bangla news

সিলেটে রাষ্ট্রীয় ৩ প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রমে গণশুনানি 

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৬-১৫ ৬:২০:০৪ পিএম
গণশুনানি অনুষ্ঠানে অতিথিরা, ছবি: বাংলানিউজ

গণশুনানি অনুষ্ঠানে অতিথিরা, ছবি: বাংলানিউজ

সিলেট: সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর সিলেট জোন, সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) সিলেট ও সড়ক পরিবহন কর্পোরেশন (বিআরটিসি) সিলেট ডিপোর কার্যক্রমের উপর গণশুনানি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (১৫ জুন) সকাল ১০টায় রায়নগর রাজবাড়িস্থ সড়ক ও জনপথ ( সওজ) সিলেট জোন অফিস চত্বরে এই গণশুনানি অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব মো. নজরুল ইসলাম।

এসময় উপস্থিত ছিলেন সওজ সিলেট জোনের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী তুষার কান্তি সাহা ও সিলেট জোন বিআরটিএ এবং বিআরটিসির কর্মকর্তারা।

গনশুনানিতে সর্বসাধারণের অভিযোগ ও পরামর্শ সরাসরি গ্রহণ করেন সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিবসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

গণশুনানিতে তিন প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ভুক্তভোগীরা খোলামেলা অভিযোগ ও নিজেদের মতামত তুলে ধরে বক্তব্য দেন।

গণশুনানি অনুষ্ঠানে ঠিকাদার অ্যাসোসিয়েশনের নেতারা বলেন, তারা দীর্ঘদিন ধরে সওজের ঠিকাদার হিসেবে কাজ করে আসছেন। কিন্তু বর্তমান চলমান নীতিমালা অনুযায়ী সম দরের ক্ষেত্রে ৩০০ মার্কের যে মানদণ্ডের মাধ্যমে বিজয়ী ঠিকাদার নির্ধারণ করা হয়। এতে দেখা যাচ্ছে মুষ্টিমেয় কয়েকজন ঠিকাদারই সমগ্র বাংলাদেশে কাজ পাচ্ছে। বাকি সব ঠিকাদাররা হতাশাগ্রস্ত। এ অবস্থায় গত তিনবছর ধরে অনেক ঠিকাদাররা প্রায় বেকার হয়ে আছেন। এভাবে আরো দু’বছর গেলে এসব ঠিকাদাররা দরপত্রে অংশ নেওয়ার যোগ্যতা হারাবেন। 

গণশুনানিতে এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট বাংক (এডিবি) এবং বাংলাদেশ সরকারের চারলেন রোডের ম্যাপ পরিবর্তনের আহ্বান জানান বক্তারা।

সিলেট-চারখাই-শেওলা-সুতারকান্দি রোড ৪৩ দশমিক ২০ কিলোমিটারের রাস্তার ম্যাপ পরিবর্তনের বিষয় তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল হক।

গণশুনানিতে আরও বক্তব্যে রাখেন সিলেট সিটি করপোরেশনের প্রথম প্যানেল মেয়র ও ২৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর তৌফিক বকস্ লিপন, সাবেক ভারপ্রাপ্ত মেয়র ও ২৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আজম খান, ব্যবসায়ী এম এ মন্নান,  দক্ষিণ সুরমার ঝালোপাড়া পঞ্চায়েত কমিটির সাধারণ সম্পাদক জুনেদ আহমদ, পরিবহন শ্রমিক নেতা গোলাম হাফিজ লোহিত,  সমাজসেবী আব্দুস ছত্তার মামুন, আসাদুজ্জামান রনি, শাহীন মিয়া, এনাম আহমদ, আল মামুন, জিল্লুর রহমান, হেলাল আহমদ সংগ্রাম প্রমুখ।

গণশুনানিতে প্রশ্নের জবাবে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব মো. নজরুল ইসলাম বলেন, ঢাকা-সিলেট হাইওয়ে চারলেন প্রকল্পের কাজ শুরু করতে কাজ করছে সড়ক বিভাগ। আগামী অর্থবছরেই কাজ শুরু হবে। বিভিন্ন স্থানে ফ্লাইওভার নির্মাণসহ বেশ কিছু কারিগরি বিষয় সম্পন্ন করা হচ্ছে। এগুলো শেষ হলেই প্রধানমন্ত্রীর অগ্রাধিকার ভিত্তিতে এই প্রকল্পের কাজ করা হবে। এছাড়া তিন প্রতিষ্ঠানের অন্যান্য সমস্যাগুলোও সমাধানের আশ্বাস দেন তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ১৮১৯ ঘণ্টা, জুন ১৫, ২০১৯
এনইউ/এএটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   সিলেট
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-06-15 18:20:04