ঢাকা, সোমবার, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৫ আগস্ট ২০২২, ১৬ মহররম ১৪৪৪

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

দল ভেঙে একঝাঁক বিধায়কসহ বিজেপিতে যোগ দিলেন ছয় সংখ্যালঘু নেতা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৪৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৯, ২০২০
দল ভেঙে একঝাঁক বিধায়কসহ বিজেপিতে যোগ দিলেন ছয় সংখ্যালঘু নেতা

কলকাতা: যাবতীয় জল্পনার অবসান ঘটিয়ে তৃণমূলের সঙ্গে একুশ বছরের সম্পর্ক ছিন্ন করে নতুন যাত্রা শুরু করলেন মেদিনীপুরের দাপুটে নেতা তথা সদ্য বিধায়ক পদত্যাগী শুভেন্দু অধিকারী। পুর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী শনিবার (১৯ ডিসেম্বর) নিজের ঘরে অর্থাৎ মেদিনীপুরে অমিত শাহের সভায় বিজেপিতে যোগদান করলেন তিনি।

শুধু শুভেন্দু অধিকারী নয়, তার সাথে যোগ দিলেন নয়জন বর্তমান বিধায়ক। এরমধ্যে একজন সিপিএম, একজ সিপিআই, একজন কংগ্রেসের এবং বাকি ছয় জন তৃণমূল কংগ্রেসের। এছাড়া একজন বর্তমান সাংসদ, একজন সাবেক সাংসদ, বিধায়ক ও মন্ত্রী।

এছাড়া তাৎপর্যপূর্ণভাবে অমিত শাহর সভা থেকে বিজেপির পতাকা তুলে নিলেন ছয়জন মুসলিম সংখ্যালঘু সম্প্রদায় নেতা। এরসাথে আছে একঝাঁক তৃণমূল কংগ্রসে, সিপিআইএম এবং প্রদেশ কংগ্রেসের আঞ্চলিক নেতারা।

আসন্ন পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনের আগে এদিন নেতা-কর্মী-সাংসদের উদ্দেশ্যে অমিত শাহ বলেন, আমি আগেও বলেছি এবং আজও বলছি ২০০র বেশি আসন নিয়ে পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি ক্ষমতায় আসবে।

এছাড়া মেদিনীপুরের সভামঞ্চ থেকে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কটাক্ষ করে বলেন, ভাতিজাকে মুখ্যমন্ত্রী করতে চাইছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যেভাবে তৃণমূল ছেড়ে সবাই বের হতে শুরু করেছে নির্বাচন আসতে আসতে আপনি(মমতা) একা পরে যাবেন দলে।

বিজেপির বিরুদ্ধে দল ভাঙানোর অভিযোগ তুলেছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা। তার জবাবে অমিত শাহ বলেন,আপনার (মমতা) মূল দল ছিল কংগ্রেস। কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূল করেছেন। সেটা দলবদল ছিল না?

মা-মাটি মানুষ স্লোগান আজ তোলাবাজি, তোষণ ও ভাতিজাবাদে পরিণত হয়েছে। দশ কোটি বাঙালির ভবিষ্যত আপনি দেখতে পাচ্ছেন না। কোটি কোটি যুবকের ভবিষ্যত দেখতে পাচ্ছেন না। আপনার চোখে এখন শুধুই ভাইপো, কখন তাকে মুখ্যমন্ত্রী করবেন। এই চিন্তাতেই বিভোর আপানি।

এদিন বিজেপিতে যোগ দিলেন বর্তমান সংসদ সদস্য সুনীল মন্ডল, সাবেক সাংসদ সদস্য দশরথ তিরকে, পুর্ব মেদিনীপুর তথা উত্তর কাথির বিধায়ক বনশ্রী মাইতি, হলদিয়ার  কালনার বিধায়ক বিশ্বজিৎ কুন্ডু, পুর্ব বর্ধমানের বিধায়ক সৈকত পাঁজা, উত্তর ২৪পরগনার ব্যাপরাকপুরের বিধায়ক শীলভদ্র দত্ত, মালদার গাজলের বিধায়ক দীপালি বিশ্বাস, জলপাইগুড়ির নাগরাকাটার বিধায়ক শুক্রা মুন্ডা।

এছাড়া বিজেপিতে যোগ দিলেন হলদিয়া পূর্বের সিপিএম বিধায়ক তপস্বী মন্ডল, তমলুকের সিপিআই বিধায়ক অশোক দিন্দা, পুরুলিয়াল কংগ্রেস বিধায়ক সুদীপ মুখোপাধ্যায়, সাবেক বস্ত্রমন্ত্রী শ্যাম্প্রসাদ মুখোপাধ্যায়।

এছাড়া মুসলিম সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের রাজ্যস্তরের নেতা অধ্যাপক ওইদুল হক, হুগলীর সাবেক বিধায়ক পারভেজ রহমান, হুগলীর সংখ্যালঘু নেতা আলমগীর মোল্লা, পশ্চিমবঙ্গ তৃনমুল কংগ্রেসেরে মাইনরটি সেলের সাধারন সম্পাদক কবিরুল ইসলাম, বীরভুমের দাপুটে নেতা কালাম হোসেন, ফিরোজ খান সহ একিাধিক নেতা-নেতৃ এদিন অমিত শাহর মঞ্চ থেকে বিজেপিতে যোগ দিলেন।

শনিবার (১৯ ডিসেম্বর) দুদিনের সফরে পশ্চিমবঙ্গে এসেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

বাংলাদেশ সময়: ২০৪৬ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৯, ২০২০
ভিএস/এমএমএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa