bangla news

পুঁজিবাজারে আসার অনুমতি পেল মবিল যমুনা লুব্রিক্যান্টস

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১০-১০-০৩ ৬:৩৬:১৫ এএম

বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্তির অনুমোদন পেল মবিল যমুনা লুব্রিক্যান্টস বাংলাদেশ লিমিটেড (এমজেবিএল)। কোম্পানিটি পুঁজিবাজারে চার কোটি শেয়ার ছেড়ে প্রায় ৫০৮ কোটি টাকা মূলধন সংগ্রহ করবে।

ঢাকা: বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্তির অনুমোদন পেল মবিল যমুনা লুব্রিক্যান্টস বাংলাদেশ লিমিটেড (এমজেবিএল)। কোম্পানিটি পুঁজিবাজারে চার কোটি শেয়ার ছেড়ে প্রায় ৫০৮ কোটি টাকা মূলধন সংগ্রহ করবে।

রোববার সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (এসইসি) সভায় এ অনুমোদন দেওয়া হয়।

বুকবিল্ডিং পদ্ধতিতে  ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের কোম্পানির প্রতিটি শেয়ারের নির্দেশক মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১২৭ টাকা।

সভা শেষে এসইসি’র নির্বাহী পরিচালক আনোয়ারুল কবীর ভুঁইয়া সাংবাদিকদের জানান, বুকবিল্ডিং পদ্ধতির প্রাথমিক প্রক্রিয়া হিসেবে মবিল যমুনা লুব্রিক্যান্টের প্রতিটি শেয়ারের নির্দেশক মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১২৭ টাকা। সে হিসেবে কোম্পানিটি পুঁজিবাজার থেকে কমপক্ষে ৫০৮ কোটি টাকা সংগ্রহ করবে।
 
লুব্রিক্যান্টের পাশাপাশি রিফাইনারিসহ উন্নত প্রযুক্তির জ্বালানি উৎপাদনে বিনিয়োগের জন্য মবিল যমুনা লুব্রিক্যান্ট শেয়ার বাজারের মাধ্যমে অর্থ সংগ্রহ করছে। এজন্য কোম্পানির মোট শেয়ারের ২৮.৫৭ শতাংশ শেয়ার বিক্রি করা হচ্ছে। শেয়ারের চূড়ান্ত মূল্য নির্ধারণের জন্য দর প্রস্তাব প্রক্রিয়ায় প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের জন্য ৮০ লাখ, আইপিও’র মাধ্যমে ২ কোটি ৪০ লাখ, প্রবাসী বিনিয়োগকারীদের ৪০ লাখ এবং মিউচ্যুয়াল ফান্ডসহ যৌথ বিনিয়োগ স্কিমের জন ৪০ লাখ শেয়ার বরাদ্দ দেওয়া হবে।  

বুকবিল্ডিং পদ্ধতি অনুসারে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের দর প্রস্তাবের মাধ্যমে চূড়ান্ত মূল্য নির্ধারণের পর আইপিও’র মাধ্যমে এসব শেয়ার বিক্রি করা হবে।

সর্বশেষ আর্থিক বিবরণী অনুযায়ী, মবিল যমুনা লুব্রিক্যান্ট চলতি বছরের প্রথম তিন মাসে মোট ১২ কোটি ৩৮ লাখ ৭৮ হাজার ৫৭২ টাকা মুনাফা অর্জন করেছে। এর আগে ২০০৯ সালে কোম্পানির মুনাফার পরিমাণ ছিল ৩৪ কোটি ৩২ লাখ ৫১ হাজার ৭৮৯ টাকা। বর্তমানে কোম্পানির শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য ১১ টাকা ৭৩ পয়সা।

বিদেশি প্রকল্প হিসেবে নিবন্ধিত হয়ে ১৯৯৮ সালের ডিসেম্বরে মবিল যমুনা লুব্রিক্যান্ট যাত্রা শুরু করে। কোম্পানির অনুমোদিত মূলধন ১ হাজার কোটি টাকা। বর্তমানে পরিশোধিত মূলধনের পরিমাণ ১৪০ কোটি ৩২ লাখ টাকা। প্রাইম ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড ইস্যু ব্যবস্থাপকের দায়িত্ব পালন করছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭১৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ০৩, ২০১০

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2010-10-03 06:36:15