ঢাকা, শুক্রবার, ৮ ভাদ্র ১৪২৬, ২৩ আগস্ট ২০১৯
bangla news

বাণিজ্যমেলায় দেশি স্টলে বিক্রির ধুম, বিদেশি স্টলে সেলফি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০২-০৫ ৮:০৩:৪৬ পিএম
মেলায় তুর্কির স্টলে সেলফি তুলছেন এক দর্শনার্থী-ছবি-বাংলানিউজ

মেলায় তুর্কির স্টলে সেলফি তুলছেন এক দর্শনার্থী-ছবি-বাংলানিউজ

ঢাকা: বাংলায় যাকে বলে 'ঝাড়বাতি', তুর্কি ভাষায় সেটাকে বলে 'স্যান্ডেলিয়ার'। এই ধরনের ঘর সাজানোর জিনিসপত্র কাঁচ দিয়ে তৈরি হয়। বাণিজ্যমেলায় দেশীয় কোম্পানির এরকম স্টলে চলছে হরদম বিক্রি। অন্যদিকে একই ধরনের পণ্যের বিদেশি স্টলে রয়েছে শুধু দর্শনার্থীদের সেলফি তোলার প্রতিযোগিতা, নেই বেচাকেনা।

ক্রেতা ও বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বিদেশি ঝাড়বাতিগুলো দেখতে অনেক মনোরম হলেও শুধু দামের আধিক্যের জন্য এর বিক্রি কম হচ্ছে।

মঙ্গলবার (৫ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে চলমান আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা-২০১৯ ঘুরে দেখা গেছে এ চিত্র। 

মেলায় ঝাড়বাতির দুইটি দোকান রয়েছে। একটি হলো দেশীয় কোম্পানি 'অন্বেষা কর্পোরেশনে'র এবং অন্যটি সরাসরি তুর্কি থেকে আগত একটি বিদেশি কোম্পানির। এই দু’টি স্থানে রয়েছে ঝাড়বাতিসহ কাঁচ দিয়ে তৈরি মনোরম ডিজাইনের বিভিন্ন ধরনের ঘর সাজানোর উপাদান। যদিও দেশীয় কোম্পানিটির পণ্যগুলোর চেয়ে তুর্কির কোম্পানিটির পণ্যগুলো দেখতে বেশি সুন্দর এবং গুণগত মান ভালো।

বিক্রির বিষয়ে দেশীয় কোম্পানি অন্বেষা কর্পোরেশনের বিক্রেতা আজিজ বাংলানিউজকে বলেন, বিক্রি ভালোই চলছে। আমাদের পণ্যগুলো মূলত ড্রইং রুম সাজানোর জন্য। এগুলো কাঁচ দিয়ে তৈরি। যদিও আমাদের বিক্রির কোনো আশা ছিল না। কারণ আমরা শুধু প্রচারের জন্যই বাণিজ্যমেলায় অংশ নেয়। বিক্রি যা হচ্ছে তাই বোনাস এবং বোনাসটাই বেশি হচ্ছে। আমাদের সারাদেশে বিশেষ করে চট্টগ্রাম, সিলেট এবং ঢাকায় শোরুম রয়েছে। আমাদের ৫  হাজার থেকে শুরু করে ৪০ হাজার টাকার পর্যন্ত ঝাড়বাতি রয়েছে।

এই স্টলে মৌমিতা নামের এক ক্রেতা বলেন, ঝাড়বাতিগুলো সুন্দর। এছাড়া কাঁচের তৈরি আরো পণ্য আছে যেগুলো সুন্দর এবং দাম সহনীয়। এখান থেকে একটু পাশেই তুর্কির এরকম আরেকটি স্টল রয়েছে। তবে সেখানে দাম অনেক বেশি। যদিও ডিজাইনগুলো এখানকার চেয়ে সুন্দর। 

অন্যদিকে তুর্কি থেকে আগত এ কোম্পানিতে নিযুক্ত দেশীয় বিক্রেতারা ব্যস্ত রয়েছেন শুধু মানুষকে ছবি তুলতে না বলার ক্ষেত্রে। কেননা স্টলে ঢুকে মানুষ ছবি বা সেলফি তুলে স্টল থেকে বিদায় নিচ্ছে। এমনকি যাওয়ার সময় অনেকে শুধু দামটা জিজ্ঞেস করেই বেরিয়ে যাচ্ছে। 

বিদেশি এই স্টলে নিযুক্ত আল-আমিন নামের এক বিক্রেতা বাংলানিউজকে বলেন, আমাদের স্টলে জনসমাগম অনেক হচ্ছে। কিন্তু সবাই এসে শুধু ছবি তুলে এবং দাম জিজ্ঞেস করে বেরিয়ে যাচ্ছে। এই কোম্পানির তুর্কি প্রতিনিধিরা এভাবে শুধু ছবি তোলা দেখে বিরক্ত হয়ে এ কাজ বন্ধ করার নির্দেশনা দিয়েছে। তাই আমাদেরও প্রতিনিয়ত ছবি তুলতে নিষেধ করার জন্য বলতে হচ্ছে। তাছাড়া বিক্রি যে একেবারেই হয়নি তা নয় হয়েছে, তবে আশানুরূপ হয়নি।

এই স্টলে সেলফি তুলতে ব্যস্ত রিয়াজ নামের এক দর্শনার্থী বাংলানিউজকে বলেন, এখানে একটি স্যান্ডেলিয়ারের সর্বনিম্ন দাম ১৩ হাজার। দামটা আমাদের জন্য খুব বেশি বলেই পছন্দ হওয়া সত্ত্বেও কিনতে পারছি না। তবে পণ্যের গুণগত মান অনেক ভালো। কাঁচের উপর হাতে নকশা করে বানানো হয়েছে। আর সেলফি তোলার মনোভাব আমাদের সুন্দর জিনিস দেখলে অনেক বেড়ে যায়। আবার ব্যাকগ্রাউন্ডের জন্য ছবিও সুন্দর হয়। 

বাংলাদেশ সময়: ২০০১ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৫, ২০১৯
এমএএম/আরআর

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   বাণিজ্যমেলা
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-02-05 20:03:46