ঢাকা, বুধবার, ১২ মাঘ ১৪২৮, ২৬ জানুয়ারি ২০২২, ২২ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

অর্থনীতি-ব্যবসা

আগস্টে ডিজিটাল লেনদেনের রেকর্ড 

শাহেদ ইরশাদ, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭ ঘণ্টা, অক্টোবর ৩০, ২০২১
আগস্টে ডিজিটাল লেনদেনের রেকর্ড 

ঢাকা: প্রচলিত ব্যাংকিং ব্যবস্থা থেকে দ্রুত ডিজিটাল আর্থিক লেনদেনের দিকে ঝুঁকছে মানুষ। চলতি বছরের আগস্টে ডিজিটাল লেনদেন আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৮৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বলেছেন, দেশে ডিজিটাল আর্থিক লেনদেন আগস্ট পর্যন্ত এক বছরে শক্তিশালী প্রবৃদ্ধি হয়েছে, যা ব্যাংকিং খাতে প্রত্যাশিত সময়ের চেয়ে অনেক আগেই প্রচলিত ব্যাংকিং লেনদেনের জায়গা দখল করেছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের বড় অংকের পেমেন্ট সিস্টেম রিয়েল টাইম গ্রস সেটেলমেন্টের (আরটিজিএস) মাধ্যমে লেনদেন আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় আগস্ট মাসে লেনদেন ৮৫ শতাংশ বৃদ্ধির রেকর্ড করেছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সবশেষ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চলতি বছরের আগস্টে ইন্টারনেট ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে লেনদেন ৫৯ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে দাঁড়িয়েছে ১০৮ দশমিক ২৫ বিলিয়ন টাকায়। একই সময়ে ইন্টারনেট ব্যাংকিং ব্যবহারকারী ৩১ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩ দশমিক ৮ মিলিয়নে।

বাংলাদেশ ইলেক্ট্রনিক ফান্ড ট্রান্সফার নেটওয়ার্ক (বিইএফটিএন) লেনদেন সংখ্যার ভিত্তিতে ২৩ শতাংশ বেড়েছে। পরিমাণের ভিত্তিতে লেনদেন ৬৮ শতাংশ বেড়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কার্ডের মাধ্যমে লেনদেন (দেশে বিদেশে) সংখ্যার ভিত্তিতে বেড়েছে ৫৩ দশমিক ৫ শতাংশ এবং পরিমাণের ভিত্তিতে ৩৬ দশমিক ৪ শতাংশ বেড়েছে।

মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস বা এমএফএস এর মাধ্যমে সব ধরনের লেনদেনও আগস্টে ৫০ শতাংশের বেশি বা ৬২২ দশমিক বিলিয়ন টাকা।

এসব লেনদেনের মধ্যে ক্যাশ-ইন, ক্যাশ-আউট ও বেতন রয়েছে। তবে শহর ও গ্রামীণ উভয় ক্ষেত্রেই ১১ শতাংশের বেশি অ্যাকাউন্ট নিবন্ধিত হয়েছে।

ব্যাংকাররা বলেছেন, করোনাভাইরাস মহামারিতে ডিজিটাল লেনদেনের এই প্রবৃদ্ধি অর্জিত হয়েছে। কারণ মহামারি গ্রাহকদের বাড়িতে থাকতে বাধ্য করেছিল এবং এ সময় অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডের দ্রুত ডিজিটাইজেশনের দিকে অগ্রসর হচ্ছিল, বিশেষত সরবরাহ চেইন এবং আর্থিক ডিভাইসের পাশাপাশি চিকিৎসা পরিষেবায়।

অনেক ব্যাংক ডিজিটাল লেনদেনের জন্য উদ্ভাবনী পেমেন্ট সলিউশন হিসেবে অ্যাপ-ভিত্তিক ব্যাংকিংও অফার করছে গ্রাহকদের।

এ বিষয়ে বেসরকারি খাতের মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) সৈয়দ মাহবুবুর রহমান বলেন, এটি স্পষ্ট যে কোভিড-১৯ মহামারির কারণে ডিজিটাল লেনদেন প্রত্যাশার চেয়ে অনেক আগেই ছাড়িয়ে গেছে।

তিনি বলেন, মহামারি গ্রাহকদের ব্যাংক থেকে দূরে থাকতে বাধ্য করেছে। আমরাও ব্যাংকে উপস্থিত হয়ে লেনদেন না করতে গ্রাহকদের পরামর্শ দিয়েছি।

সৈয়দ মাহবুবুর রহমান আরও বলেন, অনেক ব্যাংক গ্রাহকদের জন্য নতুন এবং উদ্ভাবনী লেনদেন ব্যবস্থা চালু করেছে, যাতে তারা ঘরে বসে লেনদেন করতে পারেন। কারণ, আক্রমণাত্মক ভাইরাস বিশ্বব্যাপী স্বাভাবিক ব্যবস্থাকে ব্যাহত করেছে।

তিনি বলেন, আমরা স্মার্ট ব্যাংকিং নামে একটি অ্যাপ চালু করেছি। গ্রাহকরা এই স্মার্ট ব্যাংকিং অ্যাপের মাধ্যমে সবকিছু করতে পারেন। গ্রাহক এই অ্যাপের মাধ্যমে উপহার ক্রয় করতে পারছেন।

বাংলাদেশ ব্যাংক চলতি বছরের এপ্রিল মাসে রিয়েল-টাইম গ্রস সেটেলমেন্ট (আরটিজিএস) নামে ডিজিটাল সেটেলমেন্ট সিস্টেমের কার্যক্রম কয়েকদিন বন্ধ করে দিয়েছিল। তখন অর্থনীতি প্রায় থমকে গিয়েছিল।

দেশের শীর্ষ মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস প্রতিষ্ঠান বিকাশের হেড অব কর্পোরেট কমিউনিকেশন শামসুদ্দিন হায়দার ডালিম বলেন, কোভিড পরিস্থিতি অনেককে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে যেতে বাধ্য করেছে।

তিনি বলেন, রেমিট্যান্স পাঠানো ছাড়াও, মোবাইলের টকটাইম ক্রয়, ইউটিলিটি বিল পেমেন্ট ছিল এমএফএস লেনদেনে। লেনদেনের এই প্রবণতা আরও বাড়বে।

বাংলাদেশ সময়: ২০১৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ৩০, ২০২১
এসই/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa