ঢাকা, বুধবার, ১১ কার্তিক ১৪২৮, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

অর্থনীতি-ব্যবসা

করোনায় মৃত কর্মকর্তার পরিবারকে আর্থিক অনুদানে সাউথইস্ট ব্যাংকের দৃষ্টান্ত

বিজনেস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫০৩ ঘণ্টা, জুলাই ১৩, ২০২১
করোনায় মৃত কর্মকর্তার পরিবারকে আর্থিক অনুদানে সাউথইস্ট ব্যাংকের দৃষ্টান্ত

ঢাকা: করোনায় ব্যাংক কর্মকর্তার মৃত্যুর তিন দিনের মধ্যে তার পরিবারকে আর্থিক অনুদানসহ সব পাওনা বুঝিয়ে দিয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে সাউথইস্ট ব্যাংক।

সোমবার (১২ জুলাই) সকালে এক অনুষ্ঠানে আর্থিক অনুদানের চেক তুলে দেন ব্যাংকের চেয়ারম্যান আলমগীর কবির।

এ সময় ভবিষ্যতে ওই পরিবারের সব প্রয়োজনে পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন তিনি।

এছাড়া করোনায় আক্রান্ত ব্যাংকের পাঁচ শতাধিক কর্মকর্তাকে দ্রুত আর্থিক অনুদান দেওয়া হয়েছে বলেও অনুষ্ঠানে জানানো হয়।

গত ৯ জুলাই করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যান ব্যাংকটির কারওরান বাজার শাখার সিনিয়র এক্সিকিউটিভ অফিসার কাজী মোহাম্মদ মহিন উদ্দিন।
১২ জুলাই তার প্রাপ্য সব আর্থিক সুবিধাসহ করোনায় মৃত ব্যাংক কর্মকর্তার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনা অনুযায়ী আর্থিক অনুদানের চেক তার স্ত্রীর কাছে হস্তান্তর করা হয়।

অনুষ্ঠানে ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান আলমগীর কবির বলেন, কাজী মোহাম্মদ মহিন উদ্দিনের মতো অসংখ্য নিবেদিতপ্রাণ কর্মকর্তার ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় আজ সাউথইস্ট ব্যাংক দেশের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় ব্যাংক হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে। করোনা মহামারি শুরু হওয়ার পর ব্যাংকের সহকর্মীরা সর্বোচ্চ সুরক্ষা নিশ্চিতের মাধ্যমে নিরবচ্ছিন্ন গ্রাহক সেবা দিয়ে আসছেন। এই সময়ে আমাদের যেসব কর্মকর্তা-কর্মচারী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন তাদের সুস্থতা নিশ্চিত করতে ব্যাংকের তরফ থেকে সবধরনের সহযোগিতা করা হয়েছে। যেসব কর্মকর্তা-কর্মচারী কিংবা তাদের পরিবারের সদস্যরা যখনই জটিল কোনো রোগে আক্রান্ত হয়েছেন তখন সাউথইস্ট ব্যাংক তাদের সার্বিক সহযোগিতা করেছে। ব্যাংকের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও তাদের পরিবারের সুচিকিৎসার জন্য ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেটে বিশেষায়িত ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার স্থাপনের কাজ চলছে বলে জানান তিনি।

তিনি বলেন, শুধু মুনাফা করা কিংবা শেয়ারহোল্ডারদের মুনাফা দেওয়া ব্যাংকের মুখ্য কাজ নয়। যাদের কর্মপ্রচেষ্টায় এই ব্যাংক এত দূর এগিয়েছে তাদের প্রতি দায়িত্ব পালন করাকে আমরা প্রাধান্য দেই। পাশাপাশি দেশের মানুষের জন্যও কাজ করতে আমরা বদ্ধপরিকর। করোনা মহামারির মধ্যেও ২০২০ সালে আমরা ২৬ কোটি টাকা সিএসআর বাবদ ব্যয় করেছি। ২০২১ সালে আরও বেশি ব্যয় করছি আমরা। আগামী বছরগুলোতেও সিএসআর ব্যয় আরও বাড়ানোর ঘোষণা দেন চেয়ারম্যান আলমগীর কবির। পাশাপাশি ব্যাংকটিকে সামনে এগিয়ে নিতে সম্মিলিতভাবে কাজ করায় পরিচালনা পর্ষদের সব সদস্য ও ব্যাংকের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি।  

চেক হস্তান্তর অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ব্যাংকটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম কামাল হোসেনসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

বাংলাদেশ সময়: ১৫০৩ ঘণ্টা, জুলাই ১৩, ২০২১
আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa