ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৬ শ্রাবণ ১৪২৭, ১১ আগস্ট ২০২০, ২০ জিলহজ ১৪৪১

অর্থনীতি-ব্যবসা

কৃষিতে ভর্তুকি বাড়ানো-সুদ মওকুফের দাবি

বাংলানিউজ টিম | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৩৫ ঘণ্টা, জুন ৩০, ২০১৯
কৃষিতে ভর্তুকি বাড়ানো-সুদ মওকুফের দাবি কৃষির ফাইল ফটো

জাতীয় সংসদ ভবন থেকে: কৃষিখাতে ভর্তুকি বাড়ানো ও কৃষি ঋণের সুদ মওকুফের দাবি জানিয়েছেন বিরোধী দলের সংসদ সদস্যরা।

রোববার (৩০ জুন) জাতীয় সংসদে ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের বরাদ্দের ওপর ছাঁটাই প্রস্তাব অংশ নিয়ে এ দাবি জানান বিরোধী দলের সংসদ সদস্যরা।

সংসদের বিরোধী দলের সদস্য কাজী ফিরোজ রশিদ বলেন, দেড়লাখ কৃষকের ঘাড়ে সার্টিফিকেট মামলা।

যারা হাজার হাজার কোটি টাকা ব্যাংক ঋণ নিয়ে ফেরত দিচ্ছে না। তাদের বিরুদ্ধে মামলা হয় না, গ্রেফতার হয় না। অথচ গরিব কৃষক গ্রেফতার হয়। আমি প্রস্তাব করছি। কৃষি ঋণ আদায় এ মুহুর্তে স্থগিত রাখতে হবে। ঋণের সুদ মওকুফের ঘোষণা দিতে হবে। কৃষক ধানের দাম পেলে এর পর ঋণ পরিশোধ করবে।

গণফোরামের সদস্য মোকাব্বির খান বলেন, কৃষিতে গত কয়েক বছর ধরে নীরব বিপ্লব হয়েছে। এর জন্য কৃষকরা পরিশ্রম করছে। সেই কৃষক এখন ধানের দাম পাচ্ছে না। কৃষকের জন্য পর্যাপ্ত ভর্তুকি দাবি করছি।

বিএনপির সদস্য রুমিন ফারহানা বলেন, কৃষিখাতে প্রতি বছর ভর্তুকি কমছে। ফসলের ন্যায্য মূল্য নিশ্চিত করার মতো কোনো পদক্ষেপের কথা বাজেটে নেই। কৃষিখাতে ভর্তুতি কমিয়ে দেওয়া হলে ভবিষ্যতে পরিস্থিতি খারাপের দিকে যাবে।

বিরোধী দলের সদস্যদের বক্তব্যের পর কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, আমাদের রফতানি আয় অনেক বেশি। এটা মূলত পোশাকখাত ভিত্তিক। আমরা কৃষিকে বাণিজ্যিকীকরণ করতে পাড়লে রফতানি আয় বাড়াতে পারবো। বিএনপি সরকারের আমলে সারের দাবিতে আন্দোলন করায় ১৮ জন ও বিদ্যুতের দাবিতে আন্দোলন করায় কৃষককে গুলি করে হত্যা করা হয়। আমাদের সরকারের সময় কৃষিকে গুরুত্ব দিয়ে ভর্তুকি প্রণোদনা দেওয়া হচ্ছে। এটাকে প্রধানমন্ত্রী বলেন বিনিয়োগ। ধানসহ ফসলের দাম কম এটা সাময়িক। যে যে কারণে দাম কমছে, সে ব্যাপারে ব্যবস্থা নিচ্ছি।  

বাংলাদেশ সময়: ১৪২০ ঘণ্টা, জুন ৩০, ২০১৯
এসকে/এসই/ওএইচ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa