[x]
[x]
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৫ আশ্বিন ১৪২৫, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮
bangla news

খড়ের দাম চড়া!

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৮-২০ ৯:০৯:৪২ এএম
চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে এ গো-খাদ্য। ছবি: বাংলানিউজ

চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে এ গো-খাদ্য। ছবি: বাংলানিউজ

লক্ষ্মীপুর: ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে হাটগুলোতে চলছে পশু বেচা-কেনা। হাট থেকে গরু-ছাগল কেনাও অনেকেই ইতোমধ্যে শেষ করেছেন। তবে সংরক্ষণে নেই পশু খাদ্যের। এখন হাটের খড়ই একমাত্র ভরসা। যে কারণে চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে এ গো-খাদ্য।

চড়া দাম পাওয়ার প্রতিবছর কোরবানিকে সামনে রেখে লক্ষ্মীপুরে কিছু মৌসুমি খড় ব্যবসায়ীর তৎপরতা বাড়ে। তারা চড়া দামে বিক্রি করেন খড়। এবার প্রতিকেজি খড় ১শ’ টাকায় ও প্রতি রিকশা খড় ছয় হাজার থেকে সাড়ে ছয় হাজার টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বর্ষা মৌসুমের শেষে দিকে গবাদিপশুর শুকনো খাবার সংকট দেখা দেয়। এ সময় বৃষ্টির পানিতে মাঠের ঘাসও ডুবে থাকে।

এদিকে কোরবানি ঘিরে বেড়েছে পশুর চাপ। এ পরিস্থিতির কারণে খড়ের দাম বেড়েছে। এখন পশুর হাটকে ঘিরেই খড় ব্যবসা জমজমাট। হাটের আশ-পাশে ছোট-ছোট মুঠি করে বিক্রি করা হচ্ছে খড়। চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে এ গো-খাদ্য। ছবি: বাংলানিউজপ্রতি মুঠি বিক্রি করা হচ্ছে ৩শ টাকায়। এক মুঠিতে তিন থেকে চার কেজি খড় থাকে। প্রতিকেজি খড়ের দাম পড়ে ১শ টাকা। গরু বাজারের আশ-পাশে ছাড়াও শহরের অলি-গলিতে খড় বিক্রি করতে দেখা যাচ্ছে। ঈদের আগের দিন মধ্য রাত পর্যন্ত বেচা-বিক্রি হবে খড়।

লক্ষ্মীপুরের দালাল বাজারের মৌসুমী খড় বিক্রেতা আবুল কাশেম বাংলানিউজকে জানান, প্রতিবছর পশু কোরবানির আগে বিক্রি করতে খড় সংরক্ষণ করেন। এ সময় দামও ভালো পাওয়া যায়।

খড় ক্রেতা মাইন উদ্দিন জানান, গরু কেনা হয়েছে। পারিবারের কেউ কৃষি কাজের সঙ্গে জড়িত না থাকায় বাড়িতে খড় নেই। এখন গরুর জন্য চড়া দাম দিয়ে খড় কিনতে হচ্ছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯০৭ ঘণ্টা, আগস্ট ২০, ২০১৮
এসআর/এএটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   লক্ষ্মীপুর
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa