ঢাকা, রবিবার, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ০৬ ডিসেম্বর ২০২০, ১৯ রবিউস সানি ১৪৪২

অর্থনীতি-ব্যবসা

অর্থনৈতিক কূটনীতি জোরদারে গুরুত্বারোপ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৩২ ঘণ্টা, অক্টোবর ২১, ২০২০
অর্থনৈতিক কূটনীতি জোরদারে গুরুত্বারোপ সংসদ ভবন

ঢাকা: করোনা ভাইরাসযুক্ত নতুন পরিবেশে নতুন প্রেক্ষাপটে এ পরিবেশের সঙ্গে সমন্বয় করে একটি স্বাভাবিক জীবনযাত্রা নির্বাহ করতে হবে। এ জন্য নতুন সম্ভাবনাকে কাজে লাগিয়ে দেশের অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে হবে।

তাই বিশ্বের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে অর্থনৈতিক কূটনীতি জোরদারের জন্য বাংলাদেশে তৈরি পণ্য রপ্তানির ওপর গুরুত্বারোপ করছেন সংশ্লিষ্টরা। এজন্য আবার বিদেশে বাংলাদেশের মিশনগুলোকে সে দেশের চাহিদা নিরূপণ করে জানানো এবং সে আলোকে রূপরেখা প্রণয়ন করে একটি পরিকল্পনা গ্রহণের মাধ্যমে তা বাস্তবায়নের ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়েছে।

বুধবার (২১ অক্টোবর) জাতীয় সংসদ ভবনে একাদশ জাতীয় সংসদের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির ১৬তম বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি মুহাম্মদ ফারুক খান।

বৈঠকে কমিটির সদস্য ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম, নূরুল ইসলাম নাহিদ, গোলাম ফারুক খন্দকার প্রিন্স, মো. আব্দুল মজিদ খান এবং মো. হাবিবে মিল্লাত উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে কানাডা ও ইন্দোনেশিয়ার বাংলাদেশি মিশনে নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূতদ্বয় সেদেশে তাদের করণীয় বিষয়ে রূপরেখা উপস্থাপন করেন। এসময় কমিটির পক্ষ থেকে ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রদূত এয়ার ভাইস মার্শাল মোস্তাফিজুর রহমানকে রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের পক্ষে  ইন্দোনেশিয়ার সমর্থন আদায়ে কাজ করার সুপারিশ করা হয়।

বৈঠকে প্রবাসী বাংলাদেশিদের করোনা পূর্ববর্তী সময়ে দেশে এসে আটকে পড়ার কারণে ফেরত যেতে ভিসা জটিলতা নিয়ে আলোচনা করা হয়। এসময় জানানো হয়, চলমান মহামারীর কারণে যেসব অভিবাসী তাদের স্ব স্ব কর্মস্থলে ফেরত যেতে পারেননি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তাদের স্বাগতিক দেশগুলোর সঙ্গে ফলপ্রসূ কূটনৈতিক যোগাযোগের মাধ্যমে মেয়াদোত্তীর্ণ ভিসা, ইকামা ইত্যাদির মেয়াদ বাড়িয়ে বিশেষ ফ্লাইটে প্রত্যাবর্তনের ব্যবস্থা করে দেবে। এরইমধ্যে ইতালি, যুক্তরাজ্য, স্পেন, পর্তুগাল, ফ্রান্স, গ্রিস, সৌদি আরব ও ওমানে বিশেষ ফ্লাইটে দুই হাজার ৫৬০ জন আটকে পড়া প্রবাসী বাংলাদেশিদের প্রত্যাবাসন করা হয়েছে।

করোনার কারণে কর্মহীন প্রবাসীদের নতুন কর্মসংস্থান তৈরি, আটকে পড়া বাংলাদেশিদের দেশে ফিরিয়ে আনা, দেশে আটকে পড়া প্রবাসীদের স্ব স্ব কর্মস্থলে পাঠানো এবং বিশেষ প্লেনে চলাচলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। এছাড়া বিদেশে বাংলাদেশি মিশনগুলোতে একাধিক মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা দায়িত্ব পালন করলেও ‘এক দেশ এক মিশন’ সংস্কৃতির ভিত্তিতে সম্মিলিত প্রয়াস অব্যাহত থাকায় কোভিড মহামারির কারণে সৃষ্ট চ্যালেঞ্জগুলো সাফল্যের সঙ্গে মোকাবিলা করা সম্ভব হচ্ছে।

বৈঠকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মাসুদ বিন মোমেনসহ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৩০ ঘণ্টা, অক্টোবর ২১, ২০২০
এসই/টিএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa