ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ আশ্বিন ১৪৩০, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৫

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

ভারত-বাংলাদেশ-নেপাল ট্রানজিট নিয়ে ভারত-নেপাল চুক্তি

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪২৭ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০১৬
ভারত-বাংলাদেশ-নেপাল ট্রানজিট নিয়ে ভারত-নেপাল চুক্তি

কলকাতা: বাংলাদেশের ওপর নিয়ে ভারত ও নেপালের মধ্যে সরাসরি রেল ট্রানজিট চালুতে উদ্যোগী হয়েছে ভারত ও নেপাল। কাকড়ভিটা-বাংলাবান্ধা সীমান্তের মাধ্যমে পণ্য পরিবহনের মধ্যে দিয়ে ভারত-বাংলাদেশ-নেপাল বাণিজ্যে এক নতুন অধ্যায়ের সূচনা  হতে চলেছে।

ভারতের বিদেশ মন্ত্রকে ওয়েবসাইটে এই তথ্য জানানো হয়েছে। বলা হয়েছে একটি রেল লাইন বাংলাদেশের উপর দিয়ে নেপালকে সংযুক্ত করবে। এই পথে মূলত পণ্যবাহী রেল চলাচল করবে।

এই পণ্য পরিবহনের নতুন পথ খোলার ফলে তিন দেশেরই বাণিজ্যিক ক্ষেত্র বেশ কিছুটা প্রসার লাভ করবে। একদিকে যেমন  কাকড়ভিটা-বাংলাবান্ধা সীমান্তের মধ্যে দিয়ে পণ্য পাঠাতে পারবে ভারত অন্য দিকে নেপালের সঙ্গে যুক্ত হওয়ায় বাংলাদেশ নেপাল বাণিজ্যের ক্ষেত্রেও যথেষ্ট সম্ভাবনার সৃষ্টি হবে।

ভারত সফররত নেপালের প্রধানমন্ত্রী কে পি শর্মা ওলির সঙ্গে সাথে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর এই বিনিময় পত্র সই হয়েছে। উল্লেখ্য ভারতে ৬ দিনের সফরে এসেছেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী। এই প্রসঙ্গে মনে রাখতে হবে নেপালের সংবিধানে অভ্যন্তরীণ কিছু গলদের জন্য হওয়া রাজনৈতিক বিক্ষোভের ফলে  নেপালের সঙ্গে কিছুদিন আগে ভারতের পেট্রোলিয়াম জাত পণ্য পাঠানো নিয়ে সমস্যা হয়েছিল।

নেপালের প্রধানমন্ত্রী কে পি শর্মা ওলি জানিয়েছেন বর্তমানে সেই সমস্ত ভুল বোঝাবুঝি সমাপ্ত হয়েছে। এই পণ্য পরিবহনের পথের মাধ্যমে বাংলাদেশ থেকে বিশাখাপত্তনম বন্দর পৌঁছানো অনেকটাই সহজ হবে।

নরেন্দ্র মোদীর বাংলাদেশ সফরের সময় দুই দেশের জমি ব্যবহার করে তৃতীয় দেশের বাণিজ্যের বিষ্যে চুক্তি সম্পাদিত হয়েছিল। নেপালের সঙ্গে ভারতের এই নতুন চুক্তি সেই চুক্তির ধারাবাহিকতা বলেই মনে করা হচ্ছে। এর ফলে গোটা এলাকার আঞ্চলিক বাণিজ্যের উন্নতি এবং তিনটি দেশের অর্থনীতিতেই ইতিবাচক প্রভাব পড়বে।

বাংলাদেশ সময়: ১৪২৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০১৬
ভি.এস/আরআই


বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa