ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২

অর্থনীতি-ব্যবসা

বরিশাল বিভাগীয় প্রাণিসম্পদ দপ্তর: ৫২২ পদের ২২১টিই শূন্য

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০৫২ ঘণ্টা, অক্টোবর ২১, ২০২০
বরিশাল বিভাগীয় প্রাণিসম্পদ দপ্তর: ৫২২ পদের ২২১টিই শূন্য

বরিশাল: বরিশাল বিভাগীয় প্রাণিসম্পদ দপ্তরসহ ৬ জেলা ও ৪২ উপজেলায় বিভিন্ন পদে কর্মকর্তা ও কর্মচারীর সংকট তীব্র আকার ধারণ করেছে। এসব স্থানে ৫২২টি পদের বিপরীতে ২২১টি পদই শূন্য রয়েছে।

ফলে কর্মরত ৩০১ জনের মধ্যে বেশিরভাগকেই হিমশিম খেতে হচ্ছে তাদের কর্ম সামলাতে।

বরিশাল বিভাগীয় প্রাণিসম্পদ দপ্তর কার্যালয় থেকে জানা গেছে, বিভাগের ৪২ উপজেলায় ৪২ জন উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিসার থাকার কথা থাকলেও কর্মরত আছে মাত্র ১৭ জন, ফলে শূন্য রয়েছে ২৫টি পদ।

এছাড়া ৪২ জন ভেটেরিনারি সার্জনের স্থলে রয়েছে মাত্র ২৩ জন, আর শূন্য রয়েছে ১৯টি পদ। আর ভেটেরিনারি ভিল্ড অ্যাসিস্ট্যান্ট (ভিএফএ) পদে ১১৮ পদের অনুকূলে কর্মরত আছেন ৯৩ জন এবং এখানেও শূন্য রয়েছে ২৫টি পদ।

এদিকে বিভাগের ৬ জেলায় ৬ জন ক্যাশিয়ার কর্মরত থাকার কথা থাকলেও রয়েছে ২ জন। এছাড়া বিভাগের ৪২ উপজেলায় ৪২ জন উপসহকারী উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা সম্প্রসারণ (ইউএলএ) কর্মরত থাকার কথা থাকলেও আছে মাত্র ৪ জন এবং ৪২ জন উপসহকারী উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা প্রাণিস্বাস্থ্য (মিশ্রকী) কর্মরত থাকার কথা থাকলেও আছে মাত্র ২২ জন।  

অপরদিকে বিভাগে উপসহকারী উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা কৃত্রিম প্রজনন- এফ এ (এ আই) পদে ৪৪ জন কর্মরত থাকার কথা থাকলেও ৩০ জন কর্মরত আছে। ফলে ক্যাশিয়ার পদে ৪ জন, ইউ এল এ ৩৮ জন, মিশ্রকী ২০ জন এবং এফ এ (এ আই) পদে ২৯ জন এর পদই খালি রয়েছে বর্তমানে।

আরও জানা গেছে, বিভাগে অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিকের  ৫৫টি পদে কর্মরত আছে মাত্র ২৬ জন। ১৩টি ড্রাইভারের পদে কর্মরত আছে ১০ জন। ড্রেসার এর ৪২টি পদে কর্মরত আছে ২৭ জন। অফিস সহায়কের ৫৫টি পদে কর্মরত আছে ৩০ জন এবং নৈশপ্রহরী এর ৭টি পদে কর্মরত আছে মাত্র ৩ জন। ফলে অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক পদে ২৯ জন, ড্রাইভার পদে ৩ জন, ড্রেসার পদে ১৫, অফিস সহায়ক পদে ২৫ এবং নৈশপ্রহরী পদে ৪ জনের পদই খালি রয়েছে বর্তমানে।

ভুক্তভোগী একাধিক খামার মালিক জানান, লোকবল সংকট থাকায় আমারা আমাদের খামারের গরু ও ছাগল দিয়ে প্রায়ই বিপদে পড়ি। অনেক সময় সঠিকসময়ে, সঠিকভাবে গরু ও ছাগলগুলো চিকিৎসা করানোও সম্ভব হয় না।  

জনবল সংকটের কথা স্বীকার করে বরিশাল বিভাগীয় প্রাণিসম্পদ দপ্তরের উপ-পরিচালক ডা. কানাই লাল স্বর্ণকার বলেন, আশা করি অতি দ্রুত এ সমস্যার সমাধান হবে। তবে বর্তমানে আমাদের বিভিন্ন প্রজেক্ট চলমান রয়েছে, সেসব প্রজেক্টে কর্মরত কর্মীদের মাধ্যমে আমারা আপাতত সেবা দিচ্ছি। ফলে লোকবল সংকট থাকলেও আমাদের বড় কোনো সমস্যার সম্মুখীন আপাতত হতে হচ্ছে না।

বাংলাদেশ সময়: ০৯৫৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ২১, ২০২০
এমএস/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa