bangla news

এসি বিক্রিতে ওয়ালটনের ১২২ শতাংশ প্রবৃদ্ধি

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৯-০১ ৩:৫৭:৫৭ পিএম
ওয়ালটন রিভারাইন প্রো এবং ক্রিস্টালাইন সিরিজের ১.৫ এবং ২ টনের নতুন মডেলের এসি উন্মোচন করছেন প্রতিষ্ঠানটির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

ওয়ালটন রিভারাইন প্রো এবং ক্রিস্টালাইন সিরিজের ১.৫ এবং ২ টনের নতুন মডেলের এসি উন্মোচন করছেন প্রতিষ্ঠানটির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

ঢাকা: চলতি বছর স্থানীয় বাজারে এসি বিক্রিতে রেকর্ড করেছে ওয়ালটন। ২০১৮ সালের তুলনায় চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে আগস্ট পর্যন্ত প্রায় ১২২ শতাংশ বেশি এসি বিক্রি হয়েছে। ২২ শতাংশ মার্কেট শেয়ার নিয়ে দেশের এসি বাজারে এখন শীর্ষে প্রতিষ্ঠানটি। এ অবস্থায় পণ্য গবেষণা ও উন্নয়ন, বিক্রয়োত্তর সেবা এবং উৎপাদন বৃদ্ধিতে সর্বাধিক গুরুত্ব দিচ্ছে ওয়ালটন।

রোববার (১ সেপ্টেম্বর) ওয়ালটন থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, শনিবার (৩১ আগস্ট) রাজধানীর ওয়ালটন করপোরেট অফিসে আয়োজন করা হয় ‘অ্যাচিভমেন্ট সেলিব্রেশন প্রোগ্রাম’। এসময় উন্মুক্ত করা হয় রিভারাইন প্রো এবং ক্রিস্টালাইন সিরিজের ১.৫ এবং ২ টনের নতুন ৬ মডেলের এসি। পাশাপাশি এসি বিক্রিতে বিশেষ অবদান রাখায় ওয়ালটন প্লাজা সেলস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট, ওয়ালটন ডিস্ট্রিবিউটর নেটওয়ার্ক এবং মার্সেল ডিস্ট্রিবিউটর নেটওয়ার্কের ১৮ জন কর্মকর্তাকে পুরস্কৃত করা হয়।

নতুন মডেলের এসি উন্মোচনের পর পুরস্কার পাওয়া কর্মকর্তাদের হাতে প্রাইজমানি এবং সনদ তুলে দেন ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান এস এম নূরুল আলম রেজভী, ভাইস-চেয়ারম্যান এস এম শামসুল আলম এবং পরিচালক এস এম মাহবুবুল আলম।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন চীফ টেকনিক্যাল অফিসার ই এম ইয়াং, ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস ইউনিট (আইবিইউ) প্রেসিডেন্ট এডওয়ার্ড কিম, এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর ইভা রিজওয়ানা, এমদাদুল হক সরকার, নজরুল ইসলাম সরকার, এস এম জাহিদ হাসান, হুমায়ুন কবীর, তানভীর রহমান, উদয় হাকিম, সিরাজুল ইসলাম, মোহাম্মদ রায়হান, আমিন খান, ড. মো. সাখাওয়াত হোসেন, ডেপুটি এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর ফিরোজ আলম ও শাহজাদা সেলিম, অপারেটিভ ডিরেক্টর রবিউল আলম ভূঁইয়া প্রমুখ।

ওয়ালটন এসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. তানভীর রহমান বলেন, এ বছর দেশের বাজারে যে পরিমাণ এসি বিক্রির টার্গেট ছিল ওয়ালটনের আগস্ট পর্যন্ত লক্ষ্যমাত্রার প্রায় ৭৫ শতাংশ বিক্রি হয়েছে। দেশের বাজারের পাশাপাশি এশিয়া, মধ্যপ্রাচ্য ও আফ্রিকার বিভিন্ন দেশে রপ্তানি হচ্ছে ওয়ালটন এসি। সম্প্রতি দক্ষিণ কোরিয়ার ব্র্যান্ড হুন্দাইয়ের সঙ্গে এসি সরবরাহের চুক্তি হয়েছে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে সর্বাধুনিক প্রযুক্তি সংযোজন এবং গবেষণা ও উন্নয়নে ব্যাপক বিনিয়োগ করা হচ্ছে। বাড়ানো হচ্ছে উৎপাদন লাইন। 

তার মতে, ওয়ালটন এসির বিক্রয় বৃদ্ধিতে বেশ কিছু বিষয় উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রেখেছে। এর মধ্যে রয়েছে  সর্বাধুনিক প্রযুক্তির ব্যাপক বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী ইনভার্টার, আয়োনাইজার ও আইওটি বেজড স্মার্ট এসির উৎপাদন। ইনভার্টার এসির কম্প্রেসরে ১০ বছরের গ্যারান্টি, ৬ মাসের রিপ্লেসমেন্ট গ্যারান্টি সুবিধা, একচেঞ্জ অফারে যে কোনো ব্র্যান্ডের এসি বদলে ওয়ালটনের নতুন এসি ক্রয়ের সুযোগ, ফ্রি ইন্সটলেশন এবং ডিজিটাল ক্যাম্পেইনের আওতায় ১ বছরের বিদ্যুৎ বিল ফ্রি অথবা সর্বোচ্চ এক লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার পাওয়ার সুযোগ।

ওয়ালটন ৪ ও ৫ টনের সিলিং ও ক্যাসেট টাইপ এসি উৎপাদন এবং বাজারজাত করছে। পাশাপাশি, শিল্প-কারখানা, কারপোরেট প্রতিষ্ঠান, শপিং মল, হাসপাতাল, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, আবাসিক ভবনসহ মাঝারি ও বড় আকারের স্থাপনার জন্য ১৭ এবং ২৫ টনের ভিআরএফ (ভেরিয়্যাবল রেফ্রিজারেন্ট ফ্লো) এসি তৈরি করছে ওয়ালটন।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ওয়ালটনের প্রতিটি এসি আন্তর্জাতিকমানের টেস্টিং ল্যাব নাসদাত-ইউটিএস থেকে মান নিশ্চিত হওয়ার পর বাজারজাতকরা হয়। গ্রাহক পর্যায়ে দ্রুত ও সর্বোত্তম বিক্রয়োত্তর সেবা পৌঁছে দিতে ওয়ালটনের রয়েছে আইএসও সনদপ্রাপ্ত সার্ভিস ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম। এর আওতায় সারা দেশে রয়েছে ৭০টিরও বেশি সার্ভিস সেন্টার। সেখানে নিয়োজিত রয়েছেন আড়াই হাজারের বেশি প্রকৌশলী ও টেকনিশিয়ান।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫৭ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ০১, ২০১৯
এইচএডি/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-09-01 15:57:57