bangla news

নাসডাক ও ফ্লেক্সট্রেডের সফটওয়্যার নিচ্ছে ডিএসই

87 |
আপডেট: ২০১৪-০৩-২২ ১:৪৬:০০ এএম

অবশেষে মার্কিন কোম্পানি নাসডাক ওএমএক্স’র ‘ট্রেড ম্যাচিং ইঞ্জিন’ এবং ফ্লেক্সট্রেড‘র কাছ থেকেই ‘ট্রেড অর্ডার ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম’ ক্রয় করছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) কর্তৃপক্ষ।

ঢাকা: অবশেষে মার্কিন কোম্পানি নাসডাক ওএমএক্স’র ‘ট্রেড ম্যাচিং ইঞ্জিন’ এবং ফ্লেক্সট্রেড‘র কাছ থেকেই ‘ট্রেড অর্ডার ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম’ ক্রয় করছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) কর্তৃপক্ষ।
 
সম্প্রতি রাজধানীর একটি হোটেলে নাসডাক ওএমএক্স ও ফ্লেক্সট্রেড কোম্পানির সঙ্গে চুক্তি সই করেছে ডিএসই।
 
এর আগে এ সফটওয়্যার ক্রয়ে প্রক্রিয়াগত অস্বচ্ছতার অভিযোগ করে বিএসইসিকে চিঠি দিয়েছিল সুইজারল্যান্ড ভিত্তিক নরডিক গ্রোথ মার্কেট এনএমজি এবি নামের একটি কোম্পানি।

কোম্পানির লিখিত এ অভিযোগের ভিত্তিতে ডিএসইকে এ ট্রেডিং প্লাটফর্ম ক্রয় কার্যক্রম বন্ধ রাখার মৌখিক নির্দেশনা দিয়েছিল বিএসইসি।
 
মার্কিন কোম্পানি নাসডাক ওএমএক্স’র কাছ থেকে ‘ট্রেড ম্যাচিং ইঞ্জিন’ এবং ফ্লেক্সট্রেড কোম্পানির কাছ থেকে ‘ট্রেড অর্ডার ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম’ ক্রয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ডিএসই কর্তৃপক্ষ।

ট্রেডিং প্ল্যাটফর্মের হার্ডওয়্যার ও সফটওয়্যার সরবরাহ এবং পরবর্তী পাঁচ বছরের রক্ষণাবেক্ষণের জন্য কোম্পানি দু’টি ডিএসই’র কাছে মোট ৭৫ কোটি টাকা চেয়েছে।
 
প্রতিষ্ঠান দু’টি মূলত বিশ্বের বিভিন্ন দেশে আর্থিক ও স্টক এক্সচেঞ্জের লেনদেন ব্যবস্থা-সম্পর্কিত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা এবং সেবা সরবরাহ করে। ডিএসই সংখ্যাগরিষ্ট ব্রোকার হাউজের সুপারিশে কোম্পানি দু’টির কাছ থেকে এ ট্রেডিং প্লাট ফর্ম কেনার সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে।
 
এ বিষয়ে ডিএসই’র পরিচালক শাকিল রিজভী বাংলানিউজকে বলেন, ডিএসই’র এ ট্রেডিং সিস্টেম ক্রয় প্রক্রিয়া বন্ধ রাখার জন্য বিএসইসির একটি মৌখিক নির্দেশনা ছিল। তবে তাদের কাছ থেকে কোনো লিখিত নির্দেশনা পাওয়া যায়নি।

ডিএসই’র বিরুদ্ধে যে প্রক্রিয়াগত অভিযোগ আনা হয়েছিল তাও সঠিক ছিল না বলে দাবি করেন তিনি।  
‌‌এনএমজি’র অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ডিএসইর ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) স্বপন কুমার বালা তার লিখিত জবাবে জানান,  মূলত নরডিক এনএমজি ডিএসই’র এ অটোমেটেড ট্রেডিং সিস্টেম চালুর বিষয়ে গঠিত ‘এক্সটারনাল এক্সপার্ট কমিটি’র শর্ত পূরণ করতে পারেনি।

তাছাড়া তাদের দেওয়া প্রশ্নোত্তর থেকে বুঝা যায় শেয়ার বাজারের সঙ্গে সংযুক্ত বিভিন্ন পরিভাষা সম্পর্কে কোনো ধারণা নেয়। যেমন- টিক সাইজ, লট সাইজ, ওপেন অ্যাডজাস্টেড প্রাইজ, ক্লোজ প্রাইজ, ট্রেড টু ট্রেড, বিদেশি লেনদেন, বাই ইন অকশন, আরএমএস, মাল্টি বোর্ড, মাল্টি উইন্ডো ইত্যাদি।
 
তিনি বলেন, মূলত এ কোম্পানিটি তৃতীয় মাধ্যম দিয়ে এ কাজটি করতে চেয়েছিল। বিশ্বের মাত্র দু’টি দেশের শেয়ার বাজারে তাদের সম্পৃক্ততা রয়েছে। তাই তারা যে অভিযোগটি করেছিল তা সঠিক ছিল না।

এমনকি পরবর্তীতে এ প্রক্রিয়াতে কোম্পানিটি তাদের নাম প্রত্যাহার করেছিল বলে তিনি জানান।
 
ডিএসই’র এমডি স্বপন কুমার বালা বলেন, আগামী দশ বছরের জন্য এ দুই কোম্পানির সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। চলতি বছরের এপ্রিল থেকে এর কার্যক্রম শুরু হবে। আশা করছি, নভেম্বরের মধ্যে এ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে।
 
চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে ডিএসই‘র ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. স্বপন কুমার বালা, চেয়ারম্যান বিচারপতি সিদ্দিকুর রহমান মিয়া, চিফ টেকনোলজি অফিসার খাইরুজ্জামান, নাসডাক ওএমএক্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রবার্ট ফজর্ড ও ফ্লেক্সট্রেডের বাটার্ন্ট রাচ্চাত উপস্থিত ছিলেন।
 
বাংলাদেশ সময়: ১১৩৭ ঘণ্টা, মার্চ ২২, ২০১৪

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2014-03-22 01:46:00