ঢাকা, সোমবার, ১ বৈশাখ ১৪৩১, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৫ শাওয়াল ১৪৪৫

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

বন্দিদের দিয়ে পেট্রোল পাম্প চালানোর পরিকল্পনা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০৩৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৫, ২০১৬
বন্দিদের দিয়ে পেট্রোল পাম্প চালানোর পরিকল্পনা ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

কারাগারে বন্দিদের দিয়ে পেট্রোল পাম্প চালানোর পরিকল্পনা করেছে পশ্চিমবঙ্গের কারা দফতর। কলকাতার আলিপুর সংশোধোনাগারে বন্দিদের দিয়ে এ কাজ শুরু করা হতে পারে বলে খবর রয়েছে।

কলকাতা: কারাগারে বন্দিদের দিয়ে পেট্রোল পাম্প চালানোর পরিকল্পনা করেছে পশ্চিমবঙ্গের কারা দফতর। কলকাতার আলিপুর সংশোধোনাগারে বন্দিদের দিয়ে এ কাজ শুরু করা হতে পারে বলে খবর রয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র বলছে, ‍এ  প্রকল্প চালু হলে এটাই হবে পশ্চিমবঙ্গে এ ধরনের কোনো প্রকল্প।

এর আগে ভারতের বিভিন্ন জায়গায় এ প্রকল্প পরীক্ষামূলকভাবে শুরু হয়েছে। জেল থেকে সংশোধনাগার হওয়ার পথে বন্দিদের মূল স্রোতে ফেরাতে এর আগে বেশ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে পশ্চিমবঙ্গের  কারা দফতর।
বিভিন্ন সময় বন্দিরা নাটক করেছেন, কখনও রাস্তায় বেরিয়ে ছবি এঁকেছেন। কিন্তু এ ধরনের কোনো পেশায় সরাসরি যুক্ত হওয়ার ঘটনা এইটাই হবে প্রথম।

সূত্র বলছে, স্কুল পড়ুয়াদের ইউনিফর্ম তৈরি থেকে শুরু করে সরকারি দফতরে ব্যবহারের জন্য পাটজাত দ্রব্যের ফাইল, ব্যাগ তৈরির প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে বন্দিদের।
সাম্প্রতিককালে পাঁচতারকা হোটেলের শেফরা এসে বন্দিদের পিৎজা, কুকিজ বানানো শিখিয়েছেন। এসব কাজ করছেনও বন্দিরা।

পেট্রোল পাম্প চালানোর ভাবনা কার্যকর হলে বন্দিরা আরও বেশি উপকৃত হবেন বলে মনে করছেন কর্মকর্তারা।
প্রকল্প অনুযায়ী, প্রাথমিকভাবে আলিপুর জেলের ভেতর চালু হতে পারে একটি পেট্রোল পাম্প। সেখান থেকে সরকারি দফতরের বিভিন্ন গাড়ি তেল সংগ্রহ করতে পারে।

ফলে একদিকে যেমন বন্দিরা বাইরের লোকদের সঙ্গে মিশতে পারবেন, অন্য দিকে জেল থেকে মুক্ত হয়ে সাধারণ জীবনে তাদের ফিরতেও সুবিধা হবে।

পশ্চিমবঙ্গের কারা মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, সংশোধনাগার বিভাগে বেশ কিছু নতুন পরিকল্পনা হাতে নিতে চলেছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার।

‘বন্দিদের হাতে তৈরি জিনিসপত্র যাতে বেশি করে সরকারি বিভিন্ন দফতরে ব্যবহার করা যায় এবং বাজারে আনা যায়, সে ব্যাপারে ভাবনাচিন্তা চলছে। ’

বাংলাদেশ সময়: ১৬৩৩ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৫, ২০১৬
এসএস/এমএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।