ঢাকা, সোমবার, ৯ কার্তিক ১৪২৮, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

অর্থনীতি-ব্যবসা

৩ দিনে টিসিবির ৭৬৪ টন চিনি-৪৭৫ টন ডাল-১২ লাখ লিটার তেল বিক্রি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১৫৮ ঘণ্টা, জুলাই ৮, ২০২১
৩ দিনে টিসিবির ৭৬৪ টন চিনি-৪৭৫ টন ডাল-১২ লাখ লিটার তেল বিক্রি ...

ঢাকা: করোনা পরিস্থিতিতে চলমান কঠোর লকডাউনে ও আসন্ন কোরবানির ঈদ সামনে রেখে দেশের নিম্ন ও নিম্ন মধ্যবিত্তের সুবিধার জন্য সাশ্রয়ী মূল্যে পণ্য বিক্রি শুরু করেছে ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি)। গত তিন দিনে ৭৬৪ মেট্রিকটন চিনি, ৪৭৫ মেট্রিক টন মসুর ডাল এবং ১১ লাখ ৮৩ হাজার ৩৭৮ লিটার সোয়াবিন তেল বিক্রয় করেছে টিসিবি।

বুধবার (০৭ জুলাই) বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, কোভিড-১৯ পরিস্তিতিতে সরকার ঘোষিত কঠোর লকডাউন চলা কালে এবং পবিত্র ঈদ উল আযহা উপলক্ষে জরুরি সেবা হিসেবে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন ট্রেডিং করপোরেশন অফ বাংলাদেশ (টিসিবি) ভর্তুকি মূল্যে চিনি, মসুর ডাল এবং সয়াবিন তেল বিক্রয় শুরু করেছে। গত ৫ জুলাই শুরু হয়ে ২৯ জুলাই, ২০২১ তারিখ পর্যন্ত এ বিক্রয় কার্যক্রম চালু থাকবে। গত তিন দিনে (৫,৬,৭ জুলাই) ৭৬৪ মেট্রিকটন চিনি, ৪৭৫ মেট্রিক টন মসুর ডাল এবং ১১ লাখ ৮৩ হাজার ৩৭৮ লিটার সোয়াবিন তেল ভর্তুকি মূল্যে বিক্রয় করা হয়েছে।
পবিত্র ঈদ উল আযহার ছুটি ছাড়া প্রতিদিন এ বিক্রয় কার্যক্রম চলবে। ঢাকা মহানগরিরসহ দেশে সকল জেলা ও উপজেলার জনবহুল ও গুরুত্বপূর্ণ স্থানে টিসিবি’র ডিলারদের মাধ্যমে ভ্রাম্যমাণ ট্রাকে চিনি ৫৫ টাকা দরে ভোক্তা প্রতি ২-৪ কেজি, মসুর ডাল ৫৫ টাকা দরে ২ কেজি এবং বোতলজাত সয়াবিন তেল ১০০ টাকা দরে ২-৫ লিটার ভর্তুকি মূল্যে ভোক্তা সাধারণের কাছে বিক্রয় করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, ৪৫০টি ভ্রাম্যমাণ ট্রাকের মাধ্যমে প্রতিদিন প্রতি ট্রাকে ৫০০-৮০০ কেজি চিনি, ৩০০-৬০০ কেজি মসুর ডাল এবং ৮০০-১২০০ লিটার সয়াবিন তেল বরাদ্দ রাখা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ০১৫৮ ঘণ্টা, জুলাই ০৮, ২০২১
জিসিজি/আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa