bangla news

ই-কমার্স খাতে ‘স্মার্ট রিটার্ন’ নিয়ে এলো পেপারফ্লাই

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৯-১৭ ২:২৪:০৩ পিএম
ফিচার উন্মোচন অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন পেপারফ্লাইর প্রধান বিপণন কর্মকর্তা (সিএমও) রাহাত আহমেদ।

ফিচার উন্মোচন অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন পেপারফ্লাইর প্রধান বিপণন কর্মকর্তা (সিএমও) রাহাত আহমেদ।

ঢাকা: বরাবরের মতোই দেশের ই-কমার্স খাতের সমস্যা সমাধানে এগিয়ে এসেছে পেপারফ্লাই। সব ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের জন্য ‘রিটার্ন’ খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। কেননা, অনলাইন অর্ডার থেকে প্রায় ২৪ শতাংশ পণ্য ফেরত আসে। ফেরত আসা পণ্য পুনরায় ডেলিভারি করতে ই-কমার্স ও তাদের লজিস্টিক পার্টনারদের নতুন করে ব্যয় বহন করতে হয়।  

ফেরত আসা ২৪ শতাংশ পণ্যের মধ্যে ২১ শতাংশই ঘটে ক্রেতার অনিচ্ছা এবং ডেলিভারির সময় তার অনুপস্থিতির কারণে। বাকি ৩ শতাংশ ঘটে পণ্যের প্যাকেজিংয়ের ত্রুটি, দেরিতে ডেলিভারি দেওয়ার কারণে। কিন্তু সবসময় এ সঠিকভাবে এর কারণ ও সংখ্যার হিসাব পাওয়া যায় না। সঠিক সময় পণ্য ফেরত আসার সঠিক কারণ জানা গেলে তা ই-কমার্স খাতের এক নম্বর সমস্যার সমাধানে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণে সহায়তা করবে।

‘রিটার্ন পারসেন্ট’ বা সরবরাহ করতে না পারা পণ্যের পরিমাণ হ্রাসে কার্যকরী সমাধান নিয়ে আসতে অনেকদিন ধরেই কাজ করেছে পেপারফ্লাই। এর ভিত্তিতে প্রতিষ্ঠানটি নিয়ে এসেছে ‘স্মার্ট রিটার্ন’ ফিচার।

এ ফিচারের মাধ্যমে প্রথমবারের মতো ফেরত আসা সব অর্ডার ২৪ ঘণ্টার জন্য স্থগিত থাকবে এবং মার্চেন্ট ও ক্রেতার সুযোগ হবে রিটার্ন বাতিল করার এবং অর্ডার করা পণ্য ফেরত পাওয়ার। ‘ডাবল চেক মেকানিজম’এর ওপর ভিত্তি করে এ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে এবং ফেরত আসা পণ্যের স্পষ্ট কারণ সম্পর্কেও জানা যাবে।

এ নিয়ে পেপারফ্লাইর প্রধান বিপণন কর্মকর্তা (সিএমও) রাহাত আহমেদ বলেন, ‘স্মার্ট রিটার্ন’ আমাদের গ্রাহকের রিটার্নের সংখ্যা ৫ থেকে ১০ শতাংশ কমিয়ে আনবে এবং উল্লেখযোগ্য হারে ডেলিভারি খরচ কমবে। এছাড়া এটা আমাদের গ্রাহকদের ক্রেতাদের আচরণ নিয়ে বিগডেটা দেওয়া হবে। বিগডেটার তথ্য তাদের ভবিষ্যতে ব্যবসায়িক সিদ্ধান্ত নেওয়ার ব্যাপারে সহায়তা করবে।

সম্প্রতি পেপারফ্লাইর আয়োজনে অনুষ্ঠিত একটি অনুষ্ঠানে উদ্ভাবনী এ ফিচার উন্মোচন করা হয়।উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দেশের অন্যতম সব ই-কমার্স ও এফ-কমার্স প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা।

অতিথিরা পেপারফ্লাইর এ উদ্যোগের প্রশংসা করেন এবং ই-কমার্স খাতের মূল সমস্যা সমাধানে এমন কার্যকরী উদ্যোগ গ্রহণের জন্য তাদের কৃতজ্ঞতা ব্যক্ত করেন।

বাংলাদেশে রিটেইল খাতে ই-কমার্সের পরিমাণ বর্তমানে ১ শতাংশেরও কম কিন্তু এ বাজার আগামী দশকের মধ্যে ১৫ থেকে ২০ শতাংশ বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। যেহেতু, লজিস্টিক ই-কমার্স খাতের প্রবৃদ্ধির অন্যতম সহায়ক তাই অনুষ্ঠানে অতিথিরা ভবিষ্যতে স্মার্ট ফিচারের মতো এ ধরনের আরও উদ্ভাবন নিয়ে আসার ব্যাপারে ভাবনা ও আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

ই-কমার্স খাতে মানুষের দ্বারে ডেলিভারি পৌঁছে দিতে পেপারফ্লাই নতুন প্রজন্মের প্রযুক্তিভিত্তিক স্মার্ট লজিস্টিক সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান। দেশের ৬৪ জেলা, ৪৯৩ উপজেলা এবং ৪৪৫৪ ইউনিয়নে নিজেদের কর্মী দিয়ে ডেলিভারি পৌঁছে দেওয়া দেশের একমাত্র প্রতিষ্ঠান পেপারফ্লাই।

নিজস্ব আইটি সফটওয়ার ও দেশজুড়ে নিজেদের নেটওয়ার্কের মাধ্যমে পেপারফ্লাই নতুন প্রজন্মের লজিস্টিক সেবা যেমন স্বয়ংক্রিয় ফুলফিলমেন্ট ও ওয়্যারহাউজিং, ডোরস্টেপ মার্কেটিং অ্যাকটিভিশন এবং ই-কমার্স ও এফ কমার্সে রিটেইল ডিস্ট্রিবিউশন সার্ভিসের মতো সর্বপ্রথম উদ্ভাবনী সব সেবা নিয়ে এসেছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৪০৬ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৯
এএটি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-09-17 14:24:03