ঢাকা, সোমবার, ৪ আষাঢ় ১৪২৬, ১৭ জুন ২০১৯
bangla news

ফের আন্দোলনে যাচ্ছেন খুলনার পাটকল শ্রমিকরা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৪-০৭ ৮:১২:৫৯ পিএম
ফের আন্দোলনে যাচ্ছেন পাটকল শ্রমিকরা। ছবি: বাংলানিউজ

ফের আন্দোলনে যাচ্ছেন পাটকল শ্রমিকরা। ছবি: বাংলানিউজ

খুলনা: ফের আন্দোলনে যাচ্ছেন খুলনা অঞ্চলের রাষ্ট্রায়ত্ত ৯টি পাটকলসহ সারাদেশের ২২টি পাটকলের শ্রমিকরা।

বকেয়া মজুরি পরিশোধ এবং মজুরি কমিশন বাস্তবায়নসহ ৯ দফা দাবিতে তারা আবার আন্দোলনের ঘোষণা দিয়েছেন।

বাংলাদেশ পাটকল শ্রমিক লীগ এবং রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল সিবিএ-নন সিবিএ ঐক্য পরিষদ যৌথভাবে এ আন্দোলনে নামছে।

রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল সিবিএ-নন সিবিএ ঐক্য পরিষদের খুলনা অঞ্চলের যুগ্ম আহ্বায়ক  খলিলুর রহমান  জানান, দেশের রাষ্ট্রায়ত্ত সবগুলো পাটকলের শ্রমিক নেতারা রোববার (৭ এপ্রিল) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত এবং এরপর বিরতি দিয়ে বিকেল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ঢাকায় বৈঠক করেন। বৈঠকে ৯ দফা দাবি আদায়ে আন্দোলনে নামার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল সিবিএ-নন সিবিএ ঐক্য পরিষদের খুলনা অঞ্চলের আহ্বায়ক সোহরাব হোসেন জানান, আগামী ১২ এপ্রিল শিল্পাঞ্চলে শ্রমিক জনসভা অনুষ্ঠিত হবে। সেই জনসভা থেকে কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যে কর্মসূচি চূড়ান্ত করা হয়েছে তা হচ্ছে-আগামী ১৪ এপ্রিল গেট সভা, ১৫, ১৬, ১৭ ও ১৮ এপ্রিল পাটকল ধর্মঘট এবং প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত চারঘণ্টা করে সড়ক ও রেলপথ অবরোধ। ২৬ এপ্রিল শ্রমিক সমাবেশ, ২৭, ২৮ ও ২৯ এপ্রিল পাটকল ধর্মঘট এবং প্রতিদিন সকাল ৭টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত ছয় ঘণ্টা করে সড়ক ও রেলপথ অবরোধ।

পাটকল শ্রমিক নেতারা জানান, তাদের ৯ দফা দাবির মধ্যে রয়েছে নিয়মিত সাপ্তাহিক মজুরি ও বেতন প্রদান, সরকার ঘোষিত জাতীয় মজুরি ও উৎপাদনশীলতা কমিশন-২০১৫ বাস্তবায়ন, অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক কর্মচারীদের পিএফ-গ্রাচ্যুইটি ও মৃত শ্রমিকদের বিমার বকেয়া প্রদান, টার্মিনেশন ও বরখাস্ত শ্রমিকদের কাজে পুনর্বহাল, সেটআপ অনুযায়ী শ্রমিক-কর্মচারীদের নিয়োগ ও স্থায়ী করা, মৌসুমে পাট কেনার জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দ, উৎপাদন বাড়ানোর লক্ষ্যে মিলগুলোকে পর্যায়ক্রমে বিএমআরই করা প্রভৃতি।

শ্রমিক নেতারা জানান, ৯ দফা দাবিতে তারা ২ এপ্রিল থেকে টানা ৭২ ঘণ্টা পাটকল ধর্মঘট এবং সড়ক-রেলপথ অবরোধ কর্মসূচি পালন করেন। এর মধ্যে বিজেএমসি থেকে মজুরি কমিশন বাস্তবায়ন সংক্রান্ত একটি চিঠি পাটকলগুলোতে পাঠানো হয়। কিন্তু সেই চিঠিতে মজুরি কমিশন কবে থেকে কার্যকর করা হবে তা সুনির্দিষ্টভাবে উল্লেখ নেই। সে কারণে তারা আবারও আন্দোলনে নামতে বাধ্য হচ্ছেন।

পাটখাতে প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দ, বকেয়া মজুরি-বেতন পরিশোধ, জাতীয় মজুরি ও উৎপাদনশীলতা কমিশনের রোয়েদাদ ২০১৫ কার্যকর, অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক-কর্মচারীদের পিএফ ও গ্র্যাচুইটির অর্থ পরিশোধসহ ৯ দফা বাস্তবায়নের দাবিতে গত ১ এপ্রিল থেকে পাটকল শ্রমিক লীগ, সিবিএ-নন সিবিএ ঐক্য পরিষদ লাল পতাকা মিছিল ও বিক্ষোভ, ৭২ ঘণ্টা ধর্মঘট, রাজপথ-রেলপথ অবরোধসহ চারদিনের কর্মসূচি পালন করেছে। এতো আন্দোলনের পর ফলাফল শূন্য থাকায় শ্রমিকরা ফের আন্দোলনে নামছেন।

বাংলাদেশসময়: ১৯৫৯ ঘণ্টা, এপ্রিল ০৭, ২০১৯
এমআরএম/এএটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   খুলনা
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-04-07 20:12:59