bangla news

বাজেটের পর দুই কার্যদিবসে সূচকের পতন

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৬-১৭ ৪:১১:২৩ পিএম
ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের লোগো

ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের লোগো

ঢাকা: ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেট ঘোষণার পর দুই কার্যদিবসেই  পুঁজিবাজারে সূচকের পতন হয়েছে। সোমবার (১৭ জুন) সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবস ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ডিএসইএক্স সূচক ৫৬ পয়েন্ট এবং চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সিএএসপিআই সূচক ১২৯ পয়েন্ট কমেছে। 

বাজেটে কোম্পানির রিজার্ভে ট্যাক্স প্রস্তাব এবং বিনিয়োগকারীদের মধ্যে আস্থা সংকটের কারণে এমনটি হচ্ছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

এদিন ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৫৬ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৩৭৫ পয়েন্টে। অপর দুই সূচকের মধ্যে শরিয়াহ সূচক ১১ ও ডিএসই-৩০ সূচক ১৬ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১ হাজার ২২৩ ও ১ হাজার ৮৮৯ পয়েন্টে। রোববারও (১৬ জুন) ডিএসইর সূচক কমেছে ৪৩ পয়েন্ট। এ নিয়ে দুই দিনে সূচক কমেছে ৯৯ পয়েন্ট। যা বিনিয়োগকারীদের মধ্যে হতাশা তৈরি করছে।

এ ব্যাপারে ডিএসই ব্রোকার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি শাকিল রিজভী বাংলানিউজকে বলেন, রিজার্ভে ট্যাক্স প্রস্তাবের বিষয়টি নিয়ে বাজারে কিছুটা নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে। তবে এটি ঠিক হয়ে যাবে বলে তিনি মনে করেন। তিনি বলেন, এটি প্রস্তাবিত বাজেট, আমরা আমাদের মতামত বিএসইসির কাছে দিয়েছি। কমিশন আলোচনার মাধ্যমে বিষয়টির সমাধানে উদ্যোগ নেবে।

তবে বাজেটে রিজার্ভে ট্যাক্সের বিষয়টি সমাধান হবে বলে বাজার সংশ্লিষ্টরা আশা করছেন।

এ ব্যাপারে ডিএসইর পরিচালক রকিবুর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, বাজেটে বেশ কিছু প্রণোদনা এসেছে পুঁজিবাজারের জন্য, যা ইতিবাচক। তবে রিজার্ভে ট্যাক্সের বিষয়টি নিয়ে আমরা কমিশনে আলোচনা করেছি। আশা করছি বিষয়টি সমাধান হবে। বাজারে সূচকের পতন সম্পর্কে তিনি আরো বলেন, বাজারের জন্য কমিশন অনেক কিছু ইমপ্লিমেন্ট করেছে। এসব বাস্তবায়ন হলে বাজার ইতিবাচক হবে। তবে আস্থার সংকট যে তৈরি হয়েছিল সেটি কাটিয়ে উঠতে কিছুটা সময় লাগবে বলে তিনি জানান।

এদিকে সোমবার ডিএসইতে ৫৩৫ কোটি ২৭ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। যা আগের দিনের চেয়ে ১ কোটি টাকা বেশি। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৫৩৪ কোটি টাকার।

এদিন ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৫৩টি কোম্পানির মধ্যে ৭৭টির প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে, কমেছে ২৩৫টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪১টি কোম্পানির শেয়ার দর।

টাকার অংকে ডিএসইতে লেনদেন হওয়া শীর্ষ ১০ প্রতিষ্ঠান হলো-ইউনাইটেড পাওয়ার, মুন্নু সিরামিক, নিউ লাইন ক্লোথিংস, ড্রাগন সোয়েটার, সিলকো ফার্মা, স্কয়ার ফার্মা, জেএমআই সিরিঞ্জ, লিগ্যাসি ফুটওয়্যার, নর্দার্ন ইন্স্যুরেন্স এবং ফরচুন সুজ।

অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই এদিন ১২৯ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৬ হাজার ৪৯৫ পয়েন্টে। এদিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ২৭০টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ৭০টির, কমেছে ১৮৩টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৭টির দর। এ বাজারে ৩৩ কোটি ৯৪ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৬০৮ ঘণ্টা, জুন ১৭, ২০১৯
এসএমএকে/জেডএস

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   শেয়ার বাজার
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-06-17 16:11:23