[x]
[x]
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৩ কার্তিক ১৪২৫, ১৮ অক্টোবর ২০১৮
bangla news

১০ শতাংশ হারে মজুরি বৃদ্ধির দাবি গার্মেন্ট শ্রমিকদের

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-১০-১২ ২:৩৬:১২ পিএম
গার্মেন্ট শ্রমিকদের প্রতীকী অনশন। ছবি: জিএম মুজিবুর

গার্মেন্ট শ্রমিকদের প্রতীকী অনশন। ছবি: জিএম মুজিবুর

ঢাকা: প্রতিবছর ১০ শতাংশ হারে মজুরি বৃদ্ধি, মূল মজুরি বাড়িয়ে ৭০ শতাংশ করার দাবি জানিয়েছে গার্মেন্টস শ্রমিকরা। একইসঙ্গে তারা ঘোষিত মজুরি পুনর্বিবেচনা করার দাবিও জানিয়েছে।

শুক্রবার (১২ অক্টোবর) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত এক প্রতীকী অনশন কর্মসূচিতে এমন দাবি জানানো হয়।

জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন (এনজিডব্লিউএফ) আয়োজিত এ কর্মসূচিতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠন সভাপতি আমিরুল ইসলাম আমিন।

তিনি বলেন, তুরস্কে গার্মেন্টস শ্রমিকদের মজুরি ৫১৭ ডলার, শ্রীলংকায় ১৯৭ ডলার, চীনে ১৬৫ ডলার, ভিয়েতনামে ১১৬ ডলার, পাকিস্তানে ১১৯ ডলার। বাংলাদেশে সরকারি কর্মচারীদের ন্যূনতম বেতন ১৭ হাজার টাকা, সরকারি শ্রমিকদের ন্যূনতম বেতন ১৫ হাজার টাকা। বেসরকারি ট্যানারি শ্রমিকদের ন্যূনতম বেতন ১২ হাজার ৮শ টাকা, জাহাজ ভাঙা শ্রমিকদের বেতন ১৬ হাজার টাকা। কিন্তু দেশের সবচাইতে বড় এবং লাভজনক খাত গার্মেন্টস শ্রমিকদের ন্যূনতম বেতন ৮ হাজার টাকা! এটা অপ্রতুল এবং অগ্রহণযোগ্য। কাজে এটা বৃদ্ধি করতে হবে।

প্রতীকী অনশন কর্মসূচিতে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সভাপতি শহিদুল্লা চৌধুরী, শ্রমিক নিরাপত্তা ফোরামের সদস্য সচিব সৈয়দ সুলতান উদ্দিন আহম্মেদ প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, ১৯৯৪, ২০০৬ এবং ২০১০ সালে মূল মজুরি বা বেসিক ছিল ৬৫ শতাংশ। সেখানে ২০১৮ সালে মূল মজুরি করা হয়েছে ৫১ শতাংশ। এতে তুলনামূলকভাবে আগের চেয়ে বোনাস, ওভারটাইম, টার্মিনেশন বেনিফিট, ক্ষতিপূরণ ইত্যাদি কমে গেছে। তাই এটা বাড়িয়ে ৭০ শতাংশ করতে হবে। একইসঙ্গে প্রতি বছর ১০ শতাংশ হারে মজুরি বাড়াতে হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৩৬ ঘণ্টা, অক্টোবর ১২, ২০১৮
ইইউডি/জিপি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache