ঢাকা, শুক্রবার, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯, ১২ আগস্ট ২০২২, ১৩ মহররম ১৪৪৪

অর্থনীতি-ব্যবসা

স্বর্ণ শিল্পের হারানো ঐতিহ্য ফেরাতে কাজ করছে বাজুস

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮২১ ঘণ্টা, জুন ১৩, ২০২২
স্বর্ণ শিল্পের হারানো ঐতিহ্য ফেরাতে কাজ করছে বাজুস বাজুস কিশোরগঞ্জ জেলা শাখার মতবিনিময় সভা হয়েছে

কিশোরগঞ্জ: ‘বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বাজুস) প্রেসিডেন্ট সায়েম সোবহান আনভীরের হাত ধরে এগিয়ে যাচ্ছেন স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা। এ নিয়ে জেলায় জেলায় বাজুসের কাজ চলছে।

এর ফলে সুফল পাবেন সবাই। ’

সোমবার (১৩ জুন) দুপুরে বাজুস কিশোরগঞ্জ জেলা শাখার মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাজুসের কার্যনির্বাহী সদস্য ও স্ট্যান্ডিং কমিটি অন ডিস্ট্রিক্ট মনিটরিংয়ের সদস্য পবিত্র চন্দ্র ঘোষ এ কথা বলেন।

কিশোরগঞ্জ জেলার শহরের বত্রিশ এলাকার উৎসব কমিউনিটি সেন্টারে এ মতবিনিময় সভার আয়োজন করে বাজুস কিশোরগঞ্জ জেলা শাখা।  

পবিত্র চন্দ্র ঘোষ বলেন, ‘সারা দেশে এরই মধ্যে ৪০ হাজার স্বর্ণ ব্যবসায়ী বাজুসের সদস্য হয়েছেন। সবাইকে একসঙ্গে কাজ করে যেতে হবে। স্বর্ণ নীতিমালা তৈরি করেছে বাজুস। ঐক্যবদ্ধ থাকলে সুফল পাবেন সবাই। এক ছাতার নিচে থেকে কাজ করে যেতে হবে। দেশে স্বর্ণ শিল্পের হারানো ঐতিহ্যকে ফিরিয়ে আনতে কাজ করছে বাজুস। ’ 

‘পূর্ণিমার চাঁদ হয়ে এসেছেন বাজুস প্রেসিডেন্ট সায়েম সোবহান আনভীর। তার আলোয় আলোকিত হবে জুয়েলারি ব্যবসা। আন্তর্জাতিকভাবে এ জুয়েলারি ব্যবসার সুনাম ছড়িয়ে পড়বে। দেশ ও জাতি এগিয়ে যাবে,’ যোগ করেন তিনি।  

তিনি বলেন, ‘ভোক্তাদের প্রতারিত করা যাবে না। স্বর্ণের মান ঠিক রাখতে হবে। সারাদেশে এক রেটে স্বর্ণ বিক্রির কাজ চলছে। নির্ধারিত রেটে স্বর্ণ বিক্রি করতে হবে। কম বা বেশি রেটে স্বর্ণ বিক্রি করতে পারবেন না কেউ। নিরাপত্তার বিষয়টি নিয়ে কাজ করছে বাজুস। ’ 

মতবিনিময় সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন বাজুস স্ট্যান্ডিং কমিটি অন ডিস্ট্রিক্ট মনিটরিংয়ের সদস্য চন্দন কুমার ঘোষ। তিনি বাজুসকে শক্তিশালী করতে সবাইকে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানান।

বাজুস কিশোরগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি গাজী জামাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মো. মাসুদুজ্জামানের পরিচালনায় মতবিনিময় সভায় বক্তব্য দেন-বাজুস জেলা শাখার সদস্য উজ্জ্বল রায়, বিজয় চন্দ্র সরকার, সাবেক সভাপতি মো. আসাদুজ্জামান আসাদ, পাকুন্দিয়া উপজেলার প্রতিনিধি শাহান শাহ, কটিয়াদী উপজেলার প্রতিনিধি আলমগীর হোসেনসহ অনেকে।  

মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন-বাজুস জেলা শাখার সহসভাপতি মদন কুমার কর্মকার, সহ-সাধারণ সম্পাদক পাপন বসাক, সুব্রত রায়, মো. গাজী মিয়া, আলমগীর হোসেনসহ জেলার ১৩টি উপজেলার বিপুল সংখ্যক বাজুস সদস্যরা।  

বাংলাদেশ সময়: ১৮১৯ ঘণ্টা, জুন ১৩, ২০২২
এসআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa