bangla news

দায়িত্বে অবহেলা করলে কঠোর ব্যবস্থা: শিল্পমন্ত্রী

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১০-১৪ ৬:০৯:৫৭ পিএম
অনুষ্ঠানে শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূনসহ অন্যরা। ছবি: বাংলানিউজ

অনুষ্ঠানে শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূনসহ অন্যরা। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: জাতীয় পর্যায়ে পণ্য ও সেবার গুণগত মান সুরক্ষা ও উন্নয়ন বিএসটিআই’র দায়িত্ব। এক্ষেত্রে কেউ দায়িত্ব অবহেলা করলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন। 

সোমবার (১৪ অক্টোবর) ৫০তম বিশ্ব মান দিবস উপলক্ষে বিকেলে রাজধানীর তেজগাঁওয়ে বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশনের (বিএসটিআই) প্রধান কার্যালয়ে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, এ প্রতিষ্ঠানের কর্মকাণ্ডের ওপর গুণগত শিল্পায়ন এবং জননিরাপত্তার বিষয়টি নির্ভর করে। এর কর্মকর্তা-কর্মচারীরা মান নির্ধারণ ও নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে কোনো ধরনের অসাধুতা কিংবা পক্ষপাতিত্ব করলে, তা জাতির জন্য মারাত্মক হুমকির কারণ হতে পারে। এটি বিবেচনায় রেখেই বিএসটিআই’র সবপর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীকে সর্বোচ্চ পেশাদারিত্ব, সততা, নিষ্ঠা, আন্তরিকতা ও দেশপ্রেমের সঙ্গে অর্পিত দায়িত্ব পালন করতে হবে। এক্ষেত্রে কোনো ধরনের শৈথিল্য কিংবা দায়িত্বহীনতা সরকার মেনে নেবে না। দায়িত্ব অবহেলা কিংবা অনৈতিক কোনো কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত হলে, শিল্প মন্ত্রণালয় দায়ী ব্যক্তির বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেবে।

নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন বলেন, বিশ্বব্যাপী চলমান চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের প্রেক্ষাপটে এ আয়োজন বাংলাদেশে উৎপাদিত পণ্য ও সেবার গুণগতমানের উন্নয়নে সংশ্লিষ্ট সবাইকে সচেতন করবে। এর ফলে বাংলাদেশে জ্ঞানভিত্তিক শিল্পায়নের প্রয়াস জোরদার হবে বলে আমার বিশ্বাস।  

তিনি বলেন, এ বছর বিশ্বমান দিবসের প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করা হয়েছে ‘ভিডিও মান বৈশ্বিক সম্প্রীতির বন্ধন’। তথ্য প্রযুক্তির উৎকর্ষতার বর্তমান প্রেক্ষাপটে প্রতিপাদ্যটি বাংলাদেশের জন্য অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। ভিডিও বর্তমান সমাজে তথ্য ও ভাব প্রকাশের একটি সর্বাধুনিক মাধ্যম। বিনোদন জগতে বিপ্লব, পারিবারিক ও সামাজিক মতবিনিময়, যোগাযোগ ক্ষেত্রে তথ্যের আদান-প্রদান, শিক্ষা ও চিকিৎসা ক্ষেত্রে কার্যকর সেবা প্রদানে এটি সর্বাধুনিক মাধ্যম হিসেবে ভূমিকা পালন করছে। ইদানিং শিক্ষা ও চিকিৎসা ক্ষেত্রে টেলিমেডিসিন এবং ভিডিও কনফারেন্সিং জনপ্রিয় হয়ে ওঠেছে।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, শিল্পখাতে নতুন উদ্ভাবনসহ নিত্যদিনের ঘটনা প্রবাহ ভিডিও প্রযুক্তিতে ধারণ করা হচ্ছে এবং এগুলো ফেসবুক, ইউটিউব, টুইটার, ম্যাসেঞ্জার ইত্যাদি সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে মুহূর্তের মধ্যে গোটা পৃথিবীতে ছড়িয়ে দেওয়া সম্ভব হচ্ছে। অপরাধ দমনে সিসিটিভির মত ভিডিও প্রযুক্তি বিশ্বব্যাপী সবচেয়ে কার্যকর মাধ্যম হিসেবে বিবেচিত। পাশাপাশি প্রতিরক্ষা, সমর প্রযুক্তি ও রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তার ক্ষেত্রে আইনশৃঙ্খলা প্রয়োগকারী সংস্থাগুলো আন্তর্জাতিকমানের ভিডিও প্রযুক্তি ব্যবহার করছে। এ বাস্তবতায় এবারের বিশ্ব মান দিবসের প্রতিপাদ্যটি অত্যন্ত যৌক্তিক হয়েছে বলে আমি মনে করি। 
 
তিনি বলেন, বর্তমান সরকার শিল্পবান্ধব সরকার। দেশে শিল্পসহায়ক মান অবকাঠামো গড়ে তুলতে আমরা কাজ করছি। এ লক্ষ্যে গত এক দশকেরও বেশি সময় ধরে আমরা ব্যাপক কর্মসূচি বাস্তবায়ন করেছি। আন্তর্জাতিক বাণিজ্যের কারিগরি প্রতিবন্ধকতা মোকাবিলায় আমরা প্রয়োজনীয় নীতি, আইন ও বিধি প্রণয়ন করেছি। পাশাপাশি জেলা পর্যায়ে বিএসটিআই’র কার্যক্রম সম্প্রসারণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এসব উদ্যোগের ফলে দেশে পণ্য ও সেবার গুণগত মানোন্নয়ন ও সংরক্ষণের প্রয়াস ক্রমেই জোরদার হচ্ছে। গুণগত শিল্পায়নের লক্ষ্য অর্জনে আমরা পর্যায়ক্রমে উপজেলা পর্যায়ে বিএসটিআই’র অফিস সম্প্রসারণ করবো।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন শিল্প মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব সালাউদ্দিন মাহমুদ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিএসটিআই’র মহাপরিচালক মো. মুয়াজ্জেম হোসাইন।

পণ্য এবং সেবার মানের বিষয়ে সচেতনতা তৈরিতে প্রতিবছর বিশ্বব্যাপী এ দিবসটি পালন করা হয়ে থাকে। এ বছরের বিশ্ব মান দিবসের প্রতিপাদ্য ‘ভিডিও মান বৈশ্বিক সম্প্রীতির বন্ধন’। এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে বিশ্বের অন্য দেশের মত বাংলাদেশেও দিবসটি যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করা হচ্ছে। 

দিবসটি উপলক্ষে জাতীয় মান সংস্থা হিসেবে বিএসটিআই বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। এরই অংশ হিসেবে বিএসটিআই’র প্রধান কার্যালয়ের পাশাপাশি আঞ্চলিক অফিসসমূহে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। বাংলাদেশ টেলিভিশনে বিশেষ সাক্ষাতকারভিত্তিক আলোচনা অনুষ্ঠান এবং বাংলাদেশ বেতারে আলোচনা অনুষ্ঠান সম্প্রচার করছে। 

এছাড়া রাজধানীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ব্যানার, ফেস্টুন, প্ল্যাকার্ড লাগানো হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮০৩ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৪, ২০১৯
এসএমএকে/আরবি/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-10-14 18:09:57