হাজার জুয়েলারি প্রতিষ্ঠানের প্রাণের সংগঠন বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশন- বাজুস প্রেসিডেন্ট সায়েম সোবহান আনভীরসহ আমাদের কেন্দ্রীয় কমিটির সকল নেতাদের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।

তিনি বলেন, জুয়েলারি শিল্পের চলমান সংকট ও সমস্যা, দেশি-বিদেশি চোরাকারবারি সিন্ডিকেটের দৌরাত্ম্য, অর্থপাচার ও চোরাচালান বন্ধে কাস্টমসসহ সকল আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোর জোরালো অভিযানের দাবি জানিয়ে গত ১৩ আগস্ট ঐতিহ্যবাহী বাণিজ্য সংগঠন বাজুস সংবাদ সম্মেলনে মিলিত হয়েছিল। এই সংবাদ সম্মেলনের পর আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলো ব্যাপক তৎপরতা শুরু করেছে। বাজুসের আহ্বানে বাংলাদেশ ব্যাংক, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড- এনবিআরের কাস্টমস বিভাগ ও অন্যান্য আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলো ব্যাপক সাড়া দেওয়ায় আমরা কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

এনামুল হক খান দোলন বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে জুয়েলারি দোকানে চুরি ও প্রকাশ্যে ডাকাতির ঘটনা বৃদ্ধি পাচ্ছে। গত ৩১ আগস্ট গভীর রাতে ঢাকার কেরানীগঞ্জ উপজেলার কলাতিয়া বাজারের মন্দির মার্কেটের কাঁকন জুয়েলার্সে চুরির ঘটনা ঘটেছে। চোরের দল দোকান থেকে প্রায় ১৫০ ভরি স্বর্ণের ও দুই কেজি রূপার গহনা চুরি করে নিয়ে যায়।

দেশের বিভিন্ন স্থানের জুয়েলারি শিল্পের ডাকাতির ঘটনা বর্ণনা করে তিনি বলেন, গত ২৯ জুলাই রাজধানী ঢাকার মিরপুরের রূপনগরে রজনীগন্ধা মার্কেটে দিন দুপুরে নিউ বিসমিল্লাহ জুয়েলার্সে চুরির ঘটনা ঘটেছে। চোরের দল দোকান থেকে প্রায় ৪০ ভরি স্বর্ণ ও ৫০ ভরি রূপা চুরি করে নিয়ে যায়।

এর আগে ২০ জুলাই ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলাধীন প্রদীপ জুয়েলার্সে প্রকাশ্যে ককটেল ফাটিয়ে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ডাকাতি সংগঠিত হয়। ডাকাতদল দোকান থেকে প্রায় ৫০ ভরি স্বর্ণালংকার নিয়ে যায়। এ সময় ডাকাতের গুলিতে দোকান মালিক অধীর কর্মকার গুরুতর আহত হন। এ ব্যাপারে ২১ জুলাই ভালুকা মডেল থানায় মামলা নং ৪০ দায়ের করা হয়েছে।

গত ০৬ জুন ময়মনসিংহের ট্রাংক পট্টিতে বর্ষা জুয়েলার্সে চুরির ঘটনা ঘটে। এ ব্যাপারে ৮ জুন কোতয়ান মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে মামলা নং-৩১। গত ২৪ এপ্রিল রাজধানীর ঢাকার রাজারবাগ কালী মন্দীর মার্কেটে মা গোল্ড হাউসে চুরির ঘটনা ঘটে। এ ব্যাপারে ২৫ এপ্রিল সবুজবাগ থানা মামলা দায়ের করা হয়। মামলা নং-২৬। এছাড়া কচুক্ষেত রজনীগন্ধা টাওয়ারস্থ রাঙ্গাপরি জুয়েলার্সে চুরির ঘটনা ঘটে। এ ব্যাপারে ৫ ফেব্রুয়ারি ভাষানটেক থান মামলা দায়ের করা হয়। মামলা নং-০৭ (০২)।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, সর্বশেষ গত ০৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ বন্দর নগরী চট্টগ্রামের বাজুস সদস্য ধীমান ধরকে নৃশংসভাবে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। এই ঘটনায় আমরা গভীরভাবে মর্মাহত ও শোক প্রকাশ করছি। আমরা ঘটনাগুলো দ্রুততার সঙ্গে তদন্ত করে দোষী ব্যক্তিদের শাস্তির আওতায় আনা এবং চুরি হওয়া স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকা উদ্ধারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ জানাচ্ছি। একই সঙ্গে দেশের জুয়েলারি প্রতিষ্ঠানে নিরাপত্তা জোরদার করার অনুরোধ জানাচ্ছি।

বজুস মনে করে, সারাদেশে শান্তি, শৃঙ্খলা রক্ষা ও সমাজে শান্তি প্রতিষ্ঠায় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর গৌরবোজ্জ্বল ভূমিকা রয়েছে। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী রাষ্ট্রের শৃঙ্খলা ও ব্যবসার সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখার লক্ষ্যে নিলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

বাংলাদেশ সময়: ১২০০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ০৮, ২০২২
জিসিজি/এসআইএস 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।