ঢাকা, বুধবার, ৮ আশ্বিন ১৪২৭, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪ সফর ১৪৪২

কৃষি

লিচুর বাগানে মুকুলের সমারোহ, বাম্পার ফলনের আশা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪১৬ ঘণ্টা, এপ্রিল ৪, ২০১৯
লিচুর বাগানে মুকুলের সমারোহ, বাম্পার ফলনের আশা

মাগুরা: বসন্তের আগমনের সঙ্গে সঙ্গে মুকুলে ভরে উঠেছে মাগুরার লিচু বাগানগুলো। গাছগুলোতে সদ্য ফোঁটা মুকুল নতুন স্বপ্ন দেখাচ্ছে চাষিদের। তাদের আশা আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে ও প্রকৃতিক কোনো দুর্যোগ না হলে এবার লিচুর বাম্পার ফলন হবে।

মাগুরা কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগ জানায়, এ বছর মাগুরায় ৭৫০ হেক্টর জমিতে লিচু চাষ করা হচ্ছে। প্রধানত মাগুরার ইছাখাদা, আলমখালি, রাঘবদাইড়, পাকা কাঞ্চনপুর, আলাইপুর, আবালপুর, কাশিনাথপুর এবং বেরইল এলাকার প্রায় ২০০০ লিচু বাগানে মুকুলে ভরে গেছে।

সাধারণত মাগুরায় চায়না-৩, বোম্বে, মুজাফ্ফরাবাদী, হাজরাপুরি, মাদ্রাজি লিচুর চাষ বেশি দেখা যায়। যদি আবহাওয়া অনুকূলে থাকে তবে মাগুরায় এ বছর ২৫ কোটি টাকার লিচু বাণিজ্য হবে বলে।

মাগুরা হাজরাপুর এলাকার কৃষক দবির উদ্দিন বাংলানিউজকে বলেন, এবার আমার দুই বিঘা জমির লিচু বাগানে প্রচুর মুকুল এসেছে। সবকিছু ঠিক থাকলে এ বছর কমপক্ষে ২ লাখ টাকার লিচু বিক্রি করবো।

রাজবাড়ি থেকে আসা লিচু ব্যাপারী শহিদুর ইসলাম বাংলানিউজকে বলেন, আমি মাগুরার বেরইল এলাকায় এ বছরের জন্য দেড় লাখ টাকায় একটি বাগান লিজ নিয়েছি। আশা করছি এ বাগান থেকে এক লাখ টাকা লাভ করতে পারব।

মাগুরা কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের কর্মকর্তা রুহুল আমিন বাংলানিউজকে বলেন, আমরা প্রথম থেকেই কৃষকদের ভালো ফলনের জন্য পরামর্শ দিয়ে আসছি। কীটপতঙ্গের হাত থেকে রক্ষা পেতে কিভাবে ফেরেমন ট্র্যাপ ব্যবহার করতে হবে তা হাতে কলমে শিখিয়েছি। এছাড়া সারের ব্যবহার এবং মুকুল সংরক্ষণের জন্য সব ধরণের পরামর্শ আমরা দিয়েছি।

অপর কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন বাংলানিউজকে বলেন, আমরা সব সময় কৃষকের পাশে আছি। যদি কোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগ না আসে তবে মাগুরায় এবার লিচুর বাম্পার ফলন হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১০১৪ ঘণ্টা, এপ্রিল ০৪, ২০১৯
এনটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa