bangla news

তাইপে সামিট থেকে ২০ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগের সম্ভাবনা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১১-২৮ ৯:৫৫:২৩ পিএম
এফবিসিসিআই ও সিএসিসিআইয়ের যৌথ সংবাদ সম্মেলন। ছবি: বাংলানিউজ

এফবিসিসিআই ও সিএসিসিআইয়ের যৌথ সংবাদ সম্মেলন। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: ২০২০ সালে অনুষ্ঠিতব্য তাইপে ইনভেস্টমেন্ট সামিট থেকে বাংলাদেশে ২০ দশমিক ৮ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগের সম্ভাবনা রয়েছে। 

বৃহস্পতিবার (২৮ নভেম্বর) বিকেলে স্থানীয় একটি হোটেলে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই ও কনফেডারেশন অব এশিয়া প্যাসিফিক চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (সিএসিসিআই) যৌথ সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান এফবিসিসিআই সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম। এসময় সিএসিসিআই সভাপতি সামির মোদী উপস্থিত ছিলেন।

এফবিসিসিআই সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম বলেন, প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে সিএসিসিআইয়ের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর মাধ্যমে বাংলাদেশের ব্যবসায়ীদের মধ্যে যে নেটওয়ার্ক তৈরি হয়েছে তাতে খুব শিগগিরই একটি বড় বিনিয়োগ আসতে চলেছে। অবকাঠামো, পর্যটন, অটোমোবাইলসহ দেশের বিভিন্ন খাতে এ বিনিয়োগ হবে। সিএসিসিআইয়ের অর্থনৈতিক জোনের বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। সেখানে সিএসিসিআই সদস্য দেশগুলো বিনিয়োগ করতে পারবে। ২০২০ সালে অনুষ্ঠিত হবে ‘তাইপে ইনভেস্টমেন্ট সামিট’। সেখানে ২০ দশমিক ৮ বিলিয়ন ডলারের একটি বিনিয়োগ পুল আমরা আইডেন্টিটিফাই করেছি। সেখানে ইনফাস্ট্রাকচার, হসপিটালিটি, মোটরবাইকের বাই পার্টস লিংকেজসহ অন্য ইন্ড্রাস্ট্রিতে বিনিয়োগ হবে। এই বিনিয়োগ বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলোতে হবে। এফবিসিসিআই ও সিএসিসিআই যৌথভাবে তাইপে ইনভেস্টমেন্ট সামিট ২০২০ আয়োজন করবে।

এর আগে, এফবিসিসিআই ও সিএসিসিআইয়ের যৌথ আয়োজনে ৩৩তম সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। দু’দিনের সম্মেলন থেকে প্রাপ্তি জানাতেই বৃহস্পতিবারের এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। বাংলাদেশসহ মোট ২৮টি দেশ এ সম্মেলনে অংশ নেয়। 

সম্মেলনে দু’টি চুক্তি সই হয়েছে জানিয়ে শেখ ফাহিম বলেন, এতে মস্কো চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সঙ্গে একটি এমওইউ সই হয়েছে। বাংলাদেশের সব চেম্বারসহ এফবিসিসিআইয়ের সদস্য সংস্থাগুলো ই-চেম্বারের গ্লোবাল প্ল্যাটফর্মে সংযুক্ত হবে। এতে আমাদের রিমোট এলাকার চেম্বারের সদস্যরা তাদের পণ্য বিটুবি প্ল্যাটফর্ম থেকে গ্লোব্যাল প্ল্যাটফর্মে অ্যাকসেস পাবে। যেমন, ফার্নিচার অ্যাসোসিয়েশনের মেম্বাররাও এই নেটওয়ার্কে যাবে। বিটুবি প্ল্যাটফর্মে তাদের পণ্য ডিসপ্লে করতে পারবে, এতে তাদের মার্কেট শেয়ার আরও বাড়বে কোনো বিনিয়োগ ছাড়াই।

তিনি বলেন, আরেকটি চুক্তি হয়েছে ইন্টারন্যাশনাল কলেজ অব অ্যাডভান্স ইলেডুকেশন অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে। তারা আমাদের এফবিসিসিআইয়ের সঙ্গে ট্রেনিং মডিউল শেয়ার করবে। এর ফলে আমাদের উদ্যোক্তাদের কর্মসক্ষমতা বাড়বে।

সিএসিসিআই সভাপতি সামির মোদী বলেন, বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন খুবই আশাব্যঞ্জক। বিদেশি বিনিয়োগের জন্য বাংলাদেশ এখন পুরোপুরি প্রস্তুত। এখানে আমরা আগের চেয়ে অধিক বিনিয়োগ করতে আগ্রহী। এমনকি মোদী গ্রুপও খুব শিগগিরই বাংলাদেশে তাদের কার্যক্রম শুরু করবে।

এর আগে গত মঙ্গলবার (২৬ নভেম্বর) সকালে রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে এফবিসিসিআই ও সিএসিসিআই আয়োজিত সম্মেলনের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান।

বাংলাদেশ সময়: ২১৫৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৮, ২০১৯
এসএমএকে/একে

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-11-28 21:55:23