ঢাকা, বুধবার, ৫ আষাঢ় ১৪৩১, ১৯ জুন ২০২৪, ১১ জিলহজ ১৪৪৫

অর্থনীতি-ব্যবসা

সিসিকের সভায় অভিযোগকারীর মাইক্রোফোন কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা 

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১৩৭ ঘণ্টা, মে ২৩, ২০২৪
সিসিকের সভায় অভিযোগকারীর মাইক্রোফোন কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা 

সিলেট: হোল্ডিং ট্যাক্স বৃদ্ধি নিয়ে মতবিনিময় সভার আয়োজন করেছে সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক)। এসময় বক্তৃতাকালে এক নাগরিকের হাত থেকে মাইক্রোফোন কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন কাউন্সিলর।

এ নিয়ে মতবিনিময় সভায় উত্তেজনা ও হট্টগোল দেখা দিয়েছে।  

ঘটনার জেরে কয়েকজন কাউন্সিলর সাধারণ নাগরিকদের সঙ্গে বাগবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন।
 
বুধবার (২২ মে) রাত ৮টার দিকে নগরের আমান উল্লাহ কনভেনশন সেন্টারে এ ঘটনা ঘটে। যদিও পরে সিসিক মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।
 
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সিলেট সিটি করপোরেশনের (সিসিক) আওতাধীন পুরোনো ২৭টি ওয়ার্ডের সব হোল্ডিংয়ের অ্যাসেসমেন্ট/রি-অ্যাসেসমেন্ট করারোপের ঘটনায় ফুসে ওঠেন নগরবাসী। এ বিষয়ে নাগরিকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভার আয়োজন করে সিসিক।
 
মতবিনিময় সভার শুরুতে সিসিকের প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মতিউর রহমান আরোপিত গৃহকর তৈরির প্রেক্ষাপট নিয়ে একটি ডকুমেন্টারি প্রদর্শন শুরু করেন। উপস্থিত নাগরিকরা ডকুমেন্টারি বন্ধ করে মূল আলোচনায় যাওয়ার অনুরোধ করেন।
 
এসময় নুরুল ইসলাম দীনেশ নামে ব্যক্তি মাইক্রোফোন হাতে নিয়ে কথা বলার চেষ্টা করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সিসিকের ৩৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর জাহাঙ্গীর আলম তাকে বাধা দিয়ে হাত থেকে মাইক্রোফোন কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন। আরও কয়েকজন কাউন্সিলর সাধারণ নাগরিকদের সঙ্গে বাগবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন। এতে দুপক্ষের মধ্যে চরম উত্তেজনা ও হট্টগোল দেখা দেয়।
 
পরে সিসিক মেয়র মো. আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। এরপর সভার কার্যক্রম পুনরায় শুরু হয়।
 
গৃহকর নিয়ে সিসিকের আয়োজিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মৌলভীবাজার-২ আসনের সংসদ সদস্য শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল।
 
বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সুনামগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট রঞ্জিত সরকার, সিলেট-৩ আসনের সংসদ সদস্য হাবিবুর রহমান হাবিব এবং সংরক্ষিত মহিলা আসন-৩৯ এর সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা রুমা চক্রবর্তী।
 
মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মৌলভীবাজার-২ আসনের সংসদ সদস্য ও আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল বলেন, বর্তমান পরিষদ খুব আন্তরিকতার সঙ্গে নাগরিকদের সেবা দিয়ে যাচ্ছে। কর পরিশোধ করা নাগরিকদের দায়িত্ব। নিয়মিত কর পরিশোধ করলে সিটি করপোরেশন অনেক দূর এগিয়ে যাবে।  

তবে নাগরিকদের মতামতকে মূল্যায়ন করে সিসিক কর্তৃপক্ষকে যৌক্তিক ও প্রাসঙ্গিক এবং সহনীয় মাত্রায় কর ধার্য করার আহ্বান জানান তিনি।
 
শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল আরও বলেন, মেয়র আনোয়ারুজ্জানের নেতৃত্বে সিলেটে উন্নয়ন হচ্ছে- এটা আমাদের স্বীকার করতে হবে। তার মাধ্যমে একটি স্মার্ট নগর হিসেবে সমগ্র বাংলাদেশের মধ্যে অন্যতম একটি নগর হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হবে সিলেট।
 
তিনি আরও বলেন, সাহসিকতার সঙ্গে হকারমুক্ত ও পরিচ্ছন্ন নগর গড়তে পেরেছেন মেয়র আনোয়ারুজ্জান চৌধুরী। ঠিক একই ভাবে তিনি হোল্ডিং ট্যাক্স নিয়ে চলমান ইস্যুটি দ্রুত সমাধান করতে পারবেন।
 
সভাপতির বক্তব্যে মেয়র মো. আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী বলেন, দ্রুত কাউন্সিলরদের সঙ্গে সাধারণ সভা করে একটি যৌক্তিক সিদ্ধান্ত নিয়ে সহনীয় পর্যায়ে নিয়ে আসা হবে। সিলেটের নাগরিকদের মতামতের ভিত্তিতে সিলেট সিটি করপোরেশনের বর্তমান পরিষদ কাজ করবে।
 
তিনি আরও বলেন, আমরা এমন কোনো সিদ্ধান্ত নেব না, যেটি নাগরিকদের জন্য কষ্টকর হয়। আমরা নাগরিকদের মতামত মূল্যায়ন করে সহনীয় মাত্রায় কর নির্ধারণ করব।
 
মেয়র বলেন, বিষয়টি দ্রুত সমাধানের জন্য বৃহস্পতিবার রাত ৯টায় জরুরি সাধারণ সভা ডাকা হয়েছে। কাউন্সিলরদের সঙ্গে আলোচনা করে এ বিষয়ে একটি যৌক্তিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। আর নাগরিক সেবা দিতে সিসিকের কোনো স্টাফ যদি অসদাচরণ করেন, সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
 
এসময় মতামত দেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ আবু ফতেহ ফাত্তাহ, জাসদ নেতা অ্যাডভোকেট জাকির হোসেন, সিনিয়র সাংবাদিক মুকতাবিস উন নূর, সিলেট চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি তাহমিন আহমেদ, অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি মুহিত চৌধুরী, গণদাবি পরিষদ নেতা মকসুদ আহমেদ, বিশিষ্ট সমাজসেবী আবু তাহের, নুরুল ইসলাম দীনেশ, জেলা দোকান মালিক সমিতি আব্দুর রহমান রিপনসহ অনেকে।
 
মতবিনিময় সভায় সিলেট নগরের বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ বিশিষ্ট নাগরিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
 
বাংলাদেশ সময়: ০১৩৫ ঘন্টা, মে ২৩, ২০২৪
এনইউ/এসআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।