ঢাকা, শনিবার, ১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮, ১৫ মে ২০২১, ০২ শাওয়াল ১৪৪২

অর্থনীতি-ব্যবসা

রাঙামাটিতে মার্কেট খুললেও ক্রেতা নেই

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯১২ ঘণ্টা, মে ১৩, ২০২০
রাঙামাটিতে মার্কেট খুললেও ক্রেতা নেই

রাঙামাটি: করোনা ভাইরাসের কারণে দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর রাঙামাটির বিভিন্ন মার্কেট ও শপিংমলগুলো সীমিত আকারে ঝুঁকি নিয়ে খোলা হয়েছে। প্রথমদিনে ক্রেতা ছিলো কম এবং বিকিকিনি তেমন ছিলো না। করোনার আতঙ্কই এর কারণ বলে জানান বিক্রেতারা।

বুধবার (১৩ মে) সরেজমিনে দেখা গেছে, জেলা শহরের শপিংমলগুলো খুলতে শুরু করলেও ক্রেতাদের উপস্থিতি নেই বললেই চলে। তাই  বিকিকিনিও তেমন নেই।

অনেকে দোকান খুলে শোরুমগুলোর মধ্যে জমানো ময়লা পরিষ্কার ও সাজিয়ে তোলার চেষ্টা করছেন। অনেকে আবার বেকার সময় পার করছেন।

বিএম শপিং কমপ্লেক্সের ব্যবসায়ী আব্দুল কাদের বলেন,  ‘অনেকদিন মার্কেট বন্ধ ছিলো। তাই প্রথমদিন খুলে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন ও সাজানোর চেষ্টা করছি। তবে ক্রেতা নেই, অলস বসে আছি। একদিকে করোনার আতঙ্ক, অন্যদিকে যান চলাচল বন্ধ। সব মিলে এ বছর ক্রেতা পাওয়া কষ্টকর হবে, ব্যবসাও কাটবে মন্দায়। ’

ক্রেতা মহুয়া ফারজানা বলেন, ‘কয়েকটি মার্কেট ঘুরেছি। নিজের পরিবারের জন্য জামা-কাপড় দেখলাম। পছন্দ হয়নি এখনো। হলে কিনে নিয়ে যাবো। ’

বৃহত্তর বনরূপা ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সভাপতি মো. আবু সাইয়্যিদ বলেন, দেড় মাসের মতো শপিংমলগুলো বন্ধ ছিলো। ব্যবসায়ীদের  অবস্থা খুব খারাপ হয়ে গেছে। তাই স্বাস্থ্যবিধি মেনে দোকান-পাট খুলে ব্যবসা করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

ব্যবসায়ী সমিতির এই নেতা আরও বলেন, করোনা প্রতিরোধে দোকানদাররা অবশ্যই মাস্ক ও হ্যান্ড গ্লাপস পরবেন, ব্যবহার করবেন হ্যান্ডস্যানিটাইজার। ক্রেতাদেরও অবশ্যই দোকানে প্রবেশের আগে জীবাণুনাশক স্প্রে করবেন।

রাঙামাটির জেলা প্রশাসক (ডিসি) এ কে এম মামুনুর রশীদ বলেন, ব্যবসায়ীরা সরকারের নির্দেশনা মেনে দোকান-পাট খুলবেন।   সকাল দশটায় খুলে বিকেল চারটার মধ্যে বন্ধ করবেন। করোনা প্রতিরোধে ব্যবসায়ীদের জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। তারা সেই নির্দেশনা মেনে ব্যবসা করবেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৯০০ ঘণ্টা, মে ১৩, ২০২০
এনটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa