[x]
[x]
ঢাকা, রবিবার, ৬ কার্তিক ১৪২৫, ২১ অক্টোবর ২০১৮
bangla news

শেষ কর্ম দিবসে ব্যাংকগুলোতে উপচেপড়া ভিড়

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৬-১৪ ৪:১৯:০২ এএম
সোনালী ব্যাংকে গ্রাহকদের ভিড়। ছবি: বাংলানিউজ

সোনালী ব্যাংকে গ্রাহকদের ভিড়। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: একদিন বন্ধ থাকার পর আবার শুরু হচ্ছে ঈদের লম্বা ছুটি। দীর্ঘ ছুটির সময় ব্যাংকের কাউন্টার লেনদেন বন্ধ থাকবে। এটিএম বুথ ও মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে গ্রাহক শুধু টাকা তুলতে পারবেন। জমা দিতে পারবেন না। এ কারণে ঈদের আগে শেষ কর্মদিবস রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে ব্যাংকের শাখগুলোতে ছিল গ্রাহকের উপচেপড়া ভিড়।

বৃহস্পতিবার (১৪ জুন) সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত মতিঝিলে বিভিন্ন ব্যাংকের শাখায় গিয়ে দেখা গেছে টাকা জমা দিতে ও তোলার জন্য ব্যাংকে ভিড় করেছিল। আবার গ্রাহকের লাইন ছিল নতুন নোটের জন্য।

সোনালী ব্যাংকের লোকাল শাখায় দেখা যায়, টাকা জমা ও তোলার জন্য গ্রাহকদের দীর্ঘ লাইন। অনেকেই টাকা তুলে নিচ্ছেন বাড়ি যাওয়ার জন্য। আবার অনেকেই জমা দিচ্ছেন। বুধবার লাইলাতুল কদরের ছুটির কারণে ব্যাংক থাকায় টাকা বন্ধ জমা দিতে পারেননি, তারা এসেছেন টাকা জমা দিতে।

রমজান উপলক্ষে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশে ব্যাংকিং লেনদেনের সময়সীমা নির্ধারণ করা হয় সকাল সাড়ে নয়টা থেকে বেলা আড়াইটা পর্যন্ত। এই সময়ের মধ্যে টাকা জমা দিতে সকাল থেকেই ব্যাংকগুলোতে গ্রাহকরা ভিড় করতে শুরু করেন।

রাজধানীর মতিঝিলের সোনালী ব্যাংকের স্থানীয় শাখা, ঢাকা ব্যাংকের স্থানীয় শাখা, রূপালী ব্যাংকের স্থানীয় শাখা ও এক্সিম ব্যাংকের মতিঝিল শাখায় সকালে গিয়ে গ্রাহকের দীর্ঘ লাইন দেখা যায়।

এ সময় রূপালী ব্যাংকের স্থানীয় শাখায় কথা হয় সায়মা ট্রেডাসের রফিকুল ইসলামের সঙ্গে। তিনি বাংলানিউজকে বলেন,  বুধবার ব্যাংক বন্ধ ছিল। কাল থেকে শুরু হচ্ছে  ঈদের দীর্ঘ ছুটি, গতকালের বেচা-কেনার টাকা সকাল সকাল জমা দিতে এসেছি।

সোনালী ব্যাংকের লোকাল কার্যালয়ে কথা হয় বাবুল হোসেনের সঙ্গে। তিনি বলেন, ঈদের ছুটিতে ভারত ভ্রমণে যাবেন। বেনাপোল বর্ডারে ভ্রমণ করের টাকা জমা দিতে অনেক ভোগান্তি, তাই তিনি সোনালী ব্যাংকে জমা দিতে এসেছেন।

সোনালী ব্যাংকের লোকাল কার্যালয়ের উপ মহাব্যবস্থাপক বেগম মাসুমরা আক্তার বলেন,  বুধবার ব্যাংক বন্ধ ছিল। বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হচ্ছে ঈদের ছুটি। যে কারণে ব্যাংকে টাকা জমা ও তোলার হিড়িক পড়েছে। অনেকেই টাকা তুলে বাড়ি যাচ্ছেন। আবার অনেকেই নিরাপদে থাকার জন্য টাকা জমা দিতে এসেছেন। আবার নতুন টাকা নিতেও ভিড় করছেন গ্রাহকরা।

২৯ রোজা ধরে শুক্রবার ১৪ জুন থেকে শুরু হচ্ছে ঈদুল ফিতরের ছুটি। এ কারণে ব্যাংক বন্ধ থাকবে ১৬ জুন রোববার পর্যন্ত। আবার রোজা ৩০টি হলে ছুটি বাড়বে সোমবার পর্যন্ত। একই সময়ে বন্ধ থাকবে শেয়ারবাজারে লেনদেনও।

বাংলাদেশ সময়: ১৪১১ ঘণ্টা, জুন, ১৪, ২০১৮
এসই/এএটি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache