ঢাকা, রবিবার, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৯ আগস্ট ২০২০, ১৮ জিলহজ ১৪৪১

অর্থনীতি-ব্যবসা

চামড়ার ন্যায্যমূল্য না পেলে প্রয়োজনে রপ্তানি করা হবে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৪৮ ঘণ্টা, জুলাই ২৬, ২০২০
চামড়ার ন্যায্যমূল্য না পেলে প্রয়োজনে রপ্তানি করা হবে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি

ঢাকা: কোরবানির পশুর চামড়া ন্যায্যমূল্য না পেলে কাঁচা চামড়া ও ওয়েট-ব্লু লেদার বা আংশিক প্রক্রিয়াজাত চামড়া রপ্তানির অনুমোদন দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।  

তিনি বলেন, কাঁচা চামড়া রপ্তানির ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীকেও জানিয়ে রেখেছি।

যদি ন্যায্যমূল্য না পাওয়া যায় তাহলে রপ্তানি করবো।

রোববার (২৬ জুলাই) আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে কোরবানির পশুর কাঁচা চামড়ার মূল্য নির্ধারণ, কাঁচা চামড়া সংগ্রহ, প্রক্রিয়াজাত করণ, মিডিয়ায় প্রচার এবং অন্য প্রাসঙ্গিক বিষয় পর্যালোচনা সংক্রান্ত জুম প্ল্যাটফর্ম সভায় সভাপতিত্ব করে তিনি একথা বলেন।  

এবছর লবণযুক্ত গরুর কাঁচা চামড়ার মূল্য ঢাকায় প্রতি বর্গফুট ৩৫-৪০ টাকা, ঢাকার বাইরে ২৮-৩২ টাকা, খাসি সারাদেশে ১৩-১৫ টাকা এবং বকরির সারাদেশে ১০-১২ টাকা মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে। ট্যানারির মালিকরা এই মূল্যে কাঁচা চামড়া কেনার ঘোষণা দিয়েছেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, চামড়ার নির্ধারিত মূল্য নিশ্চিতকরণ, যথাযথ প্রক্রিয়ায় চামড়া সংগ্রহ ও যথাসময়ে লবণ লাগানো নিশ্চিত করতে হবে। ঈদের দিন থেকে দেশব্যাপী কঠোরভাবে বিষয়গুলো মনিটরিং করবে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় গঠিত মনিটরিং টিম। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সবাইকে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে হবে। প্রয়োজনে এবার কাঁচা চামড়া ও ওয়েস্ট ব্লু চামড়া রপ্তানি করা হবে।

‘এবছর চামড়া যাতে নষ্ট না হয় এবং নির্ধারিত মূল্য নিশ্চিত করতে সরকার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়েছে এবং কঠোরভাবে মনিটরিংয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে। চামড়া সংগ্রহের ৫-৬ ঘণ্টার মধ্যে প্রয়োজনীয় লবণ মেশাতে হবে, দেশে পর্যাপ্ত লবণ রয়েছে, সরবরাহের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। চামড়া সংগ্রহ, সংরক্ষণ, প্রক্রিয়াজাতকরণ, নির্ধারিত মূল্যে ক্রয়-বিক্রয়সহ সার্বিক ব্যবস্থাপনা তদারকির জন্য সব বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা প্রশাসককে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। '

মন্ত্রী বলেন, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর জেলা পর্যায়ে মনিটরিং করবে। জনসচেতনতা সৃষ্টির জন্য বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেল, বেতার, কমিউনিটি রেডিওতে প্রচারণা চালানোর ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এছাড়া, ফেসবুক-ইউটিউবে ১০ লাখ মানুষের কাছে ভিডিওবার্তা পাঠানো ও পর্যাপ্ত হ্যান্ডবিল বিতরণের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।
 
টিপু মুনশি বলেন, দেশের মোট চাহিদার সিংহ ভাগ কাঁচা চামড়া সংগ্রহ করা হয় ঈদুল আজহার সময়ে এবং প্রাপ্ত কাঁচা চামড়ার সঙ্গে একদিকে যেমন দরিদ্র জনগোষ্ঠী বিশেষ করে এতিমখানা, মসজিদ ও মাদ্রাসা জড়িত, তেমনি এ কাঁচা চামড়া রপ্তানিমুখী শিল্পের কাঁচামাল। তাই এর উপযুক্ত মূল্য নিশ্চিত করা হয়।

বাণিজ্য সচিব ড. মো. জাফর উদ্দীনের সঞ্চালনায় জুম প্ল্যাটফর্ম সভায় বক্তব্য রাখেন, তথ্য সচিব কামরুন নাহার, এফবিসিসিআই সহ-সভাপতি মো. সিদ্দিকুর রহমান, বাংলাদেশ ট্যানার্স অ্যাসোসিয়েমনের চেয়ারম্যান শাহীন আহমেদ, বাংলাদেশ ফিনিশড লেদার, লেদারগুডস অ্যান্ড ফুটওয়্যার এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মহিউদ্দিন আহমেদ মাহিন, লেদার গুডস অ্যান্ড ফুটওয়্যার ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট মো. সাইফুল ইসলাম এবং বাংলাদেশ হাইড অ্যান্ড মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আফতাব খান।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৪৫ ঘণ্টা, জুলাই ২৬, ২০২০
জিসিজি/এএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa