bangla news

বাংলালিংক আইটি ইনকিউবেটর স্টার্টআপের আবেদন গ্রহণ শুরু

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১১-১৩ ৭:২৪:৩৩ পিএম
বাংলালিংক আইটি ইনকিউবেটর স্টার্টআপ।

বাংলালিংক আইটি ইনকিউবেটর স্টার্টআপ।

ঢাকা: দেশের ডিজিটাল উদ্যোগকে পৃষ্ঠপোষকতা দিতে বাংলালিংক তাদের ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম আইটি ইনকিউবেটরের তৃতীয় ব্যাচের স্টার্টআপের বাছাই প্রক্রিয়া শুরু করেছে।

অনলাইনে আবেদন জমা দেওয়ার শেষ সময় ২৮ নভেম্বর। আবেদন এই লিঙ্কে (https://incubator.banglalink.net/) জমা দেওয়া যাবে। 

বাংলালিংক এবং আইসিটি বিভাগের অধীনস্থ বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ যৌথভাবে ২০১৬ সালে এই কার্যক্রম শুরু করে।

অপারেটরটি সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, বাংলালিংক নির্বাচিত স্টার্টআপগুলোকে অবকাঠামো, উপকরণ এবং নির্দেশনাগত সহায়তা দিয়ে থাকে। প্রাথমিকভাবে স্টার্টআপগুলোকে তাদের অভিনব পরিকল্পনা, ব্যবসায়িক সম্ভাবনা এবং দলগত শক্তিমত্তার ভিত্তিতে নির্বাচন করা হয়। নির্বাচিত স্টার্টআপগুলো তাদের সব কার্যক্রম পরিচালনা করার জন্য কারওয়ান বাজারে অবস্থিত জনতা টাওয়ারে অফিস স্পেসের সুবিধা, অনলাইনে শিক্ষা সহায়তামূলকা কার্যক্রমে বিনামূল্যে অংশগ্রহণের সুযোগের পাশাপাশি অন্যান্য উপকরণগত সুবিধাও ভোগ করবে। প্রতিশ্রুতিশীল স্টার্টআপগুলোর জন্য বাংলালিংকের সঙ্গে অংশীদারিত্ব উপভোগ করার মতো সুযোগও থাকবে।

আইটি ইনকিউবেটর বাংলালিংকের স্বত্বাধিকারী প্রতিষ্ঠান ভিওনের ফ্ল্যাগশিপ করপোরেট রেসপনসিবিলিটি প্রোগ্রাম ‘মেক ইওর মার্ক’র অন্তর্ভুক্ত। বিশ্বের যেসব স্থান ভিওনের কার্যক্রমের আওতাধীন সেসব স্থানের আইটি খাতের উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে প্রতিষ্ঠানটি প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।

প্রোগ্রাম নিয়ে বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক অথোরিটির ম্যানেজিং ডিরেক্টর হোসনে আরা বেগম বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন পূরণে হাইটেক পার্ক অথোরিটি কয়েক বছর ধরে বেশকিছু প্রকল্প পরিচালনা করে আসছে। জনতা টাওয়ার সফটওয়্যার টেকনোলোজি পার্ক একটি অন্যতম প্রকল্প। যা দেশের স্টার্টআপকে সহযোগিতা করার পাশাপাশি ডিজিটাল অবকাঠামোগত উন্নয়নের লক্ষ্যে পরিচালনা করা হচ্ছে। তরুণ প্রযুক্তি উদ্যোক্তাদের সহযোগিতার লক্ষ্যে দেশের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় টেলিযোগাযোগ সেবা সংস্থা বাংলালিংককে আমরা স্বাগত জানাই। আমি বিশ্বাস করি, প্রোগ্রামটির মাধ্যমে স্টার্টআপগুলো অনেক উপকৃত হবে।

বাংলালিংকের চিফ করপোরেট অ্যান্ড রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স অফিসার তাইমুর রহমান বলেন, আমরা উদ্যমী প্রযুক্তিবিদ এবং তরুণ উদ্যোক্তাদের জন্য স্টার্টআপ স্কাউটিং প্রোগ্রাম আইটি ইনকিউবেটরের রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া শুরু করতে পেরে সত্যিই আনন্দিত। আমরা চাই উদ্ভাবনী শক্তির সঙ্গে উদ্যোক্তা হবার প্রচণ্ড ইচ্ছা আছে এমন তরুণরাই এই প্রোগ্রামে অংশগ্রহণ করুক। ভবিষ্যতে তাদের সার্বিক উন্নতি নিশ্চিত করতে আমরা সব ধরনের প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদান করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

বাংলাদেশ সময়: ১৯২৪ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৩, ২০১৯
এমআইএইচ/এসএ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-11-13 19:24:33