bangla news

খুলনায় কেজিতে ইলিশে দাম বেড়েছে ৩০০ টাকা

মাহবুবুর রহমান মুন্না, ব্যুরো এডিটর | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১০-০৫ ১০:৩১:০৩ এএম
ইলিশ। ছবি: বাংলানিউজ

ইলিশ। ছবি: বাংলানিউজ

খুলনা: খুলনার বাজারে ইলিশের দাম আকাশচুম্বী। মহানগরীর বৃহত্তম পাইকারি মাছের বাজার কেসিসি রূপসা পাইকারি মৎস্য আড়তে সপ্তাহের ব্যবধানে ইলিশের দাম প্রতিকেজিতে বেড়েছে ৩০০ টাকা। ৫০০-৬০০ গ্রামের ইলিশ গত সপ্তাহে বিক্রি হয়েছে ৫০০ টাকা। 

শনিবার (৫ অক্টোবর) সকালে ওই সাইজের ইলিশ ৬০০ থেকে ৭০০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। ৭০০ থেকে ৮০০ গ্রামের ইলিশ গত সপ্তাহে ৬০০ টাকা বিক্রি হলেও এখন বিক্রি হচ্ছে ৮০০ থেকে ৯০০ টাকা দরে। এক কেজি ওজনের ইলিশ গত সপ্তাহে এক হাজার টাকা দরে বিক্রি হলেও এখন হচ্ছে ১৩শ টাকা দরে।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, দুর্গাপূজা উপলক্ষে চাহিদার তুলনায় মাছ কম হওয়ায় দাম বেশি। এছাড়া নদী ও সাগরে মাছ ধরার ট্রলারগুলো পর্যাপ্ত মাছ না পাওয়ায় ইলিশের বাজার ঊর্ধ্বমুখী।

তারা বলছেন, আগামী ৯ অক্টোবর থেকে ২৩ দিনের জন্য ইলিশ ধরা, বিক্রি নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। ইলিশের প্রজনন নির্বিঘ করার জন্য প্রতিবছর এই সময়ে সরকার ইলিশ ধরা বন্ধ রাখে। এজন্য এক মাস বন্ধের আগে বাজারে ইলিশের চাহিদা বেড়েছে। আবার দুর্গাপূজা উপলক্ষেও সুস্বাদু এই মাছের চাহিদা রয়েছে। ফলে দাম কিছুটা বেড়েছে। আবার কেউ কেউ পরে দাম বাড়বে এই আশায় বাজারে সরবরাহ কমিয়ে কোল্ড স্টোরেজে মজুদ করছে ইলিশ। এর প্রভাবও পড়ছে বাজারে। বাজারের ইলিশ কিনছে ক্রেতারা। ছবি: বাংলানিউজএদিকে মাছের দাম চড়া হলেও কেসিসি রূপসা পাইকারি মৎস্য আড়তে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, ক্রেতাদের উপচেপড়া ভিড়। তবে, অন্যান্য মাছের চেয়ে ইলিশ মাছের আড়তগুলোতে ক্রেতাদের ইলিশ কেনার প্রতিযোগিতা ছিল বেশি। ক্রেতাদের মাছ কেনার প্রতিযোগিতা দেখে মনে হয়েছে এ মাছ আর পাওয়া যাবে না। তাই দাম যাই হোক, ইলিশ নিতেই হবে। 


বাজারে মাছ কিনতে আসা লবণচরা টেকনিক্যাল ইনস্টিটিউটের চেয়ারম্যান মোসলেহ উদ্দিন তুহিন বাংলানিউজকে বলেন, মাছের বাজারে এসে দেখি হঠাৎ করে ইলিশ চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে। বিক্রেতারা কোনোভাবে দাম কমাচ্ছেন না। বাসায় মেহমান এসেছে। তাই মাছ কিনতে বাজারে এলাম।

সাধারণ ক্রেতারা বলছেন, অস্থির হয়ে উঠেছে ইলিশের বাজার। সপ্তাহের ব্যবধানে প্রতি কেজি ইলিশের দাম বেড়েছে ২০০-৩০০ টাকা। দুর্গাপূজা উপলক্ষে ভারতে ৫০০ টন ইলিশ রপ্তানি হওয়ার খবরে ব্যবসায়ীরা যে যার মতো করে ইলিশের দাম বাড়িয়ে দিয়েছেন।

কেসিসি ময়লাপোতা সন্ধ্যা বাজারের আল্লাহর দান ফিসের মালিক মো. আশা শেখ রূপসার পাইকারি আড়তে মাছ কিনতে এসে দাম দেখে হতাশা প্রকাশ করেছেন। 
তিনি বলেন, হঠাৎ করে ইলিশ মাছের দাম বেড়ে গেছে। মাছ কম ধরা পড়ছে এছাড়া যাও পড়ছে তা ভারতে চলে যাচ্ছে। যে কারণে আমাদের বেশি দামে পাইকারি বাজার থেকে মাছ কিনতে হচ্ছে। খুচরা বিক্রি করতে হচ্ছেও বেশি দামে। কিন্তু খুচরা বাজারে মাছের দাম বেশি চাইলেই ক্রেতারা ক্ষেপে যান।

কেসিসি রূপসা পাইকারি মৎস্য আড়তে মেসার্স মদিনা ফিস ট্রেডার্স পরিচালক মো. আবু মুসা বাংলানিউজকে বলেন, দুর্গাপূজার কারণে ইলিশের বিক্রি বেড়েছে। আবার ইলিশ ধরা বন্ধের সময়ও ঘনিয়ে আসছে। এ দুইয়ের প্রভাবে বাজারে ইলিশ মাছের দাম বাড়তে শুরু করেছে।

তিনি বলেন, পাইকারি মৎস্য আড়তে সপ্তাহের ব্যবধানে ইলিশের দাম প্রতি কেজিতে বেড়েছে ২০০-৩০০টাকা। খুচরা বাজারে আরও বেশি।

মোহাম্মাদ আব্দুল্লাহ নামের বাজারের এক আড়তদার বলেন, বর্তমান বাজারে ইলিশের দাম একটু চড়া। বাংলাদেশের ইলিশ ভারতে চলে যাচ্ছে বলে এখানের বাজারে মাছের দাম বেড়ে গেছে।

বাংলাদেশ সময়: ১০৩০ ঘণ্টা, অক্টোবর ০৫,  ২০১৯
এমআরএম/এএটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   ইলিশ খুলনা
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-10-05 10:31:03