ঢাকা, রবিবার, ৫ আশ্বিন ১৪২৭, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০১ সফর ১৪৪২

কৃষি

লটারির মাধ্যমে কৃষক থেকে ধান কিনবে সরকার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৫৮ ঘণ্টা, নভেম্বর ৭, ২০১৯
লটারির মাধ্যমে কৃষক থেকে ধান কিনবে সরকার সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছেন কৃষিমন্ত্রী। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: চলতি বছর আমন ধানের বাম্পার ফলন হবে। ফলে ধানের দাম আবারও কমে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে বলে জানিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী ড. আবদুর রাজ্জাক। তিনি বলেন, আমাদের কাছে যে তথ্য রয়েছে, তাতে এবার ধানের ভালো ফলন হবে। তাই এবারও ধানের দাম কমে যেতে পারে। এ থেকে সুরক্ষা দিতে প্রান্তিক কৃষকের কাছ থেকে লটারি করে ধান কিনবে সরকার। 
 

বৃহস্পতিবার (৭ নভেম্বর) সচিবালয়ে কৃষি মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে সার বিষয়ক জাতীয় সমন্বয় ও পরামর্শক কমিটির দ্বিতীয় সভা শেষে তিনি এসব কথা বলেন।  

আবদুর রাজ্জাক বলেন, জাতীয় পর্যায়ে আমরা একটি প্রস্তাব করেছি, যা জাতীয় নীতি-নির্ধারণী পর্যায়ে সিদ্ধান্ত হবে।

এবছর আমনের ভালো ও বাম্পার ফলন হবে। ফলে ধানের দাম আরও কমে যাওয়ার আশঙ্কা দেখা যাচ্ছে। উৎপাদন বেশি হলে দাম কমে যায়, এনিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে কমিটিতে।  

তিনি বলেন, মিলাররা বলছে, তাদের গুদামে যে ধান ও চাল রয়েছে সেটা তারা বিক্রি করতে পারছে না। এই আমন মৌসুমে যদি তারা ধান না কেনে, তাহলে সমস্যা দেখা দেবে। তবে, তারা অবশ্যই ধান কিনবে। কেননা আমন চাল দীর্ঘদিন সংরক্ষণ করা যায়।  

কৃষিমন্ত্রী বলেন, এবছর ছয় লাখ টন ধান কেনা হবে সরাসরি চাষির কাছ থেকে, যা বাংলাদেশে অতীতে কোনোদিন হয়নি। গত বোরো মৌসুমে আমরা চার লাখ টন ধান কিনেছি, যা কেনার কথা ছিল দেড় লাখ টন।  

তিনি বলেন, আগামী ২০ তারিখ থেকে আমন ধান কেনা শুরু হবে। ছয় লাখ টন ধান সব চাষির কাছ থেকে কেনা যাবে না। আমরা মূলত প্রান্তিক চাষির থেকেই ধান কিনবো। লটারি করে তাদের কাছ থেকে ধান কেনা হবে। আমন মৌসুমে যাদের কাছ থেকে ধান কেনা হয়েছে, তাদের কাছ থেকে বোরো মৌসুমে ধান কেনা হবে না। এভাবে আমরা মোটামুটি সব চাষিকে সুযোগটা দিতে চাই।  

আরও পড়ুন> সারের দাম আরও কমানোর চিন্তা করছে সরকার

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ০৭, ২০১৯ 
জিসিজি/একে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa