ঢাকা, বুধবার, ৮ আশ্বিন ১৪২৭, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪ সফর ১৪৪২

অর্থনীতি-ব্যবসা

বাণিজ্যমেলায় ওয়ালটন এসি কিনলেই ছাড়

বিজনেস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২৩০৬ ঘণ্টা, জানুয়ারী ২৫, ২০২০
বাণিজ্যমেলায় ওয়ালটন এসি কিনলেই ছাড় বাণিজ্যমেলায় ওয়ালটন এসি দেখছেন ক্রেতারা।

ঢাকা: ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলায় (ডিআইটিএফ) অত্যাধুনিক প্রযুক্তির বিভিন্ন মডেলের এয়ার কন্ডিশনার (এসি) কিনলেই ১২ শতাংশ মূল্য ছাড় দিচ্ছে বাংলাদেশি মাল্টিন্যাশনাল ব্র্যান্ড ওয়ালটন। মেলায় থার্ড আই, ফ্রস্ট ক্লিন, ই-রিপিলার প্রযুক্তির এসি প্রদর্শন ও বিক্রি করছে ওয়ালটন। সর্বাধুনিক ফিচারসমৃদ্ধ বৈচিত্র্যময় ডিজাইনের এসব এসি ইতোমধ্যে ক্রেতা-দর্শনার্থীদের নজর কাড়ছে।

পাশাপাশি মেলায় ব্যাপক সাড়া ফেলেছে ওয়ালটনের বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী ইনভার্টার, আয়োনাইজার এবং আইওটি বেজড স্মার্ট স্প্লিট এসি।

এদিকে মেলায় এসি ক্রয় বা প্রি-বুকে নানা সুবিধাও দিচ্ছে ওয়ালটন।

যার মধ্যে রয়েছে ১২ শতাংশ পর্যন্ত ক্যাশ ডিসকাউন্ট, নিশ্চিত ক্যাশব্যাক, ১২ বছরের বিদ্যুৎ বিল ফ্রি পাওয়ার সুযোগ, ফ্রি ইন্সটেলশন, ফ্রি হোম ডেলিভারি, এসি কেনার ১০০ দিন পর পর ফ্রি সার্ভিসিংসহ অসংখ্য সুবিধা।

ওয়ালটন এসি বিভাগের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মো. তানভীর রহমান বলেন, সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ও ফিচারের সমন্বয়ে বাংলাদেশের আবহাওয়া উপযোগী এসি তৈরিতে ওয়ালটনের রয়েছে নিজস্ব আরঅ্যান্ডডি (গবেষণা ও উন্নয়ন) টিম। যেখানে কাজ করছেন দেশ-বিদেশের দক্ষ ও অভিজ্ঞ প্রকৌশলীরা। তাদের নিরলস গবেষণায় থার্ড আই, ফ্রস্ট ক্লিন এবং ই-রিপিলার প্রযুক্তির এসি আনছে ওয়ালটন। চলতি বছরের মাঝামাঝি এ প্রযুক্তির এসি বাজারে ছাড়া যাবে বলে তিনি আশাবাদী।

তিনি জানান, থার্ড আই ফিচারসমৃদ্ধ এসির আকর্ষণীয় দিক হলো রুমে প্রবেশ করলে অটোমেটিক এসি চালু হয়ে যাবে। রুমে মানুষের চলাচলের ওপর ভিত্তি করে লুভর মুভমেন্ট করবে। ফলে এসির ঠাণ্ডা বাতাস যেদিকে মানুষ আছে সেদিকে ছড়িয়ে যাবে। ফ্রস্ট ক্লিন এসি ইভাপোরেটরে আইস তৈরির মাধ্যমে ইনডোর ইউনিট-এ বিদ্যমান ধূলিকণা স্বয়ংক্রিয়ভাবে পরিস্কার করবে। ই-রিপিলারসমৃদ্ধ ওয়ালটন এসিতে রয়েছে ইন্টেলিজেন্ট আল্ট্রাসনিক মসকিটো রিপিলার ডিভাইস। যার ফলে রুম হবে মশামুক্ত।  

মেলায় ওয়ালটনের ২৬ নম্বর প্রিমিয়ার প্যাভিলিয়নের ম্যানেজার মো. শফিউল আলম জানান, নতুন বছর ও বাণিজ্যমেলা উপলক্ষে ওয়ালটনের সব মডেলের এসিতে ক্রেতারা পাচ্ছেন ১০ শতাংশ নগদ ছাড়। আবার একসঙ্গে একাধিক এসি কিনলে মিলছে ১২ শতাংশ পর্যন্ত ডিসকাউন্ট। পাশাপাশি দুই হাজার টাকা দিয়ে প্রি-বুকিং দিলে আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত এসি কিনলে ১০ শতাংশ ডিসকাউন্ট পাওয়া যাবে। এদিকে ডিজিটাল ক্যাম্পেইনের সিজন-৫ এর আওতায় মেলায় ওয়ালটন এসি কিনে রেজিস্ট্রেশন করলে ক্রেতারা ১২ বছর পর্যন্ত বিদ্যুৎ বিল ফ্রি পেতে পারেন। রয়েছে নিশ্চিত ক্যাশব্যাক, ফ্রি ইন্সটলেশন ও ফ্রি ডেলিভারিসহ নানা সুবিধা।

ওয়ালটনের এসি এক্সচেঞ্জ সুবিধা মিলছে মেলাতেও। এর আওতায় যেকোনো ব্র্যান্ডের পুরনো এসি বদলে ক্রেতারা ২৫ শতাংশ ছাড়ে ওয়ালটনের নতুন এসি কেনার সুযোগ পাচ্ছেন। আরও আছে মাত্র চার হাজার ৯০০ টাকা ডাউন পেমেন্টে ৩৬ মাসের সহজ কিস্তির সুযোগ, জিরো ইন্টারেস্টে ১২ মাসের ইএমআই (ইক্যুয়াল মান্থলি ইনস্টলমেন্ট) সুবিধা।

ওয়ালটন এসি বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, এবারের মেলায় বৈচিত্র্যময় ডিজাইন ও কালারের ১, ১.৫ ও ২ টনের মোট ৩৩ মডেলের স্প্লিট এসি প্রদর্শন ও বিক্রি করছেন তারা। যার মধ্যে রয়েছে ক্রিস্টালাইন, রিভারাইন ও ভেনচুরি সিরিজের ব্যাপক বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী ইনভার্টার, আয়োনাইজার ও আইওটি বেজড স্মার্ট এসি।  

মেলা উপলক্ষে ১.৫ ও ২ টনের এসিতে ক্রিস্টালাইন সিরিজে নতুন ৬ মডেলের এসি যুক্ত হয়েছে। এসব এসির দাম ৩৬ হাজার ৯০০ টাকা থেকে ৭৭ হাজার ৪০০ টাকার মধ্যে।


এদিকে স্প্লিট এসির পাশাপাশি মেলায় চতুর্থ প্রজন্মের সর্বাধুনিক এয়ার কন্ডিশনিং ব্যবস্থা ভিআরএফ (ভেরিয়্যবল রেফ্রিজারেন্ট ফ্লো) প্রযুক্তির এসি প্রদর্শন ও বিক্রি করছে ওয়ালটন। এ প্রযুক্তির এসি একই সময়ে পুরো ভবনের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ করার ক্ষমতা রাখে। ভিআরএফ প্রযুক্তিতে একটি ভবনের ইনডোর এয়ার কন্ডিশনিং ইউনিটগুলোকে একটি সেন্ট্রাল কন্ট্রোল সিস্টেমের মাধ্যমে পরিচালনা করা হয়। ভিআরএফ এসিতে অন্তর্ভুক্ত রয়েছে কমফোর্ট কুলিং এবং ডুয়াল সেন্সিং সিস্টেম। ফলে, প্রয়োজন অনুযায়ী ঠাণ্ডা ও গরম বাতাস পাওয়া যায়। এটি সুবিধামতো ঘরের যেকোনো স্থানে স্থাপন করা সম্ভব। ছোট স্থাপনার জন্য ৫ থেকে ১৫ টনের মিনি ভিআরএফ এসি বানাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। মাঝারি স্থাপনার জন্য রয়েছে ১৭ থেকে ৩২ টনের সিঙ্গেল মডিউলার ভিআরএফ এসি। আবার বড় পরিসরে শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থার জন্য থাকছে ওয়ালটনের মাল্টি মডিউলার ভিআরএফ এসি।

ওয়ালটন এসির গবেষণা ও উন্নয়ণ (আরঅ্যান্ডডি) বিভাগের প্রধান প্রকৌশলী সন্দীপ বিশ্বাস জানান, তাদের আইওটি-বেজড স্মার্ট এসি মোবাইল ফোনের মাধ্যমে পৃথিবীর যেকোনো প্রান্ত থেকে নিয়ন্ত্রণ করা যায়। ওয়ালটন এসিতে রয়েছে সঠিক বিটিইউর নিশ্চয়তা। এর ইনভার্টার প্রযুক্তির কম্প্রেসর ৬০ শতাংশ পর্যন্ত বিদ্যুৎ সাশ্রয় করে। কম্প্রেসরে ব্যবহৃত হচ্ছে বিশ্বস্বীকৃত সম্পূর্ণ পরিবেশবান্ধব এইচএফসি গ্যাসমুক্ত আর৪১০এ এবং আর৩২ রেফ্রিজারেন্ট। রয়েছে টার্বোমুড ও আয়োনাইজার প্রযুক্তি, যা দ্রুত ঠাণ্ডা করার পাশাপাশি রুমের বাতাসকে ধুলা-ময়লা ও ব্যাকটেরিয়া থেকে মুক্ত করে। কন্ডেন্সারে ব্যবহার করা হচ্ছে মরিচারোধক গোল্ডেন ফিন কালার প্রযুক্তি। যার ফলে ওয়ালটন এসি টেকসই ও দীর্ঘস্থায়ী। ওয়ালটনের প্রতিটি এসি আন্তর্জাতিক মানের টেস্টিং ল্যাব নাসদাত-ইউটিএস থেকে মান নিয়ন্ত্রণ ছাড়ের পর বাজারজাত করা হচ্ছে।

এসিতে ৬ মাসের রিপ্লেসমেন্ট গ্যারান্টি এবং কম্প্রেসরে ১০ বছর পর্যন্ত গ্যারান্টি দিচ্ছে ওয়ালটন। দ্রুত বিক্রয়োত্তর সেবা দিতে সারাদেশে রয়েছে ৭৩টি সার্ভিস সেন্টার।  

বাংলাদেশ সময়: ১৮০৬ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৫, ২০২০
আরআইএস/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa