ঢাকা, সোমবার, ৬ শ্রাবণ ১৪২৬, ২২ জুলাই ২০১৯
bangla news

নেপালি পণ্যে আকৃষ্ট পর্যটকরা

ইসমেত আরা, নিউজরুম এডিটর | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭-০৩-১০ ৬:৫৯:৫১ পিএম
নেপালি পণ্যে আকৃষ্ট পর্যটকরা

নেপালি পণ্যে আকৃষ্ট পর্যটকরা

পোখারা (নেপাল থেকে): রাস্তার দু’পাশে সারি বেধে দাঁড়িয়ে রয়েছে ছোট ছোট দোকান। কোনটিতে রয়েছে রং-বেরংয়ের জামা-কাপড়, কোনটিতে বিভিন্ন ডিজাইনের ব্যাগ, কোথাও আবার নজরকাড়া সব গহনা। এছাড়াও রয়েছে গৃহস্থালী সামগ্রী, জুতা, উপহার সামগ্রী সহ হরেক রকমের জিনিসপত্র।

বাহারি সব পণ্যের সমাহার নিয়ে এভাবেই ক্রেতাদের আকৃষ্ট করছেন নেপালের ব্যবসায়ীরা। স্থানীয়ভাবে তৈরি এসব পণ্যের প্রতি পর্যটকদেরও রয়েছে আগ্রহ। তাইতো চোখে পড়া মাত্রই দোকানে গিয়ে জিনিসপত্র নেড়েচেড়ে দেখছেন, পছন্দ করছেন, দরদামে মিললে কিনেও নিচ্ছেন।

শুক্রবার (১০ মার্চ) নেপালের পর্যটন কেন্দ্র পোখারার বিভিন্ন দোকান ঘুরে দেখা গেল এমন চিত্র।নেপালি পণ্যে আকৃষ্ট পর্যটকরা-ছবি: সোহেল সরওয়ারভ্রমণের প্রয়োজনীয় উপকরণাদি কেনার পাশাপাশি প্রিয়জনের জন্য উপহারও কিনছেন কেউ কেউ। তাইতো কনকনে ঠান্ডা আর টিপটিপ বৃষ্টির মধ্যেও নেপালি পণ্য কিনতে ছিল পর্যটকদের ভিড়।পোখারার স্থানীয় ব্যবসায়ীরা জানান, এখানে স্থানীয়ভাবে তৈরি পণ্যসামগ্রী বিক্রি করা হয়। এর মধ্যে জামাকাপড়, গহনা বেশি বিক্রি হয়। তবে নেপালি টুপির প্রতি পর্যটকদের আগ্রহ বেশি। প্রায় সব পর্যটকই বেড়াতে এলে ঐতিহ্যবাহী নেপালি টুপি কিনে নিতে ভুলেন না।নেপালি পণ্যে আকৃষ্ট পর্যটকরা

এর মধ্যে মেয়েদের জামা বিক্রি হচ্ছে ৫০০ থেকে ১৫০০ নেপালি রুপিতে, শাল ৬০০ থেকে ২২০০ রুপি, ব্যাগ ৫০০ থেকে ২ হাজার, ছেলেদের টি-শার্ট ৩৫০ রুপি, নেপালি টুপি ২০০ রুপিতে। এছাড়া নজরকাড়া সব গহনা বিক্রি হচ্ছে ১০০ থেকে ৫ হাজার রুপিতে।

সঞ্জয় অধিকারী নামে এক ব্যবসায়ী বাংলানিউজকে জানান, আমাদের এখানকার প্রতিটি পণ্য স্থানীয়ভাবে তৈরি হয়। তাই এসব পণ্যের প্রতি পর্যটকদের অন্যরকম আকর্ষণ রয়েছে। বেড়াতে এলেই তারা কিছু না কিছু কিনে নিয়ে যান। প্রায় প্রতিদিনই ২০ থেকে ৩০ হাজার রুপির জিনিসপত্র বিক্রি হয়। ভরা মৌসুমে লাখ রুপির পণ্যসামগ্রীও বিক্রি হয়।

তবে জিনিসপত্রের দাম কিছুটা বেশি বলে জানালেন বাংলাদেশ থেকে নেপাল ভ্রমণে আসা এক পর্যটক। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আনিকা বাংলানিউজকে বলেন, এখানকার জিনিসপত্রের মান ভাল, দেখতেও সুন্দর। তবে দাম কিছুটা বেশি মনে হচ্ছে। পর্যটক হওয়ায় বিক্রেতারাও দাম ছাড়ছেন না। কি আর করা, নেপাল ভ্রমণে যখন এসেছি প্রিয়জনদের জন্য কিছু উপহার তো নিয়ে যেতেই হবে। তাই কেনাকাটা করতে এসেছি।

বাংলাদেশ সময়: ০৬০০ ঘণ্টা, মার্চ ১১, ২০১৭
আইএসএ/টিসি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পর্যটন বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
cache_14 2017-03-10 18:59:51