ঢাকা, সোমবার, ২ কার্তিক ১৪২৮, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

কালো টাকার অভিযোগ-পাল্টা অভিযোগে সরগরম রাজ্য রাজনীতি

রক্তিম দাশ, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৩১ ঘণ্টা, এপ্রিল ২২, ২০১১

কলকাতা: কালোটাকার ব্যবহার নিয়ে বিধানসভা নির্বাচনের আসর সরগরম হয়ে উঠেছে পশ্চিমবঙ্গে। রাজ্যের শাসকদল সিপিএম ও তৃণমূল একে অপরের বিরুদ্ধে ব্যাপক প্রচার শুরু করেছে।



শুক্রবার তৃণমূল নেতা ও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মুকুল রায় অভিযোগ করেছেন, বীরভূমের সিপিএম সাংসদ ডা. রামচন্দ্র ডোম ভোটের আগের দিন টাকা বিলি করে ভোট কিনেছেন।

তৃণমূল নেতা পার্থ চট্টোপাধ্যায় কলকাতায় সাংবাদিকের সঙ্গে বৈঠক করে বলেন, ‘মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের কোনও দৈনিক আয় না থাকলেও তিনি কি করে প্রতিদিন ৪শ’ রুপির সিগারেট খান। তার মেয়ের স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার টাকা আসে বিদেশ থেকে। তার আয়ের কোনও হিসাব তিনি ইসির হলফনামায় দেননি কেন?’

অন্যদিকে সিপিএম নেতা ও বামফ্রন্ট সভাপতি পাল্টা সাংবাদিক সম্মেলনে অভিযোগ করেন, কলকাতার চৌরঙ্গির একটি ব্যাঙ্কে তৃণমূল নেতা দেবপ্রিয় দে সরকার ১ কোটি ২৩ লাখ রুপির ৫টি ব্যাঙ্ক ড্রাফট তৈরি করেছেন একটি অডিও ভিস্যুয়াল সংস্থার নামে। ভারতের কেন্দ্রীয় রির্জাভ ব্যাঙ্কের নিয়মানুসারে যা কখনই করা যায় না। প্রায় জোর করে তিনি ওই বিপুল পরিমাণ অর্থের ব্যাংকড্রাফট করেছেন।

এদিকে সিপিএম নেতা সীতারাম ইয়েচুরি আরও গুরুতর অভিযোগ করেছেন। কলকাতার রাসবিহারী কেন্দ্রে দলীয় প্রার্থীর সমর্থনে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘সম্প্রতি ঘটে যাওয়া টুজি স্পেকট্রাম কেলেঙ্কারির টাকা নির্বাচনে ব্যবহার করছে তৃণমূল। ’

শাসক দল ও বিরোধী শিবির দু’পক্ষেরই দাবি-এই কালোটাকার তদন্ত করতে হবে। এর জন্য তারা নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হচ্ছেন।

বাংলাদেশ সময়: ২০২৪ ঘণ্টা, এপ্রিল ২২, ২০১১

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa