bangla news

হতদরিদ্র ১১ শতাংশ মানুষের ভাগ্যোন্নয়নে কাজ করছে সরকার 

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১১-০৬ ৫:০৭:০০ পিএম
সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ (সিপিডি) এবং অক্সফাম বাংলাদেশে আয়োজনে 'ইউনিভার্সাল পেনশন স্কিম ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক সংলাপ

সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ (সিপিডি) এবং অক্সফাম বাংলাদেশে আয়োজনে 'ইউনিভার্সাল পেনশন স্কিম ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক সংলাপ

ঢাকা: বর্তমানে আমাদের দেশে হতদরিদ্র মানুষের সংখ্যা ১১ শতাংশ। এই  হতদরিদ্র ১১ শতাংশ মানুষের ভাগ্যোন্নয়নে সরকার কাজ করছে বলে জানিয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান।

বুধবার (৬ নভেম্বর) সকাল ১০টায় গুলশানের একটি হোটেলে সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ (সিপিডি) এবং অক্সফাম বাংলাদেশে আয়োজনে 'ইউনিভার্সাল পেনশন স্কিম ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক সংলাপে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

তিনি বলেন, সরকারের সাংবিধানিক দায়িত্ব দেশের জনগণের জন্য ভাত কাপড়ের ব্যবস্থা করা এবং আমাদের সরকার সেটি করেছে।

‘আমাদের সরকার ৯৬ সালে যখন ক্ষমতায় আসে তখন মাথাপিছু ১০০ টাকা ভাতা দিয়ে কল্যাণমুখী কাজ শুরু করেছিল। এবার ক্ষমতায় আসার পর এটি এক্সপান্ড করেছে। ৬০ শতাংশ মানুষকে আমরা এই সেবা দিচ্ছি। বেশিরভাগ এলাকা কাভার করেছি। এক-তৃতীয়াংশ বাকি আছে, সেটিও আমরা কাভার করতে পারবো।’

মন্ত্রী বলেন, আমাদের অর্থ মন্ত্রণালয়ের ভিতরে একটি সেল আছে যেটি পেনশন স্কিম নিয়ে কাজ করছে। সুতরাং, আগামীতে আপনারা এই সেলের সঙ্গে আলোচনা করে আরও ভালো ভূমিকা রাখবেন।

তিনি বলেন, আমরা ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ নিয়ে এসেছি, সাক্ষরতার হার প্রায় আশির কোটায় পৌঁছেছি। আমরা মানুষের জন্য ন্যূনতম স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করেছি ক্লিনিকের মাধ্যমে। আমরা শিশুদের বিনামূল্যে পাঠ্যবই দিচ্ছি এবং আগামী বছর থেকে দুপুরের খাবারের সংস্থানের জন্য কাজ শুরু করেছি। আমাদের সরকার পেনশন স্কিমের রাষ্ট্রীয় কাজটি সম্পন্ন করবে। আমরা পেনশন স্কিম ৫শ টাকা করে দিচ্ছি। বাড়িয়ে দেওয়া প্রয়োজন। তবে এটি বাড়ানোর ফলে এর উদ্যোগ যাতে ব্যাহত না করে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। 

সিপিডির বিশেষ ফেলো দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য্যের সভাপতিত্ব সংলাপের আরও বক্তব্য রাখেন পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, অর্থনীতিবিদ ড. জাহিদ হুসেন, অক্সফাম বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর ডা. দীপঙ্কর দত্ত প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৭০১ ঘণ্টা, নভেম্বর ০৬, ২০১৯
এসএমএকে/এএ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2019-11-06 17:07:00