bangla news

দরিদ্রদের সেবায় খাস পুকুর দখলমুক্ত করা হবে: ভূমিমন্ত্রী

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০২-২৬ ৯:১৬:৫২ পিএম
সভায় ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী, ছবি: বাংলানিউজ

সভায় ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী, ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: দেশের বিভিন্ন এলাকায় স্থানীয় দরিদ্র মানুষের জীবনযাপনের সুবিধার্থে সরকারি খাস পুকুরের পাড় বাঁধাই করে দেওয়ার পরিকল্পনা নেওয়া হচ্ছে জানিয়েছেন ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী।

তিনি বলেছেন, বেদখল হওয়া সরকারি পুকুর দখলমুক্ত করে, তা সংস্কার করা হবে। এছাড়া অবৈধভাবে দখল করে ভরাট করা খাস জলাশয় ও পুকুর উদ্ধারেও জোড় উদ্যোগ নেওয়া হবে।

বুধবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) সচিবালয়ে ভূমি মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে ২০১৯-২০ অর্থবছরের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে (এডিপি) অন্তর্ভুক্ত প্রকল্পগুলোর অগ্রগতি পর্যালোচনা সভায় মন্ত্রী এ কথা বলেন।

ভূমিমন্ত্রী বলেন, পুকুর-জলাশয় দখলমুক্ত করে সমাজের হতদরিদ্র ভূমিহীনদের ব্যবহারের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে। অথবা প্রকৃত মৎস্যজীবীদের বৈধভাবে বরাদ্দ দেওয়া হবে।
 
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকারকে জনবান্ধব সরকার অবহিত করে সাইফুজ্জামান চৌধুরী বলেন, কিছু পুকুর স্থানীয় দরিদ্র মানুষের ব্যবহারের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়ার ব্যবস্থা নেওয়া হবে। যাতে তারা প্রাত্যহিক প্রয়োজনে তা ব্যবহার করতে পারেন।

তিনি বলেন, বেদখল হওয়া জলাশয় ও পুকুর বৈধভাবে ইজারা দেওয়া হলে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে এবং সরকার প্রতি বছর রাজস্ব পাবে। অন্যদিকে বরাদ্দ দেওয়া পুকুরগুলোতে মাছ চাষের উদ্যোগ নেওয়া হলে স্থানীয় পর্যায়ে আমিষের যোগান বৃদ্ধি পাবে।

ভূমিমন্ত্রীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভাটির সঞ্চালনা করেন ভূমি মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মাকছুদুর রহমান পাটওয়ারী।

সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন ভূমি সংস্কার বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. আবদুল মান্নান, ভূমি আপিল বোর্ডের চেয়ারম্যান উম্মুল হাছনা, ভূমি রেকর্ড ও জরিপ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. তসলীমুল ইসলাম, অতিরিক্ত সচিব (উন্নয়ন) মো. আবদুল হকসহ বিভিন্ন প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক এবং ভূমি মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

বাংলাদেশ সময়: ২১০৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২০
জিসিজি/টিএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   ভূমিমন্ত্রী
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-02-26 21:16:52