bangla news

এক সপ্তাহ পর চাঙ্গা পুঁজিবাজার

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১১-০৮-০৩ ১:২১:০৫ এএম

টানা এক সপ্তাহ পর বুধবার দেশের দুই পুঁজিবাজার চাঙ্গা হয়েছে। এদিন লেনদেন শেষে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের(ডিএসই) সাধারণ সূচক বেড়েছে ১৯৬.৩৮ ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) ৩৩৬.০৯ পয়েন্ট।

ঢাকা: টানা এক সপ্তাহ পর বুধবার দেশের দুই পুঁজিবাজার চাঙ্গা হয়েছে। এদিন লেনদেন শেষে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের(ডিএসই) সাধারণ সূচক বেড়েছে ১৯৬.৩৮ ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) ৩৩৬.০৯ পয়েন্ট। একই সঙ্গে উভয় বাজারের বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের দাম বেড়েছে। তবে লেনদেন কমার ধারা অব্যাহত রয়েছে।

এদিন লেনদেনের শুরু থেকেই উভয় বাজারের সূচক ও বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের দাম বাড়তে থাকে। প্রথম আধঘণ্টায় ডিএসইতে ১৮৫টি প্রতিষ্ঠানের দাম ও সাধারণ সূচক ৭১.৫৯ পয়েন্ট বাড়ে। অপরদিকে সিএসইতে ১১১টি প্রতিষ্ঠানের দাম ও সাধারণ সূচক বাড়ে ২২০.১১ পয়েন্ট। দেড়ঘণ্টা শেষে ডিএসইতে সূচক বাড়ে ১৫৭.৬৮ ও সিএসইতে ২৪০.৪০ পয়েন্ট। এরই ধারাবাহিকতায় সূচক বেড়ে উভয় বাজারের লেনদেন শেষ হয়।

এর আগে টানা একসপ্তাহ উভয় পুঁজিবাজারে দরপতন হয়।

বুধবার লেনদেনের প্রথম ৭ মিনিটে ডিএসইর সাধারণ সূচক ১৩৬ পয়েন্ট বেড়ে ৬ হাজার ৩২৯ পয়েন্টে উন্নীত হয়। এরপর ১০টা ৩৭ মিনিট থেকে পৌনে ১১টা পর্যন্ত সূচক  ৪৪ পয়েন্ট কমে ৬ হাজার ২৮৫ পয়েন্টে অবস্থান করে। পরবর্তীতে ১০টা ৫৫ থেকে সূচক বাড়তে থাকে যা লেনদেন শেষ হওয়ার আগ পর্যন্ত অব্যাহত ছিল।

ডিএসইর ওয়েবসাইট সূত্রে জানা যায়, বুধবার ডিএসইতে লেনদেন হয় ২৫৮টি প্রতিষ্ঠানের। এর মধ্যে ২৪৮টির দাম বেড়েছে, ৮টির কমেছে এবং অপরিবর্তিত ছিল ২টি প্রতিষ্ঠানের দাম। একই সঙ্গে ডিএসইর সাধারণ সূচক ১৯৬.৩৮ পয়েন্ট বেড়ে উঠে আসে ৬ হাজার ৩৮৯.৩৩ পয়েন্টে। সার্বিক সূচক ১৬৪.৭০ পয়েন্ট বেড়ে উন্নীত হয় ৫ হাজার ৩৩৪.৩২ পয়েন্টে।

এদিন মোট ৭ কোটি ৫৩ লাখ ৪৯ হাজার ৩৯৩টি শেয়ার ১ লাখ ৩৪ হাজার ৯২ সংখ্যকবার লেনদেন হয়। যার বাজার মূল্য ৬১১ কোটি ৭৪ লাখ  ৩৭ হাজার টাকা। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছে ৮৪২ কোটি ২৬ লাখ ৩ হাজার টাকা।

লেনদেনের ভিত্তিতে(টাকায়) ডিএসইর শীর্ষ দশ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় রয়েছে- মালেক স্পিনিং, বেক্সিমকো, গ্রামীণফোন,  আরএন স্পিনিং,  এনবিএল, এমআই সিমেন্ট, ইউনাইটেড এয়ার, কেয়া কসমেটিকস, স্কয়ার টেক্সটাইলস ও গোল্ডেন সন।

অপরদিকে সিএসইর ওয়েবসাইট সূত্রে জানা যায়, বুধবার সিএসইতে লেনদেন হওয়া ১৮০টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১৬৭টির দাম বেড়েছে, ১১টির কমেছে এবং অপরিবর্তিত ছিল ২টি প্রতিষ্ঠানের দাম। পাশাপাশি সাধারণ সূচক ৩৩৬.০৯ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়ায় ১১ হাজার ৬২৯.৭৮ পয়েন্টে।

এদিন সিএসইতে লেনদেন হয় মোট ৭৬ কোটি ৮৫ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছে ৮৪ কোটি ৭৭ লাখ টাকা।

এর আগে টানা ছয় দিন দরপতনের কারণে মঙ্গলবার ডিএসইর মূল ফটকের সামনে বিনিয়োগকারীরা বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। এ সময় তারা অর্থমন্ত্রী ও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নরের পদত্যাগ দাবি করে নানা সেøাগান দেন। মঙ্গলবারও উভয় বাজারে ব্যাপক দরপতন হয়।

তবে ওইদিন সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (এসইসি) বিনিয়োগকারীদের কোনও ধরনের গুজবে আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ দেন। সরকার ও এসইসি বাজারে স্থিতিশীলতা ফেরাতে যথেষ্ট আন্তরিক ও তৎপর বলে জানান এসইসির নির্বাহী পরিচালক সাইফুর রহমান।

একই সঙ্গে কারসাজির সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে মামলা হওয়ার খবরে আতঙ্কিত না হওয়ার জন্য বিনিয়োগকারীদের পরামর্শ দেন তিনি।

প্রসঙ্গত, রমজান উপলক্ষে মঙ্গলবার থেকে দেশের উভয় শেয়ারবাজারের লেনদেন সকাল সাড়ে ১০টায় শুরু হয়। যা দুপুর দেড়টা পর্যন্ত চলে।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৪৫ ঘণ্টা, আগস্ট ০৩, ২০১১

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2011-08-03 01:21:05