bangla news

সাইবার আক্রমণ প্রতিরোধে সতর্কতার বিকল্প নেই

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১০-১৫ ৬:২১:০২ পিএম
সেমিনারে অতিথিরা, ছবি: বাংলানিউজ

সেমিনারে অতিথিরা, ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: দেশের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর পাশাপাশি সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোতেও সাইবার আক্রমণ প্রতিরোধে সতর্কতাই প্রধান প্রতিরোধক হিসেবে কাজ করতে পারে। এজন্য আগে থেকেই কর্মকর্তাদের প্রস্তুতি থাকতে হবে।

মঙ্গলবার (১৫ অক্টোবর) রাজধানীর মিরপুরে বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্ট (বিআইবিএম) মিলনায়তনে ‘সাইবার সিকিউরিটি ফার্স্ট-রেসপন্ডার: থ্রেট ডিটেকশন অ্যান্ড রেসপন্স’ শীর্ষক সেমিনারে বক্তারা এ কথা বলেন।

সাইবার নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠান এপিএসির ট্রেনিং অ্যান্ড কলসাল্টিং ডিরেক্টর ডেসমন্ড দেবেন্দ্র বলেন, অনেক সময় আমরা কম্পিউটারে গেম খেলতে খেলতে বিভিন্ন লিংক আসলে তাতে ক্লিক করি। ক্লিক করার পরে ম্যালওয়ার আমাদের কম্পিউটারে প্রবেশ ও আক্রমণ করে। গেম খেলার সময় কিন্তু আমাদের কোনো সাইবার নিরাপত্তার প্রস্তুতি থাকে না।

তিনি বলেন, একইভাবে দেখা যায়, আপনার অ্যাকাউন্টে কেউ ই-মেইল করে জানিয়েছে, আপনি পাঁচ লাখ ডলার জয় করেছেন। আপনি সেই মেইলে ক্লিক করার সঙ্গে সঙ্গে আপনার ই-মেইলের মাধ্যমে সাইবার আক্রমণ হতে পারে। অধিকাংশ ক্ষেত্রে একইভাবে সাইবার আক্রমণ হয়ে থাকে। এজন্য আমাদের আগে থেকে সতর্ক হতে পারলে সাইবার আক্রমণ প্রতিরোধ করা সম্ভব।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকিং রিফর্ম অ্যাডভাইজার এসকে সুর চৌধুরী বলেন, সময় এসেছে সাইবার আক্রমণের আগেই প্রতিরোধ করার। এজন্য বাংলাদেশ ব্যাংকসহ অধিকাংশ ব্যাংক সিইআরটিতে কম্পিউটার ইর্মারজেন্সি রেসপন্স টিম গঠন করে দেওয়া হয়েছে। যাতে দুর্ঘটনার সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারে।

ব্যাংক এশিয়ার ব্যবস্থাপনা পরিচালক আরফান আলী বলেন, সাইবার নিরাপত্তার বিষয়টি আগের দিনের এইডস রোগের বিষয়ে সচেতনতার মতো। বাচঁতে হলে জানতে হবে। আপনি কিছু না জানলে আপনার পক্ষে সাইবার আক্রমণ প্রতিরোধ করা সম্ভব না।

সভাপতির বক্তব্যে বিআইবিএমের চেয়ার প্রফেসর বরকত এ খোদা বলেন, প্রযুক্তি যেভাবে আমাদের জীবনকে সহজ করে দিয়েছে, তেমন ঝুঁকিও তৈরি করেছে। অনলাইন ব্যাংকিংয়ের সুবিধা চালু হওয়ার কারণে সাইবার আক্রমণের ঝুঁকিও অনেক বেড়ে গেছে। এ বিষয়ে আমাদের সচেতনতাই আক্রমণ প্রতিরোধ করতে পারে।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন বিআইবিএময়ের অধ্যাপক এবং পরিচালক (প্রশিক্ষণ)  ড. শাহ মো. আহসান হাবীব।

বিআইবিএম এবং ডিজিএসইসি কাউন্সিল যৌথভাবে এ সেমিনারের আয়োজন করে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮১৮ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৫, ২০১৯
এসই/টিএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   তথ্যপ্রযুক্তি বাংলাদেশ ব্যাংক
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-10-15 18:21:02