ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

ফের পার্থর জামিনের আবেদন খারিজ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০৩৪ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১, ২০২২
ফের পার্থর জামিনের আবেদন খারিজ

কলকাতা: দুর্নীতির অভিযোগে গ্রেফতার পশ্চিমবঙ্গের সাবেক শিক্ষামন্ত্রী তথা সাময়িকভাবে বহিষ্কৃত শিল্পমন্ত্রী এবং ক্ষমতাসীন তৃণমূল কংগ্রেসের জ্যেষ্ঠ নেতা পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের জামিন আবেদন ফের খারিজ করে দিয়েছেন দেশটির আদালত।

বুধবার (৩১ আগস্ট) পার্থর আইনজীবী আদালতকে বললেন, এখনও তার কাছ থেকে কিছু পাওয়া যায়নি।

দরকারে বাড়িতেই বন্দি হয়ে থাকবেন তিনি। তবে যেকোনও মূল্যে জামিন চাইছেন তারা। এদিন পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের জামিন জন্য জোরালো আবেদন করলেও তার ঘনিষ্ঠ বান্ধবী অর্পিতা মুখোপাধ্যায় আদালতে জামিনের কোনো আর্জি জানাননি।

এদিন আদালতে পার্থর আইনজীবী বলেন, পার্থ অসুস্থ। তিনি আর প্রভাবশালী নন। কোনও পদেও নেই। তাছাড়া তার বাড়ি থেকেও কিছু পাওয়া যায়নি। ফলে তার জামিন পেতে অসুবিধা হওয়ার কথা নয়। তাকে জামিন দেওয়া হোক।  

এদিকে পার্থের আইনজীবীদের এ যুক্তির বিপক্ষে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটরের (ইডি) আইনজীবী বলেছেন, আরও ২৫টি ব্যাংক অ্যাকাউন্টের খোঁজ পাওয়া গিয়েছে। এছাড়া আরও ১০০টি অ্যাকাউন্ট নজরে রয়েছে। সুতরাং পার্থকে জামিন দেওয়া যাবে না।

এরপর আদালতে পার্থর আইনজীবীর জামিন চেয়ে বলেন, তিনি অসুস্থ। তার চিকিৎসা প্রয়োজন। দরকার হলে বাড়িতে রেখেই তার চিকিৎসা করা হোক।

এদিকে পার্থের কাছ থেকে কিছু পাওয়া যায়নি বলে যে যুক্তি তার আইনজীবীরা দিয়েছিলেন- তার বিরোধিতা করে ইডির আইনজীবী বলেন, বেশ কিছু ভুয়া সংস্থা এবং সম্পত্তির নথি পাওয়া গিয়েছে। সেই সব সম্পত্তি ভুয়া একটি সংস্থার নামে কেনা হয়েছে। এর পাশাপাশি বাজারে শেয়ার ছেড়ে ‘সিম্বায়োসিস’ নামে সংস্থাটির কালো টাকা সাদা করা হয়েছে। সেই শেয়ার ২ দশমিক ৭ কোটি রুপিতে বিক্রি করা হয়েছে বলেও ইডির আইনজীবীর দাবি করেন।  

প্রসঙ্গত, এর আগে ইডি তরফে সিম্বায়োসিস সংস্থার কথা আগে বলা হয়নি। যখন পার্থর জামিনের আবেদনের করা হয় আদালতে তখন সিম্বায়োসিস নামে সংস্থাটির কথা জানায় ইডি। ‘অপা ইউটিলিটি’(অর্পিতা-পার্থ) নামের সংস্থাটির জন্য জমি কিনতেও ভুয়া সংস্থার নাম ব্যবহার করা হয়েছে বলে আদালতে জানিয়েছে কেন্দ্রীয় আর্থিক তদন্তকারী সংস্থা (ইডি)।

এরপরই এদিন বিকেলে কলকাতার নগদ দায়রা আদালতের বিচারপতি জীবন সাধু জামিনের আবেদন খারিজ করে জানান, আরও ১৪ দিন জেল হেফাজতেই থাকতে হবে পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও অর্পিতা মুখোপাধ্যায়কে। তাদের আবার আদালতে তোলা হবে আগামী ১৪ সেপ্টেম্বর। তবে এদিন আদালতে সম্পূর্ণ শুনানি হয়েছে ভার্চ্যুয়ালি। পার্থকে রাখা হয়েছে কলকাতার প্রেসিডেন্সি জেলে এবং অর্পিতা আছেন কলকাতার আলিপুর নারী সংশোধনাগারে। অভিযুক্তদের ওখানে রেখেই ভার্চ্যুয়ালি মামলাটা চলে কলকাতার ব্যাঙ্কশাল কোর্টের অন্তর্গত নগর দায়রা আদালতে।

বাংলাদেশ সময়: ১০৩৪ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ০১, ২০২২
ভিএস/এনএইচআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa