bangla news

প্রশাসনের আশ্বাসে সড়ক ছাড়লেন বিজিএমইএ'র শিক্ষার্থীরা

সাভার করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৭-০২ ৬:০৪:১৭ পিএম
চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলছেন। ছবি: বাংলানিউজ

চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলছেন। ছবি: বাংলানিউজ

তুরাগ (ঢাকা): ঢাকার তুরাগে আট দফা দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের আশ্বাসে প্রায় পাঁচ ঘণ্টা পর সড়ক অবরোধ তুলে নিয়েছেন।

বিজিএমইএ ইউনিভার্সিটি অব ফ্যাশন অ্যান্ড টেকনোলোজির চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান সব দাবি মেনে নেওয়ার আশ্বাস দিলে শিক্ষার্থীরা মঙ্গলবার (২ জুলাই) বিকেল ৪টার দিকে অবরোধ তুলে নেন।

এসময় শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে ৭২ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ফিরে যায়।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে কোনরকম ব্যবস্থা নেওয়া হবে না জানিয়ে চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান বলেন, শিক্ষার্থীদের দাবি অনুযায়ী প্রক্টরিয়াল বডির সবাইকে এরইমধ্যে প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছে। স্থানীয় ওসির সঙ্গে কয়েকদফা বৈঠক হয়েছে। তিনি (ওসি) অবিলম্বে দায়ী সবাইকে আটক করবেন বলে আশ্বাস দিয়েছেন।

শিক্ষার্থীদের মুখপাত্র সোহেল রানা বাংলানিউজকে বলেন, আমরা বিজেএমইএ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের ওপর হামলাকারীদের বিচারের দাবিতে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করেছি। চেয়ারম্যান স্যার আমাদের দাবি মেনে নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন। আমরা তাদেরকে তিনদিন সময় বেঁধে দিয়েছি। এরমধ্যে তারা দাবি না মানলে আমরা আবারও রাজপথে নেমে আসতে বাধ্য হবো।

এ বিষয়ে তুরাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরুল মুক্তাকিম বাংলানিউজকে বলেন, বিজেএমইএ বিশ্ববিদ্যালয়ের চেয়ারম্যান স্যার এসেছেন শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলে তাদের দাবি মেনে নিয়েছেন। পরে শিক্ষার্থীরা সড়ক ছেড়ে ক্লাসে ফিরে যান। খুব দ্রুত সড়কের যানচলাচল স্বাভাবিক হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

এর আগে সকাল থেকে আট দফা দাবিতে টঙ্গী-আশুলিয়া-ইপিজেড ও আব্দুলাহপুর-মিরপুর সড়কের তুরাগের বেড়িবাঁধ মোড় অবরোধ করে রাখেন বিজিএমইএ ইউনিভার্সিটি অব ফ্যাশন অ্যান্ড টেকনোলজির শিক্ষার্থীরা। এতে বেড়িবাঁধের দুই পাশে প্রায় ৩ থেকে ৪ কিলোমিটার করে যানজট তৈরি হয়। এতে দুর্ভোগে পড়েন সাধারণ মানুষ।

বাংলাদেশ সময়: ১৮০৪ ঘণ্টা, জুলাই ০২, ২০১৯
জিপি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-07-02 18:04:17