ঢাকা, রবিবার, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

পশ্চিমবঙ্গে নয়া সরকার

মন্ত্রীদের কক্ষ সাজাতেই দেড় কোটি রুপি

রক্তিম দাশ, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০২৯ ঘণ্টা, মে ২৫, ২০১১
মন্ত্রীদের কক্ষ সাজাতেই দেড় কোটি রুপি

কলকাতা: নবনিযূক্ত তুণমূল নেতৃত্বাধীন জোট সরকারের মুখ্যমন্ত্রী সহ মন্ত্রীদের জন্য বরাদ্দকৃত রাজ্য সচিবালয় মহাকরণের কক্ষগুলোকে নতুন সাজে সাজাতে ব্যয় করা হচ্ছে দেড় কোটি রুপি। ইতিমধ্যে রাজ্যের পূর্ত মন্ত্রকের পক্ষ থেকে এই কাজ শুরু করা হয়েছে।



রাজ্যের পূর্ত সচিব অজিতরঞ্জন বর্মন মহাকরণে বাংলানিউজকে বলেছেন, ‘মুখ্যমন্ত্রীর কক্ষটির সংস্কার ও সৌর্ন্দয্য বৃদ্ধির কাজ চলছে। সামনের সপ্তাহ থেকে এই কক্ষটিতে তিনি বসতে পারবেন। ’

এই সংস্কার কাজের জন্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি আপাতত তার নিজস্ব কক্ষে বসতে পারছেন না। তার ঘরে দিনরাত ২৫ জন কর্মী কাজ করছেন। মুখ্যমন্ত্রীর এই কক্ষটিতে থাকবে ৮টি কাঠের চেয়ার।

তার নিজস্ব কক্ষ ও সাক্ষাৎপ্রার্থীদের কক্ষের জন্য ব্যয় করা হচ্ছে ৩ লাখ রুপি।

এছাড়াও মহাকরণে অবস্থিত ৩৫ জন মন্ত্রীর কক্ষও সংস্কার করা হবে। প্রতিটি কক্ষের জন্য ব্যয় করা হবে ১ লাখ রুপি।

মঙ্গলবার মুখ্যমন্ত্রীর সচিবালয়ের ৫ জন সচিবকে বদলি করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছেন প্রধান সচিব সুবেশ দাস। তিনি সাবেক বামফ্রন্ট সরকারের আমলে এই পদে এসেছিলেন। রীতি অনুযায়ী যিনি মুখ্যমন্ত্র্রী হন তিনি তার মনোনীত লোককে নিয়ে সচিবালয় তৈরী করতে পারেন। এই ক্ষেত্রে তাই করেছেন মমতা ব্যানার্জি।

মহাকরণ সুত্রে জানা গেছে, ভারতীয় রেলের কর্মকর্তা গৌতম স্যানাল প্রধান সচিবের দায়িত্ব নিতে চলেছেন।

এদিকে, রাজ্যের নতুন অ্যাডভোকেট জেনারেল হচ্ছেন আইনজীবি অনিন্দ্য মিত্র। রাজ্যের আইন মন্ত্রক সূত্রে এই খবর জানা গেছে।

বামফ্রন্ট সরকারের পরাজয়ের পরই গত ২০ মে অ্যাডভোকেট জেনারেল বলাই রায় পদত্যাগ করেছিলেন। সেই সঙ্গে পদ্যতাগ করেছেন সরকারী প্লিডার ও পাবলিক প্রসিকিউটার।

জানা গেছে, জিপি হতে চলেছেন অশোক ব্যানার্জি ও পিপি হবেন দেবাশিষ রায়।

বাংলাদেশ সময়: ০০২৬ ঘন্টা, মে ২৫, ২০১১

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa