ঢাকা, বুধবার, ৫ আষাঢ় ১৪৩১, ১৯ জুন ২০২৪, ১১ জিলহজ ১৪৪৫

অর্থনীতি-ব্যবসা

আট প্রতিষ্ঠান পেলো বিএসইসির ‘স্বাধীনতা সুবর্ণজয়ন্তী পুরস্কার’

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০৫০ ঘণ্টা, মে ২৩, ২০২৪
আট প্রতিষ্ঠান পেলো বিএসইসির ‘স্বাধীনতা সুবর্ণজয়ন্তী পুরস্কার’

ঢাকা: পুঁজিবাজার মধ্যস্থতাকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে উৎসাহিত করতে ‘স্বাধীনতা সুবর্ণজয়ন্তী পুরস্কার ২০২৩’ দিয়েছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন।  

তিন ক্যাটাগরিতে আট প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী।

 

বুধবার (২২ মে) সন্ধ্যায় হোটেল প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁওয়ে পুঁজিবাজারে নারী ও ‘স্বাধীনতা সুবর্ণজয়ন্তী পুরস্কার ২০২৩’ শীর্ষক এক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে তিনি বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন।

এসময় স্পিকার বলেন, আমাদের দেশে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শীর্ষ পর্যায়ে দিন দিন নারীদের অংশগ্রহণ বাড়ছে। পুঁজিবাজার একটি বিশেষায়িত ক্ষেত্র, এখানে সম্ভাবনা অপার। কিন্তু পুঁজিবাজারে নারীদের অংশগ্রহণ বেশ কম। মোট যে বিও হিসাব আছে, তার ২৪ শতাংশ নারী। আমাদের পুঁজিবাজারে নারীদের অংশগ্রহণ বাড়াতে হবে।

তিনি বলেন, নারীদের ঝুঁকিমুক্ত বিনিয়োগের ব্যবস্থা করতে হবে। আমি আশাবাদী, পুঁজিবাজারে নারীরা এগিয়ে আসবে, নারীরা প্রতিটি ক্ষেত্রে এগিয়ে আসছে, পুঁজিবাজারেও পিছিয়ে থাকবে না।

অর্থ প্রতিমন্ত্রী ওয়াসিকা আয়শা খান বলেন, একটা দেশের অর্থনীতি শুধু মানি মার্কেট দিয়ে চলতে পারে না, পুঁজিবাজার হচ্ছে সে ক্ষেত্রে অর্থনীতির ড্রাইভার। বাজারে নারীদের ২৪ শতাংশ বিও একাউন্ট এবং বিনিয়োগও অনেক কম। নারীদের অংশগ্রহণ বাড়াতে বিএসইসি অনেক পদক্ষেপ নিয়েছে, এটাকে স্বাগত জানাই। কমোডিটি এক্সচেঞ্জ খুব শিগগিরই চালু হবে চট্টগ্রামে। এটা নিয়ে আমি আশাবাদী।

বিএসইসির চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলামের সভাপতিত্বে আলোচনায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন অর্থ প্রতিমন্ত্রী ওয়াসিকা আয়শা খান এবং অর্থসচিব মো. আব্দুর রহমান খান।

২০২৩ সালের স্বাধীনতা সুবর্ণজয়ন্তী পুরস্কারের জন্য পুঁজিবাজারে কর্মরত বাজার মধ্যস্থতাকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর কার্যক্রম বিচার-বিশ্লেষণের ভিত্তিতে স্টক ব্রোকার, মার্চেন্ট ব্যাংকার এবং অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি- মোট এ তিনটি ক্যাটাগরিতে বুধবার পুরস্কার দেয় বিএসইসি।

স্টক ব্রোকার বা স্টক ডিলার ক্যাটাগরিতে প্রথম স্থান অর্জন করেছে আইডিএলসি সিকিউরিটিজ লিমিটেড, দ্বিতীয় হয়েছে ব্র্যাক ইপিএল স্টক ব্রোকারেজ লিমিটেড এবং তৃতীয় স্থান অধিকার করেছে সান্তা সিকিউরিটিজ লিমিটেড।

মার্চেন্ট ব্যাংকার ক্যাটাগরিতে প্রথম স্থান অর্জন করেছে প্রাইম ব্যাংক ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড, দ্বিতীয় স্থান ইসলামি ব্যাংক ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড এবং সাউথ ইস্ট ব্যাংক ক্যাপিটাল সার্ভিসেস লিমিটেড তৃতীয় স্থান অর্জন করেছে।

অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি ক্যাটাগরিতে প্রথম স্থান অর্জন করেছে একাশিয়া এসআরআইএম লিমিটেড, দ্বিতীয় স্থান আইসিবি অ্যসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি লিমিটেড এবং এ ক্যাটাগরিতে তৃতীয় স্থান অর্জন করেছে।

এছাড়া বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের কর্মকর্তা/কর্মচারীদের শুদ্ধাচার পুরস্কার ২০২২-২০২৩ সালের জন্য তিনটি ক্যাটাগরিতে বিজয়ীরা হলেন ১৭তম ও গ্রেড ২০তম গ্রেডে মো. সুজন আলম, অফিস সহায়ক।

১০ম ও ১৬তম গ্রেড ক্যাটাগরিতে বিজয়ী হয়েছেন সমীর ঘোষ, ব্যক্তিগত কর্মকর্তা। দ্বিতীয় গ্রেড নবম গ্রেড ক্যাটাগরিতে বিজয়ী হন মোহাম্মদ রকিবুর রহমান, অতিরিক্ত পরিচালক।

আলোচনায় স্বাগত বক্তব্য দেন বিএসইসির কমিশনার ড. শেখ শামসুদ্দিন আহমেদ। অনুষ্ঠানে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন বিএসইসির কমিশনার ড. রুমানা ইসলাম।

বাংলাদেশ সময়: ০০৪৮ ঘণ্টা, মে ২৩, ২০২৪
এসএমএকে/এসআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।