ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

অর্থনীতি-ব্যবসা

পরিচালন মুনাফা বেড়েছে অধিকাংশ ব্যাংকের

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৬৫৯ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০১৮
পরিচালন মুনাফা বেড়েছে অধিকাংশ ব্যাংকের

ঢাকা: দেশে বিনিয়োগে ভাটার টান থাকলেও বছর শেষে অধিকাংশ বাণিজ্যিক ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা বেড়েছে। মুদ্রাবাজারে টাকার প্রবাহও বেশি ছিল অনেক বেশি। তবে ঋণ প্রবৃদ্ধি প্রত্যাশার তুলনায় ছিলো কম। তবে সামষ্টিক অর্থনীতি স্থিতিশীল এবং আমদানির পরিমাণ বাড়লে  রফতানির তেমন প্রবৃদ্ধি হয়নি। তারপরও ব্যাংকগুলো আগের বছরের চেয়ে বেশি মুনাফা করেছে।

প্রতি বছরের ৩০ ডিসেম্বর বার্ষিক হিসাবায়ন চূড়ান্ত করা হলেও এবছর ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দিন নির্ধারণ হওয়ায় ব্যাংকগুলোর বার্ষিক হিসাব চূড়ান্তের সময় তিনদিন এগিয়ে ২৭ ডিসেম্বর করে বাংলাদেশ ব্যাংক।  তারপরও নির্ধারিত সময়ে অধিকাংশ ব্যাংকই বার্ষিক হিসাবায়ন চূড়ান্ত করতে পারেনি।

চতুর্থ প্রজন্মের সাউথ-বাংলা এগ্রিকালচার অ্যান্ড কমার্স (এসবিএসি) ব্যাংকের ২০১৮ সালে ২০৫ কোটি টাকা পরিচালন মুনাফা করেছে, এর আগের বছরে ব্যাংকের মুনাফা ছিল ১৮২ কোটি টাকা।  সে হিসেবে চলতি বছরে ব্যাংকের মুনাফা বেড়েছে ২৩ কোটি টাকা বা ১২ দশমিক ৬৩ শতাংশ।

বেসরকারি খাতের সাউথইস্ট ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা হাজার কোটি ছাড়িয়েছে। ২০১৭ সালে ব্যাংকটির পরিচালন মুনাফা ছিল ৯০৬ কোটি টাকা।

শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক মুনাফা করেছে ৪৭৫ কোটি টাকা। ২০১৭ সালে ব্যাংকটির পরিচালন মুনাফা ছিল ৩৫৮ কোটি টাকা।

এক্সিম ব্যাংকের পরিচালন মুনাফার পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৭০০ কোটি টাকার বেশি। ২০১৭ সালে ব্যাংকটি ৫৯৫ কোটি টাকার পরিচালন মুনাফা করেছিল।

ফারমার্স ব্যাংক ছাড়া ভালো পরিচালন মুনাফা পেয়েছে নতুন প্রজন্মের ব্যাংকগুলোও। মধুমতি ব্যাংক চলতি বছর ২০০ কোটি টাকার বেশি মুনাফা করেছে। ২০১৭ সালে ব্যাংকটির মুনাফা ছিল ১৪৬ কোটি টাকা।

ন্যাশনাল ক্রেডিট অ্যান্ড কর্মাস ব্যাংক লিমিটেডের পরিচালন মুনাফার পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৬৫৫ কোটি টাকায়।  ২০১৭ ব্যাংকটির পরিচালন মুনাফা ছিলো ৫৩৫ কোটি টাকা।

প্রিমিয়ার ব্যাংক মুনাফা করেছে ৬১৮ কোটি টাকা। ২০১৭ সালে ব্যাংকটির পরিচালন মুনাফা ছিলো ৪৫০ কোটি টাকা।

এনআরবি কর্মাশিয়াল ব্যাংক মুনাফা করেছে ২০৩ কোটি টাকা। ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা ২২১ কোটি টাকা থেকে কমে ১২৮ কোটি টাকায় নেমে এসেছে।

স্যোশাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড পরিচালন মুনাফা করেছে ২৭৫ কোটি টাকা। ২০১৭ সালের জুন শেষে ব্যাংকটির পরিচালন মুনাফা ছিলো ২৫৫ কোটি টাকা। বেসরকারি খাতের সাউথইস্ট ব্যাংক গত ছয় মাসে পরিচালন মুনাফা করেছে ৪৫৬ কোটি টাকা।  ২০১৭ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত পরিচালন মুনাফা ছিলো ৪১১ কোটি টাকা।

রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন সোনালী ব্যাংক ২০১৮ সালে মুনাফা করেছে ১ হাজার ৯০০ কোটি টাকা। ২০১৭ সালে সোনালী ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা ছিল ১ হাজার ২০৬ কোটি টাকা।

অগ্রণী ব্যাংক করেছে ৯০০ কোটি টাকা, ২০১৭ সালে ব্যাংকটির পরিচালন মুনাফা ছিলো ৭১৭ কোটি টাকা।

৩৬৯ কোটি টাকা পরিচালন মুনাফা পেয়েছে রাষ্ট্রায়ত্ত রূপালী ব্যাংক।  মুনাফার পরিমান গত বছরের চেয়ে কমলেও লোকসানি শাখাও কমেছে রূপালী ব্যাংকের।  ২০১৭ সাল শেষে ৩৩টি লোকসানি শাখা থাকলে ২০১৮ সালের শেষে এসে দাঁড়িয়েছে মাত্র ৯টিতে।  

বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক লিমিটেড (বিডিবিএল) পরিচালন মুনাফা পেয়েছে ১১৬ কোটি টাকা।  ২০১৭ সালে বিডিবিলের মূনাফা ছিলো ১১৫ কোটি টাকা।

পরিচালন মূনাফাই ব্যাংকের প্রকৃত মুনাফা নয়। এর থেকে প্রয়োজনীয় প্রভিশনের পরে যে অর্থ থাকবে তা থেকে করের টাকা আলাদা করার পর নিট মুনাফা বেরিয়ে আসে।  বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) নির্দেশনা অনুযায়ী, কোনো ব্যাংক তাদের অনিরীক্ষিত পরিচালন মুনাফা প্রকাশ করতে পারে না। এ কারণে ব্যাংকগুলোর অভ্যন্তরীণ বিভিন্ন সূত্র থেকে পরিচালন মুনাফার এসব তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ০১৫৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০১৮
এসই/আরআর/এসএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa