ঢাকা, সোমবার, ৪ ভাদ্র ১৪২৬, ১৯ আগস্ট ২০১৯
bangla news

ব্যাংক ঋণে কর্পোরেট গ্যারান্টিতে আরও সতর্কতার তাগিদ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৭-১৭ ৫:৫৮:৫৫ পিএম
বিআইবিএম অডিটোরিয়ামে গোলটেবিল বৈঠকে উপস্থিত অতিথিরা

বিআইবিএম অডিটোরিয়ামে গোলটেবিল বৈঠকে উপস্থিত অতিথিরা

ঢাকা: ব্যাংক ঋণে কর্পোরেট গ্যারান্টিতে আরও সতর্কতার তাগিদ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। বক্তারা বলেছেন, ঋণ খেলাপির বিষয়টি ক্রমেই উদ্বিগ্নের বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। এ অবস্থায় কর্পোরেট গ্যারান্টি খেলাপি কমাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। তবে ব্যাংকারদের ঋণ দেওয়ার ক্ষেত্রে গ্যারান্টি সংক্রান্ত বিষয়গুলোতে স্বচ্ছ ধারণা থাকতে হবে।

বুধবার (১৭ জুলাই) রাজধানীর মিরপুরে বিআইবিএম অডিটোরিয়ামে ‘কর্পোরেট গ্যারান্টি: ডাজ ইট ওয়ার্ক ইন রিকভারি অব লোন’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে উপস্থাপিত প্রতিবেদনে এ কথা বলা হয়েছে। 

বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন বিআইবিএম’র মহাপরিচালক এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক মহা. নাজিমুদ্দিন। তিনি কর্পোরেট গ্যারান্টিতে ব্যাংকারদের আরো সর্তক থাকার ওপর জোরারোপ করেন।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিআইবিএম’র অধ্যাপক এবং পরিচালক (গবেষণা, উন্নয়ন ও পরামর্শ এবং প্রশাসন ও হিসাব) ড. প্রশান্ত কুমার ব্যানার্জি। তিনি তার বক্তব্যে কর্পোরেট গ্যারান্টির বিভিন্ন দিক বিশ্লেষণ করেন।

গোলটেবিল বৈঠকে গবেষণা প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন বিআইবিএম’র সহকারী অধ্যাপক ড. মো. মোশাররেফ হোসেন। পাঁচ সদস্যের একটি গবেষণা দল এ গবেষণা সম্পন্ন করে। গবেষণা দলে অন্যদের মধ্যে ছিলেন বিআইবিএম’র সহকারী অধ্যাপক ড. মো. মহব্বত হোসেন; বিআইবিএম’র প্রভাষক মাকসুদা খাতুন ও রিফাত জামান সৌরভ এবং ঢাকা ব্যাংক লিমিটেডের সিনিয়র অ্যাসিস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম।

গবেষণায় প্রাইমারি এবং সেকেন্ডারি দুই ধরনের তথ্যের ব্যবহার করা হয়েছে। গবেষণায় দেশের বিভিন্ন বাণিজ্যিক ব্যাংকের কাছ থেকে তথ্য নেওয়া হয়েছে। এর বাইরে বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সাক্ষাৎকার নেওয়া হয়। একই সঙ্গে বাংলাদেশ ব্যাংক এবং বিআইবিএম’র প্রকাশনা থেকে তথ্য নেওয়া হয়েছে।

বৈঠকে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিআইবিএম’র নির্বাহী কমিটির সভাপতি এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর এস. এম. মনিরুজ্জামান।

এসময় তিনি বলেন, ঋণ খেলাপি ব্যাংকিংখাতের পরিচালনা এবং মুনাফার ক্ষেত্রে নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে। বিষয়টি নিয়ে নীতি নির্ধারকরা ভাবছেন, পরিস্থিতি উত্তোরণের জন্য বিভিন্ন পরিকল্পনা করছেন। তিনি আরও বলেন, ব্যাংক ঋণে সর্তকতার পাশাপাশি প্রবৃদ্ধি যাতে ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সেদিকটা বিবেচনায় রাখতে হবে। সার্বিক দিক বিবেচনা করতে হবে যাতে ব্যাংকও ক্ষতিগ্রস্ত না হয় একই সঙ্গে প্রবৃদ্ধি অর্জনে প্রয়োজনীয় অর্থায়ন হয়।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বিআইবিএম’র ড. মোজাফফর আহমদ চেয়ার প্রফেসর এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের প্রাক্তন অধ্যাপক ড. বরকত-এ-খোদা; বিআইবিএম’র সুপারনিউমারারি অধ্যাপক এবং পূবালী ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক হেলাল আহমদ চৌধুরী; বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রাক্তন নির্বাহী পরিচালক এবং বিআইবিএম’র সাবেক সুপারনিউমারারি অধ্যাপক ইয়াছিন আলি।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৫৬ ঘণ্টা, জুলাই ১৭, ২০১৯
এসই/জেডএস

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-07-17 17:58:55