ঢাকা, সোমবার, ২ কার্তিক ১৪২৮, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

তৃণমূলে ফিরলেন সৌমেন মিত্রের স্ত্রী শিখা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৪ ঘণ্টা, আগস্ট ২৯, ২০২১
তৃণমূলে ফিরলেন সৌমেন মিত্রের স্ত্রী শিখা

কলকাতা: তৃণমূলে ফিরলেন প্রয়াত কংগ্রেস নেতা সোমেন মিত্রের স্ত্রী শিখা মিত্র।  

রোববার (২৯ আগস্ট) দক্ষিণ কলকাতার তৃণমূল সংসদ সদস্য মালা রায় ও মধ্য কলকাতার চৌরঙ্গির বিধায়ক, অভিনেত্রী নয়না বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপস্থিতিতে তৃণমূলে যোগ দেন শিখা মিত্র।

তবে তিনি তৃণমূলে ফিরলেও তার ছেলে রোহন মিত্র এখনও রয়েছেন কংগ্রেসেই।

২০১১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের টিকিটেই চৌরঙ্গি কেন্দ্র থেকে জিতেছিলেন তিনি। ২০১৪ সালে দলের সঙ্গে মতানৈক্য তৈরি হওয়ায় তৃণমূল ছাড়েন। পরে বিধায়ক পদেও ইস্তফা দিয়েছিলেন শিখা মিত্র। তবে এবারের বিধানসভা ভোটের ফল প্রকাশের পর থেকে শিখা মিত্রের তৃণমূলে ফিরতে পারেন বলে জল্পনা ছিল।  

জানা যায়, তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্বের তরফেও শিখা মিত্রর সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছিল। এমনকি এ ব্যাপারে খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজেও তৎপরতা দেখিয়েছিলেন। ফলে দলের সঙ্গে যাবতীয় দূরত্ব ঘুঁচিয়ে ফের তৃণমূল কংগ্রেসে ফিরলেন শিখা মিত্র।

পুরনো দলে ফিরে এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন শিখা মিত্র। দলে ফিরে শিখা মিত্র বলেন, মতানৈক্য হলেও কোনোদিনও তৃণমূল ছাড়িনি। কংগ্রেসেও ফিরে যাইনি। জীবন দিয়ে মানুষের জন্য কাজ করছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাকে এবার সঙ্গ দিতে চাই। মমতা ফোন করে আমার খোঁজ নিয়েছিলেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আমাকে শ্রদ্ধা করেন। তার ইচ্ছাই এবার পূরণ হল।

উল্লেখ্য, এবারের একুশে বিধানসভা ভোটের আগে শিখা মিত্রের বিজেপি যোগের জল্পনা তৈরি হয়েছিল। এমনকি বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী তার বাড়িতে গিয়েও দেখা করে এসেছিলেন। এরপরেই হঠাৎ করে বিজেপি প্রার্থী তালিকায় শিখা মিত্রের নাম উঠে আসে। তাতে বেশ ক্ষুব্ধ হয়েছিলেন শিখা মিত্র। তার সঙ্গে কোনো আলোচনা না করেই তাকে বিজেপি প্রার্থী বলে ঘোষণা করেছে বলে জানিয়েছিলেন শিখা মিত্র।

বাংলাদেশ সময়: ২০১২ ঘণ্টা, আগস্ট ২৯, ২০২১
ভিএস/এনটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa