ঢাকা, সোমবার, ১১ আশ্বিন ১৪২৮, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮ সফর ১৪৪৩

অর্থনীতি-ব্যবসা

সুবিধাবঞ্চিতদের ঈদ উৎসবে অনুদান দেওয়া যাবে বিকাশে 

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৪১ ঘণ্টা, জুলাই ১৫, ২০২১
সুবিধাবঞ্চিতদের ঈদ উৎসবে অনুদান দেওয়া যাবে বিকাশে 

ঢাকা: গত বছরের ধারাবাহিকতায় এবারও করোনাকালে সুবিধাবঞ্চিতদের ঈদ উদযাপন করার সুযোগ করে দিতে বিকাশের মাধ্যমে বিভিন্ন দাতব্য প্রতিষ্ঠান অর্থ সহায়তা গ্রহণ করছে।  

গ্রাহকরা সহজেই ঘরে বসেই পছন্দের প্রতিষ্ঠানে অনুদান দিয়ে সুবিধাবঞ্চিতদের ঈদ উদযাপনে পাশে দাঁড়াতে পারছেন।

তাছাড়া বছরজুড়েই অনুদান দিয়ে বিভিন্ন মানবহিতৈষী কার্যক্রমে যুক্ত থাকেন বিকাশ গ্রাহকরা।

প্রায় নয় লাখ গ্রাহক ৬০টি প্রতিষ্ঠানে ২৯ কোটি টাকা বিকাশের মাধ্যমে অনুদান দিয়েছেন যা করোনাকালীন আর্থিক সঙ্কট মোকাবিলায় সহায়তা করছে সুবিধাবঞ্চিতদের।

সামাজিক দূরত্ব বজার রাখার এই সময়েও সবাই যেন নিজ নিজ অবস্থান থেকে সুবিধাবঞ্চিতদের জন্য আরো সহজে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে পারেন, সেই লক্ষ্যেই গত বছর বিকাশ অ্যাপে ‘ডোনেশন’ আইকন যুক্ত হয়। এর ফলে, একদিকে দাতব্য প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য অনুদান সংগ্রহ যেমন সহজ হয়েছে, অন্যদিকে গ্রাহকরা ঘরে বসেই অনুদান দেওয়ার সুযোগ পেয়েছেন।

বর্তমানে এক টাকায় আহার (বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন-এর প্রজেক্ট), অভিযাত্রিক ফাউন্ডেশন, কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন, সাজিদা ফাউন্ডেশন, শক্তি ফাউন্ডেশন ফর ডিসঅ্যাডভান্টেজড উইমেন, আঞ্জুমান মুফিদুল ইসলাম, বাংলাদেশ থ্যালাসেমিয়া ফাউন্ডেশন, ব্র্যাক, সেন্টার ফর যাকাত ম্যানেজমেন্ট, ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন, এসওএস চিলড্রেনস ভিলেজ বাংলাদেশ, মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর,  আইসিডিডিআরবি, ন্যাশনাল লিভার ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশ, অলটার ইয়ুথ, এসো সবাই, মাস্তুল ফাউন্ডেশন, মজার ইশকুল (একটি অদম্য বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন উদ্যোগ), ফিলিস্তিন দূতাবাস ঢাকা, মির্জাপুর এক্স-ক্যাডেটস অ্যাসোসিয়েশন, তাসাউফ ফাউন্ডেশন সহ ৬০টির মতো প্রতিষ্ঠানে অনুদান দিতে পারছেন বিকাশ গ্রাহকরা।

অনুদান দিতে গ্রাহককে বিকাশ অ্যাপের ‘মোর’ আইকন অথবা সাজেশনস অংশ থেকে ‘ডোনেশন’ আইকন নির্বাচন করতে হবে। যে প্রতিষ্ঠানকে অনুদান দিতে চান তা নির্বাচন করে অনুদানের পরিমান দিয়ে পরের ধাপে নাম, ইমেইল আইডি দিয়ে সাবমিট করতে হবে। গ্রাহক চাইলে ‘পরিচয় দিতে অনিচ্ছুক’ অপশন নির্বাচন করে নিজের পরিচয় গোপনও রাখতে পারেন। পরের ধাপে পিন নম্বর দিয়ে অনুদান কার্যক্রম শেষ করার পর একটি প্রাপ্তি স্বীকারপত্র পেয়ে যাবেন গ্রাহক।

অনুদানের জন্য নির্বাচিত প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য প্রতিষ্ঠান নির্বাচন করে তার পরের স্ক্রিন থেকে জেনে নেওয়ার সুযোগও রয়েছে। আবার অনুদানের অর্থ ব্যয়ের তথ্য সম্পর্কে জানতে আগ্রহী হলে শেষ স্ক্রিনে প্রদত্ত ইমেইলে যোগাযোগ করতে পারছেন আগ্রহী দাতারা।

বিকাশ অ্যাপের পাশাপাশি গ্রাহক চাইলে httpswww.bkash.combndonation ওয়েবসাইট থেকেও পেমেন্ট গেটওয়ের মাধ্যমে অনুদান বিকাশ করতে পারেন এবং এই সেবার বিস্তারিত জানতে পারেন।

বিকাশের এই অনুদান প্ল্যাটফর্ম গ্রহীতা-দাতার দূরত্ব ঘুচিয়ে দিয়েছে। দেশের যেকোন প্রান্ত থেকে যেকোনো সময় কয়েকটি ক্লিকেই বিকাশের সঙ্গে যুক্ত দাতব্য প্রতিষ্ঠানগুলোর মাধ্যমে যাকাত থেকে শুরু করে ছিন্নমূল, দিনমজুর ও অতিদরিদ্র পরিবারের জন্য খাদ্য, করোনা প্রতিরোধে সহায়তা, শিক্ষা ও চিকিৎসা সহায়তা, সমাজসেবামূলক কাজ, স্বেচ্ছা অনুদান ইত্যাদি সহায়তা খুব সহজেই পৌঁছে দিতে পারছেন সার্মথ্যবানরা।  

বাংলাদেশ সময়: ১৬৪০ ঘণ্টা, জুলাই ১৫,২০২১
এসই/এসআইএস 
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa